সাংবাদিকদের নিয়ে কটূক্তি, থানায় অভিযোগ
jugantor
সাংবাদিকদের নিয়ে কটূক্তি, থানায় অভিযোগ

  শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:৪৮:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

গত ২৬ আগস্ট ঢাকার কলাবাগান থানায় দায়ের হওয়া একটি মামলায় গ্রেফতার হন এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল আমিন (৩১) ও তার স্ত্রী পরিচালক শারমিন আক্তার (২৭)। তাদের অর্থপাচারের মামলায় কারাগারে পাঠান আদালত।

মূলত এরপর থেকেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। আটক এবং কারাগারে পাঠানোর সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের এক কর্মকর্তা।

কানসাট ইউনিয়নের জাইগীর গ্রাম বিলবাড়ী গ্রামের আতাব আলীর ছেলে আবদুল ওহাব (২৩)। এ ঘটনায় আবদুল ওহাবের শাস্তি দাবি করে শিবগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন শামসুন্নাহার সোহানা নামে একজন নারী সাংবাদিক। অভিযোগকারী ওই নারী সাংবাদিক স্থানীয় একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে কাজ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেস (এমএলএম) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল আমিন (৩১) ও তার স্ত্রী পরিচালক শারমিন আক্তারকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানোর পর হতেই আবদুল ওহাব গণমাধ্যম এবং সংবাদকর্মীদের কটাক্ষ করে তার নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে একাধিক স্ট্যাটাস দেন। সম্প্রতি বিষয়টি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের নজরে আসে। এরপর তার বিচার দাবি করেন সাংবাদিকরা।

বুধবার দুপুরে শামসুন্নাহার সোহানা বাদী হয়ে এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেসের কর্মচারীকে আসামি করে শিবগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিবগঞ্জ থানার এসআই ইসলাম জানান, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাংবাদিকদের নিয়ে কটূক্তি, থানায় অভিযোগ

 শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গত ২৬ আগস্ট ঢাকার কলাবাগান থানায় দায়ের হওয়া একটি মামলায় গ্রেফতার হন এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল আমিন (৩১) ও তার স্ত্রী পরিচালক শারমিন আক্তার (২৭)। তাদের অর্থপাচারের মামলায় কারাগারে পাঠান আদালত।

মূলত এরপর থেকেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। আটক এবং কারাগারে পাঠানোর সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের এক কর্মকর্তা।

কানসাট ইউনিয়নের জাইগীর গ্রাম বিলবাড়ী গ্রামের আতাব আলীর ছেলে আবদুল ওহাব (২৩)। এ ঘটনায় আবদুল ওহাবের শাস্তি দাবি করে শিবগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন শামসুন্নাহার সোহানা নামে একজন নারী সাংবাদিক। অভিযোগকারী ওই নারী সাংবাদিক স্থানীয় একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে কাজ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেস (এমএলএম) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল আমিন (৩১) ও তার স্ত্রী পরিচালক শারমিন আক্তারকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানোর পর হতেই আবদুল ওহাব গণমাধ্যম এবং সংবাদকর্মীদের কটাক্ষ করে তার নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে একাধিক স্ট্যাটাস দেন। সম্প্রতি বিষয়টি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের নজরে আসে। এরপর তার বিচার দাবি করেন সাংবাদিকরা।

বুধবার দুপুরে শামসুন্নাহার সোহানা বাদী হয়ে এসপিসি ওয়ার্ল্ড এক্সপ্রেসের কর্মচারীকে আসামি করে শিবগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিবগঞ্জ থানার এসআই ইসলাম জানান, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন