পর্যটকদের গাড়িতে ব্রাশফায়ার, ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা
jugantor
পর্যটকদের গাড়িতে ব্রাশফায়ার, ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  বান্দরবান প্রতিনিধি  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৩২:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

বান্দরবানে ভ্রমণকারীদের গাড়িতে ব্রাশফায়ার ঘটনায় জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কেএসমং মারমাসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলায় অজ্ঞাত আরও ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে।

রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলী থানার গাইদ্যা ইউনিয়নের বাসিন্দার য়চিংখই মারমা বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় বৃহস্পতিবার মামলাটি দায়ের করেন।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানায়, মামলায় পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কেএসমং মারমাকে (৬০) প্রধান আসামি করা হয়।

মামলায় অভিযুক্ত অন্য আসামীরা হলেন- রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলী থানার গর্জন ত্রিপুরা (৪০), চন্দ্রঘোনা থানার মংনুচিং মারমা (৫০), ক্যবামং মারমা (৫০), পুনুই থোয়াই মারমা (৫০), অমর জ্যাতি চাকমা অপু (৪০), বাদো মারমা (৩৫), বাসিংমং মারমা (৩০), মংচইকে মারমা (৫৫), জাইলিমং মারমা (৩০), মংসিং থোয়াই মারমা (৩৫), সুইলং মারমা (৩৫), ছুমং মারমা (৩৫), চথুই মারমা (৩৫), ক্যকা প্রু মারমা (৩৪), সিংনুংমং মারমা (৩৭), মংহাই মারমা (৩৪), ক্যউচিং (৩৮), ক্যসুইমং বাবুল (৫০), উচিংমং (৫০), গুনধন তঞ্চঙ্গ্যা (৫০), শক্তিলাল ত্রিপুরা (৪৫) এবং খোকন তঞ্চঙ্গ্যা (৫৭)। এছাড়া অজ্ঞাত আরও ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে মামলায়।

অভিযুক্ত আসামিরা বান্দরবান সদর, রাজবিলা, রোয়াংছড়ি এবং রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলীসহ বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

মামলার বাদী য়চিংখই মারমা বলেন, চলতি মাসের গত ১৮ সেপ্টেম্বর রুমা উপজেলা দর্শনীয় স্থানগুলো ভ্রমণ শেষে রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলীতে ফিরছিলেন। পথে বান্দরবান সদরের রাঙামাটি-বান্দরবান সড়কের কুহালং ইউনিয়নের গলাচিপায় এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা ভ্রমণকারীদের হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়িতে ব্রাশফায়ার করে। এতে গাড়িটি উল্টে খাদে পড়ে ৬ জন আহত হয়। এ ঘটনায় গাড়ির বিভিন্ন অংশ ভেঙ্গে প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ভ্রমণকারীদের গাড়িতে ব্রাশফায়ারের ঘটনায় ২৩ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে।

পর্যটকদের গাড়িতে ব্রাশফায়ার, ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

 বান্দরবান প্রতিনিধি 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বান্দরবানে ভ্রমণকারীদের গাড়িতে ব্রাশফায়ার ঘটনায় জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কেএসমং মারমাসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলায় অজ্ঞাত আরও ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে।

রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলী থানার গাইদ্যা ইউনিয়নের বাসিন্দার য়চিংখই মারমা বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় বৃহস্পতিবার মামলাটি দায়ের করেন।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানায়, মামলায় পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কেএসমং মারমাকে (৬০) প্রধান আসামি করা হয়।

মামলায় অভিযুক্ত অন্য আসামীরা হলেন- রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলী থানার গর্জন ত্রিপুরা (৪০),  চন্দ্রঘোনা থানার  মংনুচিং মারমা (৫০), ক্যবামং মারমা (৫০), পুনুই থোয়াই মারমা (৫০), অমর জ্যাতি চাকমা অপু (৪০), বাদো মারমা (৩৫), বাসিংমং মারমা (৩০), মংচইকে মারমা (৫৫), জাইলিমং মারমা (৩০), মংসিং থোয়াই মারমা (৩৫), সুইলং মারমা (৩৫), ছুমং মারমা (৩৫), চথুই মারমা (৩৫), ক্যকা প্রু মারমা (৩৪), সিংনুংমং মারমা (৩৭), মংহাই মারমা (৩৪), ক্যউচিং (৩৮), ক্যসুইমং বাবুল (৫০), উচিংমং (৫০), গুনধন তঞ্চঙ্গ্যা (৫০), শক্তিলাল ত্রিপুরা (৪৫) এবং খোকন তঞ্চঙ্গ্যা (৫৭)। এছাড়া অজ্ঞাত আরও ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে মামলায়।

অভিযুক্ত আসামিরা বান্দরবান সদর, রাজবিলা, রোয়াংছড়ি এবং রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলীসহ বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

মামলার বাদী য়চিংখই মারমা বলেন, চলতি মাসের গত ১৮ সেপ্টেম্বর রুমা উপজেলা দর্শনীয় স্থানগুলো ভ্রমণ শেষে রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলীতে ফিরছিলেন। পথে বান্দরবান সদরের রাঙামাটি-বান্দরবান সড়কের  কুহালং ইউনিয়নের গলাচিপায় এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা ভ্রমণকারীদের হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়িতে ব্রাশফায়ার করে। এতে গাড়িটি উল্টে খাদে পড়ে ৬ জন আহত হয়। এ ঘটনায় গাড়ির বিভিন্ন অংশ ভেঙ্গে প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ভ্রমণকারীদের গাড়িতে ব্রাশফায়ারের ঘটনায় ২৩ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন