নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় রূপ পাচ্ছে দুর্গা প্রতিমা (ভিডিও)
jugantor
নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় রূপ পাচ্ছে দুর্গা প্রতিমা (ভিডিও)

  তারিম আহমেদ ইমন, অভয়নগর (যশোর)  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৩৪:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সাদা মেঘের ভেলা আর হাওয়ায় দোল খাওয়া কাশফুল মনে করিয়ে দেয় শরৎ এসে গেছে। আর শরৎ মানেই শারদীয় উৎসব। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। কয়েক দিন পরেই দুর্গাপূজা। হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে সাজ সাজ রব। মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে প্রতিমা গড়ার কাজ।

পূজায় দেবীর প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত এখন মৃৎশিল্পীরা। দিন রাত পরিশ্রম করে তাদের নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় তৈরি করছেন একেকটি অসাধারণ সুন্দর প্রতিমা। যশোরের অভয়নগর উপজেলার বিভিন্ন মন্দির প্রাঙ্গণে তৈরি হচ্ছে দুর্গা দেবীর মূর্তি।

অভয়নগর উপজেলায় এ বছর ১২৪টি পূজামণ্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। পূজামণ্ডপগুলোতে চলছে শেষপর্যায়ের কর্মকাণ্ড। ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দুর্গাপূজা উদযাপনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

অভয়নগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিষ্ণুপদ দত্ত জানান, যথাযোগ্য মর্যাদায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে এ বছর উপজেলায় ১২৪টি পূজামণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলার নওয়াপাড়া প্রফেসরপাড়া সার্বজনীন পূজামণ্ডপে সরেজমিন দেখা যায়, প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা।

প্রতিমা তৈরির কাজে নিয়োজিত শিল্পী জয় প্রকাশ রায় জানান, আগামী ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে দুর্গাপূজা। পূজাকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন তারা অবিরাম গতিতে।

পঞ্জিকা মতে, ২০২১ সালের শারদোৎসব শুরু হবে ১১ অক্টোবর। তার আগে ৬ অক্টোবর মহালয়ায় শুরু হবে দেবীপক্ষ। ১১ অক্টোবর ষষ্ঠীতে দুর্গাপূজা শুরু হবে। চলবে ১৫ অক্টোবর দশমী পর্যন্ত। এর মধ্যে ১২ অক্টোবর সপ্তমী, ১৩ অক্টোবর অষ্টমী ও ১৪ অক্টোবর নবমী।

এদিকে মা দুর্গার গমনাগমনে ইঙ্গিত দেয় আগামী দিনগুলো কেমন যাবে। এ পৃথিবী শস্যশ্যামলা থাকবে নাকি জরা সমস্যা এগুলো লেগেই থাকবে। পঞ্জিকা অনুযায়ী, দেবী দুর্গা এবার আসছেন ঘোটকে অর্থাৎ ঘোড়ায়। আর ঘোটকে আগমন মানেই ছত্রভঙ্গের কথাই বলা হয়। অর্থাৎ এ সময়ে যুদ্ধ, অশান্তি, হানাহানির সম্ভাবনা থাকে। মা দুর্গার এবার দোলায় গমন। দোলায় গমনের ফলাফল হলো মড়ক লাগা।

নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় রূপ পাচ্ছে দুর্গা প্রতিমা (ভিডিও)

 তারিম আহমেদ ইমন, অভয়নগর (যশোর) 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাদা মেঘের ভেলা আর হাওয়ায় দোল খাওয়া কাশফুল মনে করিয়ে দেয় শরৎ এসে গেছে। আর শরৎ মানেই শারদীয় উৎসব। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। কয়েক দিন পরেই দুর্গাপূজা। হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে সাজ সাজ রব। মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে প্রতিমা গড়ার কাজ।

পূজায় দেবীর প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত এখন মৃৎশিল্পীরা। দিন রাত পরিশ্রম করে তাদের নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় তৈরি করছেন একেকটি অসাধারণ সুন্দর প্রতিমা। যশোরের অভয়নগর উপজেলার বিভিন্ন মন্দির প্রাঙ্গণে তৈরি হচ্ছে দুর্গা দেবীর মূর্তি।

অভয়নগর উপজেলায় এ বছর ১২৪টি পূজামণ্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। পূজামণ্ডপগুলোতে চলছে শেষপর্যায়ের কর্মকাণ্ড। ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দুর্গাপূজা উদযাপনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

অভয়নগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিষ্ণুপদ দত্ত জানান, যথাযোগ্য মর্যাদায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে এ বছর উপজেলায় ১২৪টি পূজামণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলার নওয়াপাড়া প্রফেসরপাড়া সার্বজনীন পূজামণ্ডপে সরেজমিন দেখা যায়, প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা।

প্রতিমা তৈরির কাজে নিয়োজিত শিল্পী জয় প্রকাশ রায় জানান, আগামী ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে দুর্গাপূজা। পূজাকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন তারা অবিরাম গতিতে।

পঞ্জিকা মতে, ২০২১ সালের শারদোৎসব শুরু হবে ১১ অক্টোবর। তার আগে ৬ অক্টোবর মহালয়ায় শুরু হবে দেবীপক্ষ। ১১ অক্টোবর ষষ্ঠীতে দুর্গাপূজা শুরু হবে। চলবে ১৫ অক্টোবর দশমী পর্যন্ত। এর মধ্যে ১২ অক্টোবর সপ্তমী, ১৩ অক্টোবর অষ্টমী ও ১৪ অক্টোবর নবমী।

এদিকে মা দুর্গার গমনাগমনে ইঙ্গিত দেয় আগামী দিনগুলো কেমন যাবে। এ পৃথিবী শস্যশ্যামলা থাকবে নাকি জরা সমস্যা এগুলো লেগেই থাকবে। পঞ্জিকা অনুযায়ী, দেবী দুর্গা এবার আসছেন ঘোটকে অর্থাৎ ঘোড়ায়। আর ঘোটকে আগমন মানেই ছত্রভঙ্গের কথাই বলা হয়। অর্থাৎ এ সময়ে যুদ্ধ, অশান্তি, হানাহানির সম্ভাবনা থাকে। মা দুর্গার এবার দোলায় গমন। দোলায় গমনের ফলাফল হলো মড়ক লাগা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন