ডেঙ্গিতে মারা গেলেন শিল্পপতি সঞ্জু খান
jugantor
ডেঙ্গিতে মারা গেলেন শিল্পপতি সঞ্জু খান

  পাবনা ও ঈশ্বরদী প্রতিনিধি   

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৪৭:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

সঞ্জু খান

পাবনার বিশিষ্ট শিল্পপতি, রাজনীতিক, লেখক এবং ঈশ্বরদীর পর্যটনকেন্দ্র পাকশী রিসোর্টের মালিক আকরাম আলী খান সঞ্জু ওরফে সঞ্জু খান (৫৭) ডেঙ্গিআক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ও ইন্না ইলাইহি রজিউন)।

মঙ্গলবার ঢাকার বনানীর নিজ বাড়িতে তিনি ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হন। এদিন তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং আইসিইউতে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। রাত পৌনে ১২টায় চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শনিবার বাদ জোহর ঢাকার বনানী পুরাতন ডিওএইচএসও মাঠে তার প্রথম জানাজা হয়। রোববার পাবনার পাকশী নিজ বাড়িতে তার দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরাস্থানে দাফন করা হবে।

সঞ্জু খান স্ত্রী ২ ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার বড় ছেলে কানাডা প্রবাসী রাহবার ওয়াহেদ খান সেহরান সম্প্রতি বাংলাদেশের জাতীয় দলে মনোনীত হয়ে আন্তজার্তিক ম্যাচে খেলছেন, ছোট ছেলে রাফসানি ওয়াহেদ খান, কবি লেখক ও সৃজনশীল মানুষ।

এলাকায় দানবীর হিসেবে পরিচিতি পাওয়া সঞ্জু খান সব দল এবং শ্রেণী পেশার মানুষের কাছে অত্যন্ত প্রিয় ছিলেন। তিনি পাকশীর মত একটি জনপদে গড়ে তুলেছেন পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র পাকশী রিসোর্ট। গাজীপুরে তার শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মানবদরদী সঞ্জু খানের অকাল মৃত্যুতে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

ডেঙ্গিতে মারা গেলেন শিল্পপতি সঞ্জু খান

 পাবনা ও ঈশ্বরদী প্রতিনিধি  
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সঞ্জু খান
বিশিষ্ট শিল্পপতি, রাজনীতিক, লেখক ও পাকশী রিসোর্টের মালিক আকরাম আলী খান সঞ্জু । ছবি: যুগান্তর

পাবনার বিশিষ্ট শিল্পপতি, রাজনীতিক, লেখক এবং ঈশ্বরদীর পর্যটনকেন্দ্র পাকশী রিসোর্টের মালিক আকরাম আলী খান সঞ্জু ওরফে সঞ্জু খান (৫৭) ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ও ইন্না ইলাইহি রজিউন)।

মঙ্গলবার ঢাকার বনানীর নিজ বাড়িতে তিনি ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হন। এদিন তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং আইসিইউতে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে শুক্রবার তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। রাত পৌনে ১২টায় চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শনিবার বাদ জোহর ঢাকার বনানী পুরাতন ডিওএইচএসও মাঠে তার প্রথম জানাজা হয়। রোববার পাবনার পাকশী নিজ বাড়িতে তার দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরাস্থানে দাফন করা হবে।

সঞ্জু খান স্ত্রী ২ ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার বড় ছেলে কানাডা প্রবাসী রাহবার ওয়াহেদ খান সেহরান সম্প্রতি বাংলাদেশের জাতীয় দলে মনোনীত হয়ে আন্তজার্তিক ম্যাচে খেলছেন, ছোট ছেলে রাফসানি ওয়াহেদ খান, কবি লেখক ও সৃজনশীল মানুষ। 

এলাকায় দানবীর হিসেবে পরিচিতি পাওয়া সঞ্জু খান সব দল এবং শ্রেণী পেশার মানুষের কাছে অত্যন্ত প্রিয় ছিলেন। তিনি পাকশীর মত একটি জনপদে গড়ে তুলেছেন পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র পাকশী রিসোর্ট। গাজীপুরে তার শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মানবদরদী সঞ্জু খানের অকাল মৃত্যুতে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করা হয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন