নবাবগঞ্জে বিএনপির ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন
jugantor
নবাবগঞ্জে বিএনপির ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন

  যুগান্তর প্রতিবেদন, নবাবগঞ্জ  

০৬ অক্টোবর ২০২১, ০০:২৩:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় বিএনপির তৃণমূল সংগঠনকে শক্তিশালী করতে ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

দলীয় সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন পর কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে উপজেলার বাহ্রা, শিকারীপাড়া, জয়কৃষ্ণপুরে আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। অপরদিকে ত্যাগীদের মূল্যায়ন না করায় তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

ইতোমধ্যে উপজেলার বাহ্রা ইউনিয়নে ডা. আব্দুস সালাম আহবায়ক, সদস্য সচিব মো. মাছুদ, শিকারীপাড়া ইউনিয়নে আহবায়ক রইস উদ্দিন খোকন, সদস্য সচিব মো. সাওকাত, জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়নে আহবায়ক মো. কুদ্দুস ও সদস্য সচিব মো. উজ্জ্বলের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

অপরদিকে কৈলাইল ইউনিয়নের আহবায়ক অ্যাডভোকেট খায়ের ও সদস্য সচিব হিসেবে সাবেক ছাত্রদল নেতা এসএম সেলিমের নাম শোনা যাচ্ছে। নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম খন্দকার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য খন্দকার আবু আশফাক, নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আজাদুল ইসলাম পান্নু, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম খন্দকারসহ ঢাকা জেলা ও নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির নেতাদের উপস্থিতিতে উপরোক্ত ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন হয় বলে উপজেলা বিএনপি নিশ্চিত করেছে।

অপরদিকে সদ্যঘোষিত ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি নিয়ে তৃণমূলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। এ বিষয়ে বাহ্রা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. সাদেক বলেন, বাহ্রা ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে শুনেছি। কিন্তু আমাকে জানানো হয়নি। দলের মধ্যে পরিবারতন্ত্র, স্বজনপ্রীতি ও নিজস্ব বলয় তৈরি করতে, নিজের লোকদের কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে। দলের এই দুর্দিনে ভেদাভেদ ভুলে সবাই একসঙ্গে কাজ না করলে সংগঠন শক্তিশালী হবে না বলে জানান তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শোল্লা, কৈলাইল ও আগলা, বাহ্রা ও গালিমপুর ইউনিয়নের একাধিক বিএনপি নেতাকর্মী যুগান্তরকে বলেন, ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠনে ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা হয়নি। ঢাকায় থাকেন এমন নেতা নয়, ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটিতে স্থানীয় নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে।

নবাবগঞ্জে বিএনপির ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন

 যুগান্তর প্রতিবেদন, নবাবগঞ্জ 
০৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় বিএনপির তৃণমূল সংগঠনকে শক্তিশালী করতে  ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

দলীয় সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন পর কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে উপজেলার বাহ্রা, শিকারীপাড়া, জয়কৃষ্ণপুরে আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। অপরদিকে ত্যাগীদের মূল্যায়ন না করায় তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। 

ইতোমধ্যে উপজেলার বাহ্রা ইউনিয়নে ডা. আব্দুস সালাম আহবায়ক, সদস্য সচিব মো. মাছুদ, শিকারীপাড়া ইউনিয়নে আহবায়ক রইস উদ্দিন খোকন, সদস্য সচিব মো. সাওকাত, জয়কৃষ্ণপুর ইউনিয়নে  আহবায়ক মো. কুদ্দুস ও সদস্য  সচিব মো. উজ্জ্বলের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

অপরদিকে কৈলাইল ইউনিয়নের আহবায়ক অ্যাডভোকেট খায়ের ও  সদস্য সচিব হিসেবে সাবেক ছাত্রদল নেতা এসএম সেলিমের  নাম শোনা যাচ্ছে। নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক  আবুল কালাম খন্দকার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য খন্দকার আবু আশফাক, নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আজাদুল ইসলাম পান্নু, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম খন্দকারসহ ঢাকা জেলা ও নবাবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির নেতাদের উপস্থিতিতে উপরোক্ত ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠন হয় বলে উপজেলা বিএনপি নিশ্চিত করেছে।

অপরদিকে সদ্যঘোষিত ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি নিয়ে তৃণমূলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। এ বিষয়ে বাহ্রা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. সাদেক বলেন, বাহ্রা ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে শুনেছি। কিন্তু আমাকে জানানো হয়নি। দলের মধ্যে পরিবারতন্ত্র, স্বজনপ্রীতি ও নিজস্ব বলয় তৈরি করতে, নিজের লোকদের কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে। দলের এই দুর্দিনে ভেদাভেদ ভুলে সবাই একসঙ্গে কাজ না করলে সংগঠন শক্তিশালী হবে না বলে জানান তিনি। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শোল্লা, কৈলাইল ও আগলা, বাহ্রা ও গালিমপুর ইউনিয়নের একাধিক বিএনপি নেতাকর্মী যুগান্তরকে  বলেন, ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটি গঠনে ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা হয়নি। ঢাকায় থাকেন এমন নেতা নয়, ইউনিয়ন আহবায়ক কমিটিতে স্থানীয় নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন