রাস্তায় বোরকা খুলে নিয়ে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি
jugantor
রাস্তায় বোরকা খুলে নিয়ে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি

  রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১২:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীতে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রাস্তার উপরেই এক ছাত্রীর (১৬) বোরকা খুলে নিয়ে যৌন হয়রানি চালানো হয়েছে। এ ঘটনায় অমিরুল মোল্লা মিরু (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে রোববার থানায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা।

রাজবাড়ী সদর থানা পুলিশ অভিযুক্ত মিরু মোল্লাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। বিষয়টি সোমবার দুপুরে যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন রাজবাড়ী সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন।

ওই ছাত্রীর বাবার অভিযোগ, তার মেয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়া-আসার পথে মিরু মোল্লা প্রকাশ্যে রাস্তায় তার মেয়েকে প্রেম ও কুপ্রস্তাব দিত। ওই ছাত্রী বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে তার বাবা বখাটের পরিবারকে জানায়। এতে মিরু ক্ষিপ্ত হয়ে উঠার পাশাপাশি ওই মেয়ের ক্ষতি করতে উঠে পড়ে লাগে।

তারই জের ধরে গত শনিবার দুপুরে ওই ছাত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে রাজবাড়ীর শ্রীপুর বাস ট্রার্মিনাল এলাকার পেট্রল পাম্পের সামনের রাস্তায় পৌঁছলে মিরু তার গতিরোধ করে এবং আগের মতো করে প্রেম ও কুপ্রস্তাব দেয়। এতে ওই ছাত্রী রাজি না হলে সে তার বোরকা টেনে খুলে ফেলার পাশাপাশি তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়।

ছাত্রীটি উপায়ন্তর না পেয়ে চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। অবস্থা বেগতিক দেখে মিরু মোল্লা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন সোমবার যুগান্তরকে বলেন, ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রোববার থানায় মামলা দায়েরের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত আসামি মিরু মোল্লাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে গ্রেফতারকৃত মিরু মোল্লার বিরুদ্ধে থানায় আগেও মামলা রয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

রাস্তায় বোরকা খুলে নিয়ে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি

 রাজবাড়ী প্রতিনিধি  
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীতে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রাস্তার উপরেই এক ছাত্রীর (১৬) বোরকা খুলে নিয়ে যৌন হয়রানি চালানো হয়েছে। এ ঘটনায় অমিরুল মোল্লা মিরু (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে রোববার থানায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা।

রাজবাড়ী সদর থানা পুলিশ অভিযুক্ত মিরু মোল্লাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। বিষয়টি সোমবার দুপুরে যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন রাজবাড়ী সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন। 

ওই ছাত্রীর বাবার অভিযোগ, তার মেয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়া-আসার পথে মিরু মোল্লা প্রকাশ্যে রাস্তায় তার মেয়েকে প্রেম ও কুপ্রস্তাব দিত। ওই ছাত্রী বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে তার বাবা বখাটের পরিবারকে জানায়। এতে মিরু ক্ষিপ্ত হয়ে উঠার পাশাপাশি ওই মেয়ের ক্ষতি করতে উঠে পড়ে লাগে।

তারই জের ধরে গত শনিবার দুপুরে ওই ছাত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে রাজবাড়ীর শ্রীপুর বাস ট্রার্মিনাল এলাকার পেট্রল পাম্পের সামনের রাস্তায় পৌঁছলে মিরু তার গতিরোধ করে এবং আগের মতো করে প্রেম ও কুপ্রস্তাব দেয়। এতে ওই ছাত্রী রাজি না হলে সে তার বোরকা টেনে খুলে ফেলার পাশাপাশি তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়।

ছাত্রীটি উপায়ন্তর না পেয়ে চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। অবস্থা বেগতিক দেখে মিরু মোল্লা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন সোমবার যুগান্তরকে  বলেন, ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রোববার থানায় মামলা দায়েরের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত আসামি মিরু মোল্লাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে গ্রেফতারকৃত মিরু মোল্লার বিরুদ্ধে থানায় আগেও মামলা রয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন