হবিগঞ্জে বড়ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোটভাই নিহত
jugantor
হবিগঞ্জে বড়ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোটভাই নিহত

  চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৫:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

খুন

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় বড়ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোটভাই খুন হয়েছেন।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার লালচান্দ চা বাগান থেকে ছোটভাইয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বুধবার সকালে তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত ছোটভাইয়ের নাম নিক্ষন বাউরী আশিস (২৫)। তিনি ওই এলাকার ১৩ নম্বর বস্তির পয়তু বাউরীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আশিস বাউরী, শিবু বাউরী ও নানকা বাউরী তিন ভাই। তারা আলাদা বাড়িতে বসবাস করেন। মঙ্গলবার বিকালে নিক্ষন বাউরীকে বাড়িতে না পেয়ে তার ভাই শিবু বাউরী খুঁজতে বের হন।

সন্ধ্যায় তার আরেক ভাই নানকা বাউরীর ঘরে এসে নিক্ষনের লাশ দেখতে পেয়ে বিষয়টি স্থানীয় মেম্বারকে জানান। মেম্বার বিষয়টি জানান চুনারুঘাট থানা পুলিশকে।

নিহতর পারিবারিক সূত্র জানায়, বড়ভাই নানকা বাউরী শ্যালিকাকে বিয়ে করেন ছোটভাই আশিস। তার ২০ মাসের একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে।

নিহতর মেঝ ভাই শিবু বাউরী জানান, তার ভাই ও তার স্ত্রী স্বপ্নার মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে মনোমালিন্য ছিল। স্বপ্না দীর্ঘদিন ধরে পিত্রালয়ে আছেন।

অপর একটি সূত্র জানায়, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে নিক্ষন বাউরী তার স্ত্রী স্বপ্নাকে তালাক দিয়ে দেন। এ নিয়ে বড়ভাই ও শশুরবাড়ির লোকজনের মধ্যে সালিশ বিচারও হয়।

ধারণা করা হচ্ছে, তার স্ত্রীর বিষয় নিয়ে বাকবিতণ্ডার পর এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এদিকে ঘটনার পর তার বড় ভাই নানকা বাউরীসহ তার স্ত্রী পলাতক রয়েছেন।

চুনারুঘাট থানার ওসি আলী আশরাফ জানান, আমরা লাশ উদ্ধার করেছি, সকালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন ও জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

হবিগঞ্জে বড়ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোটভাই নিহত

 চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
খুন
ফাইল ছবি

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় বড়ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোটভাই খুন হয়েছেন।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার লালচান্দ চা বাগান থেকে ছোটভাইয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বুধবার সকালে তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত ছোটভাইয়ের নাম নিক্ষন বাউরী আশিস (২৫)। তিনি ওই এলাকার ১৩ নম্বর বস্তির পয়তু বাউরীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আশিস বাউরী, শিবু বাউরী ও নানকা বাউরী তিন ভাই। তারা আলাদা বাড়িতে বসবাস করেন। মঙ্গলবার বিকালে নিক্ষন বাউরীকে বাড়িতে না পেয়ে তার ভাই শিবু বাউরী খুঁজতে বের হন।

সন্ধ্যায় তার আরেক ভাই নানকা বাউরীর ঘরে এসে নিক্ষনের লাশ দেখতে পেয়ে বিষয়টি স্থানীয় মেম্বারকে জানান। মেম্বার বিষয়টি জানান চুনারুঘাট থানা পুলিশকে। 

নিহতর পারিবারিক সূত্র জানায়, বড়ভাই নানকা বাউরী শ্যালিকাকে বিয়ে করেন ছোটভাই আশিস। তার ২০ মাসের একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে। 

নিহতর মেঝ ভাই শিবু বাউরী জানান, তার ভাই ও তার স্ত্রী স্বপ্নার মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে মনোমালিন্য ছিল। স্বপ্না দীর্ঘদিন ধরে পিত্রালয়ে আছেন। 

অপর একটি সূত্র জানায়, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে নিক্ষন বাউরী তার স্ত্রী স্বপ্নাকে তালাক দিয়ে দেন। এ নিয়ে বড়ভাই ও শশুরবাড়ির লোকজনের মধ্যে সালিশ বিচারও হয়। 

ধারণা করা হচ্ছে, তার স্ত্রীর বিষয় নিয়ে বাকবিতণ্ডার পর এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। 

এদিকে ঘটনার পর তার বড় ভাই নানকা বাউরীসহ তার স্ত্রী পলাতক রয়েছেন। 

চুনারুঘাট থানার ওসি আলী আশরাফ জানান, আমরা লাশ উদ্ধার করেছি, সকালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন ও জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন