আসামির শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্ন, জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ
jugantor
আসামির শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্ন, জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ

  যুগান্তর প্রতিবেদন, বরগুনা  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৪২:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনায় মাদক মামলায় অভিযুক্ত এক আসামির শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্নের পাশাপাশি হাত ভাঙার রহস্য উদঘাটনের জন্য জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বপ্রণোদিত হয়ে বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ মাহবুব আলম এ আদেশ দেন।

জানা গেছে, মঙ্গলবার ভোরে বরগুনা পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত বিনয় চন্দ্র সরকারের ছেলে শিশির চন্দ্র সরকারকে (২৪) গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর শিশিরের কাছ থেকে পাঁচ পিস ইয়াবা উদ্ধারের অভিযোগে মামলা দায়ের করে ওই দিন সন্ধ্যায় আদালতে হাজির করে পুলিশ। পরে আদালত শিশিরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

শিশিরকে আদালতে হাজির করার আগে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে নিয়ে যায় পুলিশ। এ সময় শিশিরের শরীরজুড়ে অমানসিক নির্যাতনের চিহ্ন দেখতে পান তার স্বজনরা। নির্যাতনের ফলে শিশিরের ডান হাত ভেঙে গেছে বলেও অভিযোগ শিশিরের স্বজনদের।

বৃহস্পতিবার শিশিরের পক্ষে তার আইনজীবী আদালতে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন মঞ্জুর করে শিশিরের শরীরজুড়ে আঘাতের রহস্য উদঘাটনের জন্য জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে শিশিরের আইনজীবী আবদুল ওয়াসিম মতিন বলেন, বৃহস্পতিবার শিশিরের জামিনের জন্য আমি বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করি। জামিন আবেদনের সঙ্গে শিশিরের শরীরজুড়ে অমানসিক নির্যাতনের চিহ্নের কিছু তথ্য-উপাত্ত আদালতে পেশ করি। এরপর আদালত শিশিরের জামিন মঞ্জুরের পাশাপাশি ওর শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্নের রহস্য উদঘাটনের জন্য জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে বরগুনা থানার এসআই মিহির কান্তি যুগান্তরকে বলেন, ২০ সেপ্টেম্বর বরগুনার ক্রোক এলাকায় রাতে মাদক অভিযানে গেলে শিশির পুলিশ দেখে দৌড় দেয়। এ সময় শিশির রাস্তায় পড়ে সামান্য আহত হয়। শিশিরকে আটক করলে তার কাছে ৫ পিস ইয়াবা ও মামুনের কাছে ৫১ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। শিশিরকে মারধর করা হয়নি।

আসামির শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্ন, জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ

 যুগান্তর প্রতিবেদন, বরগুনা 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনায় মাদক মামলায় অভিযুক্ত এক আসামির শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্নের পাশাপাশি হাত ভাঙার রহস্য উদঘাটনের জন্য জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বপ্রণোদিত হয়ে বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ মাহবুব আলম এ আদেশ দেন।

জানা গেছে,  মঙ্গলবার ভোরে বরগুনা পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত বিনয় চন্দ্র সরকারের ছেলে শিশির চন্দ্র সরকারকে (২৪) গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর শিশিরের কাছ থেকে পাঁচ পিস ইয়াবা উদ্ধারের অভিযোগে মামলা দায়ের করে ওই দিন সন্ধ্যায় আদালতে হাজির করে পুলিশ। পরে আদালত শিশিরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

শিশিরকে আদালতে হাজির করার আগে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে নিয়ে যায় পুলিশ। এ সময় শিশিরের শরীরজুড়ে অমানসিক নির্যাতনের চিহ্ন দেখতে পান তার স্বজনরা। নির্যাতনের ফলে শিশিরের ডান হাত ভেঙে গেছে বলেও অভিযোগ শিশিরের স্বজনদের।

বৃহস্পতিবার শিশিরের পক্ষে তার আইনজীবী আদালতে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন মঞ্জুর করে শিশিরের শরীরজুড়ে আঘাতের রহস্য উদঘাটনের জন্য জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ দেন। 

এ বিষয়ে শিশিরের আইনজীবী আবদুল ওয়াসিম মতিন বলেন, বৃহস্পতিবার শিশিরের জামিনের জন্য আমি বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করি। জামিন আবেদনের সঙ্গে শিশিরের শরীরজুড়ে অমানসিক নির্যাতনের চিহ্নের কিছু তথ্য-উপাত্ত আদালতে পেশ করি। এরপর আদালত শিশিরের জামিন মঞ্জুরের পাশাপাশি ওর শরীরজুড়ে নির্যাতনের চিহ্নের রহস্য উদঘাটনের জন্য জুডিশিয়াল তদন্তের নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে বরগুনা থানার এসআই মিহির কান্তি যুগান্তরকে বলেন, ২০ সেপ্টেম্বর বরগুনার ক্রোক এলাকায় রাতে মাদক অভিযানে গেলে শিশির পুলিশ দেখে দৌড় দেয়। এ সময় শিশির রাস্তায় পড়ে সামান্য আহত হয়। শিশিরকে আটক করলে তার কাছে ৫ পিস ইয়াবা ও মামুনের কাছে ৫১ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। শিশিরকে মারধর করা হয়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন