কবরস্থানে পড়ে থাকা সেই লাশের পরিচয় মিলেছে
jugantor
কবরস্থানে পড়ে থাকা সেই লাশের পরিচয় মিলেছে

  হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:০৭:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রামের হাটহাজারী পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কবরস্থান থেকে উদ্ধারকৃত অজ্ঞাতনামা মরদেহটির পরিচয় মিলেছে। নিহত ওই ব্যক্তির নাম আবদুস সবুর (৭০)।

বুধবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী মডেল থানার উপপরিদর্শক আমিরুল মুজাহিদ।

নিহত আবদুস সবুর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের ভবানিপুর মদুরঘোনা এলাকার আবদুল মজিদ সারাং বাড়ির মৃত আবদুর রাজ্জাকের ছেলে। তিনি বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে উপপরিদর্শক আমিরুল মুজাহিদ জানান, গত মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় পৌরসভার পশ্চিম সুজানগর এলাকার দরগা টিলা প্রকাশ পুরনো কবরস্থান থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত শুক্রবার সকালে তিনি ঘর থেকে বের হওয়ার পর আর ঘরে ফিরেনি। ওই দিন তার মেয়ের বাড়ির অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা থাকলেও যাননি। অনুষ্ঠানে গিয়ে তাকে না পেয়ে তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে অনেক খোঁজাখুঁজি করেছে।

এদিকে নিহত আবদুস সবুরের ছেলে অটোরিকশাচালক সাইফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, পার্শ্ববর্তী জামাল নামে এক প্রতিবেশীর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। আমার বাবা নিখোঁজ হওয়ার থেকে প্রতিপক্ষের আচরণ এবং চলাফেরায় সন্দেহ হচ্ছে। তারাই এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে।

হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব শর্মা বলেন, নিহতের ছেলে সাইফুল এসে লাশটি শনাক্ত করেছে। এ ছাড়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদনে যদি এটি হত্যাকাণ্ড বলে প্রমাণিত হয় তা হলে তদন্তপূর্বক ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কবরস্থানে পড়ে থাকা সেই লাশের পরিচয় মিলেছে

 হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লাশ উদ্ধার
ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের হাটহাজারী পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কবরস্থান থেকে উদ্ধারকৃত অজ্ঞাতনামা মরদেহটির পরিচয় মিলেছে। নিহত ওই ব্যক্তির নাম আবদুস সবুর (৭০)। 

বুধবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী মডেল থানার উপপরিদর্শক আমিরুল মুজাহিদ।

নিহত আবদুস সবুর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের ভবানিপুর মদুরঘোনা এলাকার আবদুল মজিদ সারাং বাড়ির মৃত আবদুর রাজ্জাকের ছেলে। তিনি বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে উপপরিদর্শক আমিরুল মুজাহিদ জানান, গত মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় পৌরসভার পশ্চিম সুজানগর এলাকার দরগা টিলা প্রকাশ পুরনো কবরস্থান থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। 

এর আগে গত শুক্রবার সকালে তিনি ঘর থেকে বের হওয়ার পর আর ঘরে ফিরেনি। ওই দিন তার মেয়ের বাড়ির অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা থাকলেও যাননি। অনুষ্ঠানে গিয়ে তাকে না পেয়ে তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে অনেক খোঁজাখুঁজি করেছে। 

এদিকে নিহত আবদুস সবুরের ছেলে অটোরিকশাচালক সাইফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, পার্শ্ববর্তী জামাল নামে এক প্রতিবেশীর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। আমার বাবা নিখোঁজ হওয়ার থেকে প্রতিপক্ষের আচরণ এবং চলাফেরায় সন্দেহ হচ্ছে। তারাই এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে।

হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব শর্মা বলেন, নিহতের ছেলে সাইফুল এসে লাশটি শনাক্ত করেছে। এ ছাড়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদনে যদি এটি হত্যাকাণ্ড বলে প্রমাণিত হয় তা হলে তদন্তপূর্বক ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন