কক্সবাজারে রিসোর্টে নারী পর্যটকের লাশ
jugantor
কক্সবাজারে রিসোর্টে নারী পর্যটকের লাশ

  যুগান্তর প্রতিবেদন ও কক্সবাজার প্রতিনিধি  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৪:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের একটি রিসোর্ট থেকে এক নারী পর্যটকের লাশ উদ্ধার করেছে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন জানান, পর্যটক তরুণীর মৃত্যুর খবর পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়। এসময় মৃত তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি ময়নাতদন্তের জন্য তরুণীর লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এরেই মধ্যে সিআইডি, পিবিআইসহ বেশ কয়েকটি সংস্থার টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হোটেল রেজিস্টার মতে, নিহত তরুণীর নাম ফারজানা (২৩) এবং তার পলাতক সঙ্গীর নাম সাগর।

তিনি আরও জানান, তারা স্বামী, স্ত্রী পরিচয়ে কলাতলীর পিবিআই অফিসের পেছনের গলির আমারি রিসোর্টে উঠেছিল। হোটেলে উঠার সময় গেস্ট এন্ট্রি খাতায় তাদের বাড়ি কুমিল্লা চান্দিনা থানা লেখা হয়। যদিও ঠিকানা সঠিক কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ আছে বলেও জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন।

তিনি বলেন, তারা দুজন মঙ্গলবার সকালে ওই রিসোর্টে ওঠে। বেলা ১১টায় ওই রুমের কোনো সাড়া শব্দ না পেলে হোটেল কর্তৃপক্ষ দরজার তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করলে ফারজানার লাশ দেখতে পায়। কিন্তু তার সঙ্গী সাগরের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। হোটেল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে খবর পাওয়ার পর আমরা ঘটনাস্থলে যাই। ফারজানার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

তিনি জানান, মৃত ফারজানা ও পলাতক সাগরের সঠিক পরিচয় ও তথ্যের বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

কক্সবাজারে রিসোর্টে নারী পর্যটকের লাশ

 যুগান্তর প্রতিবেদন ও কক্সবাজার প্রতিনিধি 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের একটি রিসোর্ট থেকে এক নারী পর্যটকের লাশ উদ্ধার করেছে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন জানান, পর্যটক তরুণীর মৃত্যুর খবর পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়। এসময় মৃত তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি ময়নাতদন্তের জন্য তরুণীর লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এরেই মধ্যে সিআইডি, পিবিআইসহ বেশ কয়েকটি সংস্থার টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হোটেল রেজিস্টার মতে, নিহত তরুণীর নাম ফারজানা (২৩) এবং তার পলাতক সঙ্গীর নাম সাগর।

তিনি আরও জানান, তারা স্বামী, স্ত্রী পরিচয়ে কলাতলীর পিবিআই অফিসের পেছনের গলির আমারি রিসোর্টে উঠেছিল। হোটেলে উঠার সময় গেস্ট এন্ট্রি খাতায় তাদের বাড়ি কুমিল্লা চান্দিনা থানা লেখা হয়। যদিও ঠিকানা সঠিক কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ আছে বলেও জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন।

তিনি বলেন, তারা দুজন মঙ্গলবার সকালে ওই রিসোর্টে ওঠে। বেলা ১১টায় ওই রুমের কোনো সাড়া শব্দ না পেলে হোটেল কর্তৃপক্ষ দরজার তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করলে ফারজানার লাশ দেখতে পায়। কিন্তু তার সঙ্গী সাগরের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। হোটেল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে খবর পাওয়ার পর আমরা ঘটনাস্থলে যাই। ফারজানার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

তিনি জানান, মৃত ফারজানা ও পলাতক সাগরের সঠিক পরিচয় ও তথ্যের বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন