হাঁসের বাচ্চার জন্য স্ত্রীকে থাপ্পড়, ‘আত্মহত্যা’
jugantor
হাঁসের বাচ্চার জন্য স্ত্রীকে থাপ্পড়, ‘আত্মহত্যা’

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৯:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হাঁসের বাচ্চার জন্য স্ত্রীকে থাপ্পড় দেওয়ার জের ধরে মর্জিনা আকতার সুবর্ণা (২৭) নামে এক গৃহবধূ বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার রাত ৯টার দিকে হাটহাজারী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড আদর্শগ্রাম এলাকায় নিজ বসতঘরে বিষপান করেন। পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

তিনি পৌরসভার ৭ নম্বর সড়কের দক্ষিণ পাহাড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন বাড়ির মো. মহিউদ্দিনের স্ত্রী। মর্জিনার ৬ বছর বয়সী ইসফা নামে একটি মেয়ে ও ইসরাফিল নামে ২ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

স্বামী মহিউদ্দিন বলেন, সন্ধ্যায় একটি হাঁসের বাচ্চার বিষয় নিয়ে ঘরে আমার সঙ্গে স্ত্রীর ঝগড়া হয়। রাগে তাকে দুটি থাপ্পড় দিয়েছি। পরে চা পান করতে ঘর থেকে বের হয়ে আমি দোকানে চলে গেছি। কিছুক্ষণ পরে আমার স্ত্রী মোবাইলে কল দিয়ে বলে আমি বিষ খেয়েছি। আমি দ্রুত ঘরে ফিরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। পরে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

নিহত মর্জিনার বড়ভাই মো. শাহাজাহান বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে আমার বোন বিষপান করেছে। বিষপানের খবর শুনে দ্রুত আমরা চমেক হাসপাতালে এসে দেখি আমার বোন আর নেই। এ ঘটনায় তারা থানা পুলিশের কাছে কোনো মামলা বা অভিযোগ করবেন না।

হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব শর্মা বলেন, বিষপানে গৃহবধূ নিহতের খবর পেয়েছি। পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ এখনো অভিযোগ করেননি।

হাঁসের বাচ্চার জন্য স্ত্রীকে থাপ্পড়, ‘আত্মহত্যা’

 হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হাঁসের বাচ্চার জন্য স্ত্রীকে থাপ্পড় দেওয়ার জের ধরে মর্জিনা আকতার সুবর্ণা (২৭) নামে এক গৃহবধূ বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। 

বুধবার রাত ৯টার দিকে হাটহাজারী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড আদর্শগ্রাম এলাকায় নিজ বসতঘরে বিষপান করেন। পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

তিনি পৌরসভার ৭ নম্বর সড়কের দক্ষিণ পাহাড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন বাড়ির মো. মহিউদ্দিনের স্ত্রী। মর্জিনার ৬ বছর বয়সী ইসফা নামে একটি মেয়ে ও ইসরাফিল নামে ২ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। 

স্বামী মহিউদ্দিন বলেন, সন্ধ্যায় একটি হাঁসের বাচ্চার বিষয় নিয়ে ঘরে আমার সঙ্গে স্ত্রীর ঝগড়া হয়। রাগে তাকে দুটি থাপ্পড় দিয়েছি। পরে চা পান করতে ঘর থেকে বের হয়ে আমি দোকানে চলে গেছি। কিছুক্ষণ পরে আমার স্ত্রী মোবাইলে কল দিয়ে বলে আমি বিষ খেয়েছি। আমি দ্রুত ঘরে ফিরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। পরে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

নিহত মর্জিনার বড়ভাই মো. শাহাজাহান বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে আমার বোন বিষপান করেছে। বিষপানের খবর শুনে দ্রুত আমরা চমেক হাসপাতালে এসে দেখি আমার বোন আর নেই। এ ঘটনায় তারা থানা পুলিশের কাছে কোনো মামলা বা অভিযোগ করবেন না। 

হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব শর্মা বলেন, বিষপানে গৃহবধূ নিহতের খবর পেয়েছি। পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ এখনো অভিযোগ করেননি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন