দুই ট্রেন মুখোমুখি, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন কয়েকশ যাত্রী
jugantor
দুই ট্রেন মুখোমুখি, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন কয়েকশ যাত্রী

  কুমিল্লা ব্যুরো  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:২৩:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় একই লাইনে মুখোমুখি হয়ে পড়েছিল দুই ট্রেন। এতে অল্পের জন্য রক্ষা পেল কয়েকশ যাত্রী। মঙ্গলবার দুপুর ১টা ৪৮ মিনিটের দিকে কুমিল্লা রেল স্টেশনের পাশে ধর্মপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, ঢাকা অভিমুখী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেন নির্দিষ্ট সময় থেকে প্রায় ২০ মিনিট বিলম্বে কুমিল্লা স্টেশনে প্রবেশ করছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা ম্যাক্সের পাথর বোঝাই একটি ট্রেনও একই লাইন হয়ে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে।

ম্যাক্সের ট্রেনটি ধর্মপুর রেলক্রসিং থেকে দক্ষিণে চলে আসে। আর কর্ণফুলী ট্রেনটি তখন কুমিল্লা স্টেশন থেকে পৌনে এক কিলোমিটার দক্ষিণে এবং ম্যাক্সের পাথর বোঝাই ট্রেন থেকে মাত্র ১২০ গজ দূরে অবস্থান করছিল। দুটি ট্রেনের চালকই দ্রুততার সঙ্গে ট্রেন থামিয়ে ফেলেন। এ সময় কর্ণফুলী ট্রেনের যাত্রীরা হুড়োহুড়ি করে নেমে পড়েন। তবে কেউ আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে দুটি ট্রেন একই লাইনে চলে আসার ঘটনায় কর্ণফুলীতে দায়িত্বরত স্টাফরা স্টেশন মাস্টারকে দোষারোপ করেন। আর ম্যাক্সের স্টাফরা দোষারোপ করেন কর্ণফুলীর চালককে।

কুমিল্লার স্টেশন মাস্টার সফিকুর রহমান ভূঁইয়া জানান, এটা ভুল বোঝাবুঝির কারণে হতে পারে। অল্প সময়ের মধ্যে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এতে কেউ আহত হয়নি।

রেলওয়ে কুমিল্লার ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) লিয়াকত আলী মজুমদার বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। খোঁজ-খবর নিয়ে দ্রুত এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দুই ট্রেন মুখোমুখি, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন কয়েকশ যাত্রী

 কুমিল্লা ব্যুরো 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় একই লাইনে মুখোমুখি হয়ে পড়েছিল দুই ট্রেন। এতে অল্পের জন্য রক্ষা পেল কয়েকশ যাত্রী। মঙ্গলবার দুপুর ১টা ৪৮ মিনিটের দিকে কুমিল্লা রেল স্টেশনের পাশে ধর্মপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, ঢাকা অভিমুখী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেন নির্দিষ্ট সময় থেকে প্রায় ২০ মিনিট বিলম্বে কুমিল্লা স্টেশনে প্রবেশ করছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা ম্যাক্সের পাথর বোঝাই একটি ট্রেনও একই লাইন হয়ে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে।

ম্যাক্সের ট্রেনটি ধর্মপুর রেলক্রসিং থেকে দক্ষিণে চলে আসে। আর কর্ণফুলী ট্রেনটি তখন কুমিল্লা স্টেশন থেকে পৌনে এক কিলোমিটার দক্ষিণে এবং ম্যাক্সের পাথর বোঝাই ট্রেন থেকে মাত্র ১২০ গজ দূরে অবস্থান করছিল। দুটি ট্রেনের চালকই দ্রুততার সঙ্গে ট্রেন থামিয়ে ফেলেন। এ সময় কর্ণফুলী ট্রেনের যাত্রীরা হুড়োহুড়ি করে নেমে পড়েন। তবে কেউ আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে দুটি ট্রেন একই লাইনে চলে আসার ঘটনায় কর্ণফুলীতে দায়িত্বরত স্টাফরা স্টেশন মাস্টারকে দোষারোপ করেন। আর ম্যাক্সের স্টাফরা দোষারোপ করেন কর্ণফুলীর চালককে।

কুমিল্লার স্টেশন মাস্টার সফিকুর রহমান ভূঁইয়া জানান, এটা ভুল বোঝাবুঝির কারণে হতে পারে। অল্প সময়ের মধ্যে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এতে কেউ আহত হয়নি।

রেলওয়ে কুমিল্লার ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) লিয়াকত আলী মজুমদার বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। খোঁজ-খবর নিয়ে দ্রুত এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন