ভারতে কারাভোগের পর দেশে ফিরেছে ২০ কিশোর-কিশোরী
jugantor
ভারতে কারাভোগের পর দেশে ফিরেছে ২০ কিশোর-কিশোরী

  বেনাপোল প্রতিনিধি  

০৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:১৬:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ভালো চাকরির আশায় ভারতে গিয়ে ২ বছর কারাভোগের পর বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরেছে ২০ কিশোর-কিশোরী। ভালো কাজের আশায় অবৈধপথে ভারতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয় তারা।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করে। পরে তাদের পরিবারের কাছে তুলে দেওয়ার জন্য জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ফেরত আসা কিশোর-কিশোরীরা হলো- রাবেয়া খাতুন (১৬), রাফিজা খাতুন (১৫), আদনান হোসেন (১৪), বাপি ধর (১৫), হাসিব ফকির (১৪), সুমন মোল্লা (১৬), সবুজ মোল্লা (১৪), রুপা খাতুন (১৫), ইমদাদুল হোসেন (১৪), জুনায়েদ শেখ (১৪), আলাউদ্দিন শেখ (১৪), আবু জাফর সিকদার (১৫), সুইটি (১৪), নুর খাতুন (১৫), সুমি খাতুন (১৪), মেঘলা রায় (১৩), ছামিয়া খাতুন (১৪), সুমাইয়া খাতুন (১৫), সঞ্জীব (১৫) ও কমলা সুন্দরী (১৪)।

এরা নোয়াখালী, নড়াইল, নারায়ণগঞ্জ, বরিশাল, খুলনা, যশোর ও সাতক্ষীরা জেলার বাসিন্দা। গত আড়াই বছর আগে দালালদের খপ্পরে পড়ে এরা ভারতে পাচার হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি মজিবুর রহমান বলেন, ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার তারা দেশে ফিরে আসে।

ভারতে কারাভোগের পর দেশে ফিরেছে ২০ কিশোর-কিশোরী

 বেনাপোল প্রতিনিধি 
০৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভালো চাকরির আশায় ভারতে গিয়ে ২ বছর কারাভোগের পর বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরেছে ২০ কিশোর-কিশোরী। ভালো কাজের আশায় অবৈধপথে ভারতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয় তারা।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করে। পরে তাদের পরিবারের কাছে তুলে দেওয়ার জন্য জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ফেরত আসা কিশোর-কিশোরীরা হলো- রাবেয়া খাতুন (১৬), রাফিজা খাতুন (১৫), আদনান হোসেন (১৪), বাপি ধর (১৫), হাসিব ফকির (১৪), সুমন মোল্লা (১৬), সবুজ মোল্লা (১৪), রুপা খাতুন (১৫), ইমদাদুল হোসেন (১৪), জুনায়েদ শেখ (১৪), আলাউদ্দিন শেখ (১৪), আবু জাফর সিকদার (১৫), সুইটি (১৪), নুর খাতুন (১৫), সুমি খাতুন (১৪), মেঘলা রায় (১৩), ছামিয়া খাতুন (১৪), সুমাইয়া খাতুন (১৫), সঞ্জীব (১৫) ও কমলা সুন্দরী (১৪)।

এরা নোয়াখালী, নড়াইল, নারায়ণগঞ্জ, বরিশাল, খুলনা, যশোর ও সাতক্ষীরা জেলার বাসিন্দা। গত আড়াই বছর আগে দালালদের খপ্পরে পড়ে এরা ভারতে পাচার হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি মজিবুর রহমান বলেন, ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার তারা দেশে ফিরে আসে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন