সাতক্ষীরার প্রথম নারী ইউপি চেয়ারম্যান বিশাখা
jugantor
সাতক্ষীরার প্রথম নারী ইউপি চেয়ারম্যান বিশাখা

  সুভাষ চৌধুরী, সাতক্ষীরা  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৬:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরা জেলায় এবারই প্রথম কোনো নারী ইউপি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলেন। নির্বাচিত আওয়ামী লীগের এই নেত্রীর নাম বিশাখা সাহা।

তিনি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে কলারোয়া উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে ২ হাজার ৭০৩ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী জয়দেব সাহা পেয়েছেন ২২৬৭ ভোট।

কলারোয়া উপজেলায় এর আগে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিলকিস জামান। এরপর বিভিন্ন সময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নারী নেত্রীরা এগিয়ে এলেও ইউপি চেয়ারম্যান পদে এই প্রথম এলেন বিশাখা সাহা।

বিশাখা সাহা জয়নগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত তপন সাহার স্ত্রী। তিনি ২০১৬ সালে ইউপি নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছিলেন। এবার তিনি জয়লাভ করে সাতক্ষীরা জেলার প্রথম নারী চেয়ারম্যান হিসাবে জন প্রতিনিধিত্ব করছেন।

বিজয়ের পর বিশাখা সাহা সাংবাদিকদের বলেন, আমি জনগণের পক্ষে কাজ করতে চাই। কারণ তারাই আমাকে এই পদে বসিয়েছেন।

সাতক্ষীরার প্রথম নারী ইউপি চেয়ারম্যান বিশাখা

 সুভাষ চৌধুরী, সাতক্ষীরা 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাতক্ষীরা জেলায় এবারই প্রথম কোনো নারী ইউপি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলেন। নির্বাচিত আওয়ামী লীগের এই নেত্রীর নাম বিশাখা সাহা।

তিনি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে কলারোয়া উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে ২ হাজার ৭০৩ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী জয়দেব সাহা পেয়েছেন ২২৬৭ ভোট।

কলারোয়া উপজেলায় এর আগে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন বিলকিস জামান। এরপর বিভিন্ন সময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নারী নেত্রীরা এগিয়ে এলেও ইউপি চেয়ারম্যান পদে এই প্রথম এলেন বিশাখা সাহা।

বিশাখা সাহা জয়নগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত তপন সাহার স্ত্রী। তিনি ২০১৬ সালে ইউপি নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছিলেন। এবার তিনি জয়লাভ করে সাতক্ষীরা জেলার প্রথম নারী চেয়ারম্যান হিসাবে জন প্রতিনিধিত্ব করছেন।

বিজয়ের পর বিশাখা সাহা সাংবাদিকদের বলেন, আমি জনগণের পক্ষে কাজ করতে চাই। কারণ তারাই আমাকে এই পদে বসিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন