সীমান্তে পাচারের সময় ১৫ ময়ূর উদ্ধার
jugantor
সীমান্তে পাচারের সময় ১৫ ময়ূর উদ্ধার

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৫৩:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়ূর উদ্ধার

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা থেকে ১৫ ময়ূর উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় দুই পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকালে উপজেলার বৈকারী সীমান্তের জামতলা এলাকা থেকে ওই ময়ূরসহ দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে আদালতের নির্দেশে ময়ূরগুলো বন বিভাগের কাছে হন্তান্তর করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন জানান, গোপন খবর পেয়ে সীমান্তের জামতলা এলাকার একটি আম বাগান থেকে দুজনকে আটক করা হয়। এর পর তাদের মাইক্রোবাসটির ভেতরের সিটের নিচ থেকে ১৫টি ময়ূর উদ্ধার করা হয়। পরে আদালতের নির্দেশে ময়ূরগুলোকে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় মামলা করে অভিযুক্ত দুজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

খুলনা বন অধিদপ্তরের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কর্মকর্তা মফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, বিকালে উপজেলার বৈকারী সীমান্তের জামতলা এলাকা থেকে ১৫টি ময়ূর উদ্ধার করা হয়। এ সময় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশ পেলে উদ্ধার করা ময়ূরগুলো সাফারি পার্কে রাখা হবে।

বাংলাদেশ বন অধিদপ্তরের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের অনুমতি ছাড়া ময়ূর সংরক্ষণ ও বেচাকেনার কোনো সুযোগ নেই বলে জানান তিনি।

সীমান্তে পাচারের সময় ১৫ ময়ূর উদ্ধার

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ময়ূর উদ্ধার
ছবি: সংগৃহীত

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা থেকে ১৫ ময়ূর উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় দুই পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকালে উপজেলার বৈকারী সীমান্তের জামতলা এলাকা থেকে ওই ময়ূরসহ দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে আদালতের নির্দেশে ময়ূরগুলো বন বিভাগের কাছে হন্তান্তর করা হয়েছে। 

সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন জানান, গোপন খবর পেয়ে সীমান্তের জামতলা এলাকার একটি আম বাগান থেকে দুজনকে আটক করা হয়। এর পর তাদের মাইক্রোবাসটির ভেতরের সিটের নিচ থেকে ১৫টি ময়ূর উদ্ধার করা হয়। পরে আদালতের নির্দেশে ময়ূরগুলোকে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় মামলা করে অভিযুক্ত দুজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

খুলনা বন অধিদপ্তরের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কর্মকর্তা মফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, বিকালে উপজেলার বৈকারী সীমান্তের জামতলা এলাকা থেকে ১৫টি ময়ূর উদ্ধার করা হয়। এ সময় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশ পেলে উদ্ধার করা ময়ূরগুলো সাফারি পার্কে রাখা হবে।

বাংলাদেশ বন অধিদপ্তরের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের অনুমতি ছাড়া ময়ূর সংরক্ষণ ও বেচাকেনার কোনো সুযোগ নেই বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন