ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া ৪৭ রোহিঙ্গা আটক
jugantor
ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া ৪৭ রোহিঙ্গা আটক

  হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

০৬ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০০:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

রোহিঙ্গা

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়া উপজেলার ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া ৪৭ রোহিঙ্গা নাগরিককে স্বর্ণদ্বীপ থেকে আটক করেছে কোস্টগার্ড।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে তাদের ভাসানচর থানায় আনা হয়।

আটকদের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করে ট্রিপলআরসি কার্যালয়ে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আটক রোহিঙ্গাদের মধ্যে ১০ পুরুষ, ১২ নারী ও ২৫ শিশু রয়েছে। তারা হলো— আব্দুল হামিদ (৩২), মহছেনা (২৮), জান্নাত আরা (১১), ইসমত আরা (০৬), সাদিয়া আক্তার (৪) ,শওকত আরা (৯ মাস), সোনা আহাম্মদ (২৯), মো. ওসমান (৯), নুরু বেগম (৩০), সেনোয়ারা (২০), মিনু আরা (৩), শামসুল আলম (৩৫), নজরুল ইসলাম (৩০), আয়েশা বেগম (২৯), আব্দুল্লাহ (৮), আব্দুর রহমান (৬), জান্নাতুল ফেরদৌস (৩), শাহানা (১৭), মো. জাহিদ হোসেন (২৭), নুরু বেগম (২২), মো. হামিদ হোসেন (৯), মো. কামাল হোসেন (৮), আছমা বিবি (৪), রিশমা বিবি (৩), রুপবাহান (৬৩), আমির হোসেন (৩০), নবীন সোনা (২৮) সৈয়দ নুর (১০) পারভিন আক্তার (৭) তসমিন আরা (৫) জয়নাল (৩২) মরজিনা (৩০) পারভিন আক্তার (২০), ইমমান হোসেন মাহমুদ (১২), মো. নয়ন (১৩), আছমা (০৭), তাসকিন (২), রহমত উল্যা (৩৫), রুজিনা (২৫) এবং মো. আলীসহ (১৯) ৪৭ রোহিঙ্গা। তারা সবাই আশ্রয়ণ প্রকল্প ৩-এর বাসিন্দা।

গত ৩ অক্টোবর রাতের কোনো একসময় দালালচক্রের মাধ্যমে পালানোর উদ্দেশ্যে আশ্রয়ণ প্রকল্প-৩ থেকে একটি নৌকায় বের হয়ে যায় ৪৭ রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশু। বোটের মাঝি তাদের স্বর্ণদ্বীপে নামিয়ে দিয়ে চলে যায়।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, রোহিঙ্গাদের গভীর রাতে স্বর্ণদ্বীপ থেকে উদ্ধারের পর আটক দেখিয়ে বুধবার ভাসানচর থানায় হস্তান্তর করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে ট্রিপলআরসি চূড়ান্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া ৪৭ রোহিঙ্গা আটক

 হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
০৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রোহিঙ্গা
ছবি: যুগান্তর

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়া উপজেলার ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়া ৪৭ রোহিঙ্গা নাগরিককে স্বর্ণদ্বীপ থেকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। 

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে তাদের ভাসানচর থানায় আনা হয়। 

আটকদের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করে ট্রিপলআরসি কার্যালয়ে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আটক রোহিঙ্গাদের মধ্যে ১০ পুরুষ, ১২ নারী ও ২৫ শিশু রয়েছে। তারা হলো— আব্দুল হামিদ (৩২), মহছেনা (২৮), জান্নাত আরা (১১), ইসমত আরা (০৬), সাদিয়া আক্তার (৪) ,শওকত আরা (৯ মাস), সোনা আহাম্মদ (২৯), মো. ওসমান (৯), নুরু বেগম (৩০), সেনোয়ারা (২০), মিনু আরা (৩), শামসুল আলম (৩৫), নজরুল ইসলাম (৩০), আয়েশা বেগম (২৯), আব্দুল্লাহ (৮), আব্দুর রহমান (৬), জান্নাতুল ফেরদৌস (৩),   শাহানা (১৭), মো. জাহিদ হোসেন (২৭), নুরু বেগম (২২), মো. হামিদ হোসেন (৯), মো. কামাল হোসেন (৮), আছমা বিবি (৪), রিশমা বিবি (৩), রুপবাহান (৬৩), আমির হোসেন (৩০), নবীন সোনা (২৮) সৈয়দ নুর (১০) পারভিন আক্তার (৭) তসমিন আরা (৫) জয়নাল (৩২) মরজিনা (৩০) পারভিন আক্তার (২০), ইমমান হোসেন মাহমুদ (১২), মো. নয়ন (১৩), আছমা (০৭), তাসকিন (২), রহমত উল্যা (৩৫), রুজিনা (২৫) এবং মো. আলীসহ (১৯) ৪৭ রোহিঙ্গা। তারা সবাই আশ্রয়ণ প্রকল্প ৩-এর বাসিন্দা।
 
গত ৩ অক্টোবর রাতের কোনো একসময় দালালচক্রের মাধ্যমে পালানোর উদ্দেশ্যে আশ্রয়ণ প্রকল্প-৩ থেকে একটি নৌকায় বের হয়ে যায় ৪৭ রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশু। বোটের মাঝি তাদের স্বর্ণদ্বীপে নামিয়ে দিয়ে চলে যায়। 

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, রোহিঙ্গাদের গভীর রাতে স্বর্ণদ্বীপ থেকে উদ্ধারের পর আটক দেখিয়ে বুধবার ভাসানচর থানায় হস্তান্তর করা হয়। তাদের  বিরুদ্ধে ট্রিপলআরসি চূড়ান্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন