স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে নদীতে ডুবে প্রাণ গেল স্বামীর
jugantor
স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে নদীতে ডুবে প্রাণ গেল স্বামীর

  সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৮ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৪:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে নদীর পানিতে ডুবে মারা গেছেন আসিফ ইকবাল টিটু (৩৮) নামে এক যুবক। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের ইসলামপুর সেতুর নিচে ধলেশ্বরী নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আসিফ ইকবালের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার রতনপুর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত আবদুল মান্নানের ছেলে। তিনি উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের ইরতা গ্রামের হাজী আ. করিমের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

স্থানীয়রা জানান, আসিফ ইকবাল টিটুর স্ত্রী শাম্মী আক্তার টুনি (৩১) উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের ইসলামনগর সেতুর নিচে ধলেশ্বরী নদীতে গোসল করতে নামেন। এ সময় নদীর তীরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিলেন তিনি। হঠাৎ দেখতে পান তার স্ত্রী শাম্মী আক্তার টুনি পানিতে ডুবে যাচ্ছে। এ সময় স্বামী তাকে উদ্ধার করতে পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন।

পরে স্ত্রী উদ্ধার হলেও স্বামী পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন। স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে উদ্ধার করতে পারেননি। একপর্যায়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সিংগাইর থানা পুলিশের সহায়তায় প্রায় ২ ঘণ্টা খোঁজাখুঁজি করে সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ওসি শফিকুল ইসলাম মোল্লা যুগান্তরকে বলেন আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে নদীতে ডুবে প্রাণ গেল স্বামীর

 সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে নদীর পানিতে ডুবে মারা গেছেন আসিফ ইকবাল টিটু (৩৮) নামে এক যুবক। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের ইসলামপুর সেতুর নিচে ধলেশ্বরী নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আসিফ ইকবালের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার রতনপুর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত আবদুল মান্নানের ছেলে। তিনি উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের ইরতা গ্রামের হাজী আ. করিমের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

স্থানীয়রা জানান, আসিফ ইকবাল টিটুর স্ত্রী শাম্মী আক্তার টুনি (৩১) উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের ইসলামনগর সেতুর নিচে ধলেশ্বরী নদীতে গোসল করতে নামেন। এ সময় নদীর তীরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিলেন তিনি। হঠাৎ দেখতে পান তার স্ত্রী শাম্মী আক্তার টুনি পানিতে ডুবে যাচ্ছে। এ সময় স্বামী তাকে উদ্ধার করতে পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন। 

পরে স্ত্রী উদ্ধার হলেও স্বামী পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন। স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে উদ্ধার করতে পারেননি। একপর্যায়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সিংগাইর থানা পুলিশের সহায়তায় প্রায় ২ ঘণ্টা খোঁজাখুঁজি করে সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ওসি শফিকুল ইসলাম মোল্লা যুগান্তরকে বলেন আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন