সন্তান কেড়ে নেওয়ায় গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামী-প্রেমিকার বিরুদ্ধে মামলা
jugantor
সন্তান কেড়ে নেওয়ায় গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামী-প্রেমিকার বিরুদ্ধে মামলা

  মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:১৯:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে সন্তান কেড়ে নেওয়ায় আত্মহত্যা করেন হালিমা আক্তার। এ ঘটনায় স্বামী টিপু মিয়া ও তার প্রেমিকা সোনিয়া আক্তারের বিরুদ্ধে প্ররোচনার একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার নিহতের মা কল্পনা আক্তার বাদী হয়ে মদন থানায় এ মামলাটি দায়ের করেছেন।

আত্মহত্যাকারী হালিমা আক্তার উপজেলার জঙ্গলটেঙ্গা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে ও চানগাঁও শাহাপুর গ্রামের টিপু মিয়ার স্ত্রী।

গত শুক্রবার দুই বছরের শিশু সন্তান তামীমকে মা হালিমা আক্তারের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়ায় স্বামী টিপু মিয়ার ওপর অভিমান করে আত্মহত্যা করেন। এরই প্রেক্ষিতে মা এ মামলাটি দায়ের করেন। আত্মহত্যার পর থেকেই স্বামী টিপু মিয়া প্রেমিকা সোনিয়া আক্তারকে নিয়ে পালিয়ে গেছে।

মামলার বাদী কল্পনা আক্তার বলেন, আমার মেয়েকে রেখে গোপনে টিপু মিয়া সোনিয়া আক্তার নামের একটি মেয়ের সঙ্গে পরকীয়া করে। এমন কি তার একটি সন্তানও আছে। আমার মেয়ে বিষয়টি জানার পর থেকেই তাদের মধ্য কলহের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে আমার মেয়েকে মারপিট করে আমাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, আমরা স্বামী স্ত্রী ঢাকায় বসবাস করি। আমার নাতি তামীমকে টিপু মিয়া শুক্রবার জোরপূর্বক আমার মেয়ের নিকট থেকে কেড়ে নেয় এবং আত্মহত্যা করার জন্য বলে। তার জন্যই আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাসুদ জামালী জানান, আত্মহত্যার প্ররোচনা করায় স্বামী টিপু মিয়া ও প্রেমিকা সোনিয়া আক্তারের বিরুদ্ধে নিহতের মা কল্পনা আক্তার সোমবার একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সন্তান কেড়ে নেওয়ায় গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামী-প্রেমিকার বিরুদ্ধে মামলা

 মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে সন্তান কেড়ে নেওয়ায় আত্মহত্যা করেন হালিমা আক্তার। এ ঘটনায় স্বামী টিপু মিয়া ও তার প্রেমিকা সোনিয়া আক্তারের বিরুদ্ধে প্ররোচনার একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার নিহতের মা কল্পনা আক্তার বাদী হয়ে মদন থানায় এ মামলাটি  দায়ের করেছেন।

আত্মহত্যাকারী  হালিমা আক্তার উপজেলার জঙ্গলটেঙ্গা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে ও চানগাঁও শাহাপুর গ্রামের টিপু মিয়ার স্ত্রী। 

গত শুক্রবার দুই বছরের শিশু সন্তান তামীমকে মা হালিমা আক্তারের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়ায় স্বামী টিপু মিয়ার ওপর অভিমান করে আত্মহত্যা করেন। এরই প্রেক্ষিতে মা এ মামলাটি দায়ের করেন। আত্মহত্যার পর থেকেই স্বামী টিপু মিয়া প্রেমিকা সোনিয়া আক্তারকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। 

মামলার বাদী কল্পনা আক্তার বলেন, আমার মেয়েকে রেখে গোপনে টিপু মিয়া সোনিয়া আক্তার নামের একটি মেয়ের সঙ্গে পরকীয়া করে। এমন কি তার একটি সন্তানও আছে। আমার মেয়ে বিষয়টি জানার পর থেকেই তাদের মধ্য কলহের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে আমার মেয়েকে মারপিট করে আমাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, আমরা স্বামী স্ত্রী ঢাকায় বসবাস করি। আমার নাতি তামীমকে টিপু মিয়া শুক্রবার জোরপূর্বক আমার মেয়ের নিকট থেকে কেড়ে নেয় এবং আত্মহত্যা করার জন্য বলে। তার জন্যই আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাসুদ জামালী জানান, আত্মহত্যার প্ররোচনা করায় স্বামী টিপু মিয়া ও প্রেমিকা সোনিয়া আক্তারের বিরুদ্ধে নিহতের মা কল্পনা আক্তার সোমবার একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন