পীরগঞ্জে খাসজমি দখলের অভিযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা
jugantor
পীরগঞ্জে খাসজমি দখলের অভিযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

  পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি  

০১ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০৭:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

হাটের খাসজমি দখলের অভিযোগে রংপুরের পীরগঞ্জের কুমেদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোশফাক হোসেন খান চৌধুরী ফুয়াদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

গত বুধবার স্থানীয় ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন বাদী হয়ে চেয়ারম্যানসহ ১১ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন।

মামলাসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুমেদপুর ইউনিয়নের রসুলপুরহাটের মধ্যে তিন শতক খাসজমিতে মরারপাড়ার আফজাল হোসেন প্রায় ৫০ বছর আগে ছয়টি দোকান নির্মাণ করে ব্যবসা করে আসছেন।

জমিটি দখলে নিতে কুমেদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোশফাক হোসেন খান চৌধুরী ফুয়াদ গত সোমবার তার বাহিনী দিয়ে দোকানগুলো ভেঙে দিয়ে নিজের নামে সাইনবোর্ড টানান।

ওই ঘটনায় বুধবার ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন চেয়ারম্যানসহ ১১ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন।

মামলার কথা শুনেই বৃহস্পতিবার তড়িঘড়ি করে খাসজমিতে বহুতল ভবন নির্মাণের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর খনন করেন চেয়ারম্যান।

চেয়ারম্যানের নির্মাণকাজ বন্ধ করার জন্য আফজাল হোসেন ইউএনও এবং এসিল্যান্ডের কাছে অভিযোগ করেছেন।

আফজাল হোসেন বলেন, ওই চেয়ারম্যান তার বাহিনী দিয়ে আমার ছয়টি দোকান উচ্ছেদ করে নির্মাণকাজ শুরু করেছেন। আমি মামলা এবং অভিযোগ করেছি। কিন্তু চেয়ারম্যান সরকারি দলের প্রভাব খাটিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান ফুয়াদ চৌধুরী যুগান্তরকে বলেন, জমিটি একসময় আমাদের ছিল। তাই জমিটিতে নির্মাণকাজ শুরু করছি।

ইউএনও বিরোদা রানী রায় বলেন, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হাটের জমি দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করার অভিযোগ পেয়েছি। শিগগিরই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পীরগঞ্জে খাসজমি দখলের অভিযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

 পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি 
০১ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হাটের খাসজমি দখলের অভিযোগে রংপুরের পীরগঞ্জের কুমেদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোশফাক হোসেন খান চৌধুরী ফুয়াদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। 

গত বুধবার স্থানীয় ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন বাদী হয়ে চেয়ারম্যানসহ ১১ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন। 

মামলাসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুমেদপুর ইউনিয়নের রসুলপুরহাটের মধ্যে তিন শতক খাসজমিতে মরারপাড়ার আফজাল হোসেন প্রায় ৫০ বছর আগে ছয়টি দোকান নির্মাণ করে ব্যবসা করে আসছেন। 

জমিটি দখলে নিতে কুমেদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোশফাক হোসেন খান চৌধুরী ফুয়াদ গত সোমবার তার বাহিনী দিয়ে দোকানগুলো ভেঙে দিয়ে নিজের নামে সাইনবোর্ড টানান। 

ওই ঘটনায় বুধবার ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন চেয়ারম্যানসহ ১১ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন। 

মামলার কথা শুনেই বৃহস্পতিবার তড়িঘড়ি করে খাসজমিতে বহুতল ভবন নির্মাণের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর খনন করেন চেয়ারম্যান।

চেয়ারম্যানের নির্মাণকাজ বন্ধ করার জন্য আফজাল হোসেন ইউএনও এবং এসিল্যান্ডের কাছে অভিযোগ করেছেন। 

আফজাল হোসেন বলেন, ওই চেয়ারম্যান তার বাহিনী দিয়ে আমার ছয়টি দোকান উচ্ছেদ করে নির্মাণকাজ শুরু করেছেন। আমি মামলা এবং অভিযোগ করেছি। কিন্তু চেয়ারম্যান সরকারি দলের প্রভাব খাটিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন। 

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান ফুয়াদ চৌধুরী যুগান্তরকে বলেন, জমিটি একসময় আমাদের ছিল। তাই জমিটিতে নির্মাণকাজ শুরু করছি।

ইউএনও বিরোদা রানী রায় বলেন, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হাটের জমি দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করার অভিযোগ পেয়েছি। শিগগিরই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন