সেই গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকার কারাগারে
jugantor
সেই গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকার কারাগারে

  কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি  

১১ অক্টোবর ২০২১, ০০:০৬:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

কেরানীগঞ্জে অপচিকিৎসায় নবজাতকের ডান পা কাটার ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে গ্রাম্যডাক্তার দেব কিশোর ওরফে ধীমান সরকারকে। রোববার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে শনিবার দুপুরে উপজেলার আব্দুল্লাহপুর কলাকান্দিবাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর বলেন, গ্রাম্যডাক্তার দেব কিশোর ওরফে ধীমান সরকারের অপচিকিৎসার শিকার হয়ে ১৬ দিন বয়সী এক নবজাতকের ডান পা কেটে ফেলতে হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা আবুল বাসার শনিবার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় সন্তানের অঙ্গহানির অভিযোগ এনে মামলা করলে ধীমান সরকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জানা গেছে, ৯ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শিশুটির। জন্মের ৬ দিনের মাথায় শিশুর কান্না থামানোর জন্য মা সীমা বেগম বাড়ির পাশের কলাকান্দিবাজারে ফার্মেসি খুলে বসা গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকারের কাছে নিয়ে যান। সেখানে শিশুটিকে ঝাড়ফুঁক ও ডান পায়ে একটি ট্রাইজেন ইনজেকশন পুষ করেন ধীমান সরকার। দ্বিতীয় দিনও শিশুটিকে একই চিকিৎসা দেন। তৃতীয় দিন শিশুটির পা ফুলে যায় এবং কালো বর্ণ ধারণ করে। একপর্যায়ে ঢাকার কয়েকটি হাসপাতাল ঘুরে ধানমন্ডির একটি হাসপাতালে ১৭ দিন বয়সী শিশুটির ডান পা অস্ত্রোপচার করে কেটে ফেলতে হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর জানান, শিশুটির পা হারানোর ঘটনাটি যুগান্তরসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে বিষয়টি গুরুত্ব নিয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। শিশুটির পিতা মামলা করার পর গ্রেফতার করা হয় গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকারকে। গ্রেফতারের পর রোববার ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হয়। শুনানি শেষে আদালত ধীমান সরকারকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

সেই গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকার কারাগারে

 কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি 
১১ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কেরানীগঞ্জে অপচিকিৎসায় নবজাতকের ডান পা কাটার ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে গ্রাম্যডাক্তার দেব কিশোর ওরফে ধীমান সরকারকে। রোববার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে শনিবার দুপুরে উপজেলার আব্দুল্লাহপুর কলাকান্দিবাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর বলেন, গ্রাম্যডাক্তার দেব কিশোর ওরফে ধীমান সরকারের অপচিকিৎসার শিকার হয়ে ১৬ দিন বয়সী এক নবজাতকের ডান পা কেটে ফেলতে হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা আবুল বাসার শনিবার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় সন্তানের অঙ্গহানির অভিযোগ এনে মামলা করলে ধীমান সরকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জানা গেছে, ৯ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শিশুটির। জন্মের ৬ দিনের মাথায় শিশুর কান্না থামানোর জন্য মা সীমা বেগম বাড়ির পাশের কলাকান্দিবাজারে ফার্মেসি খুলে বসা গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকারের কাছে নিয়ে যান। সেখানে শিশুটিকে ঝাড়ফুঁক ও ডান পায়ে একটি ট্রাইজেন ইনজেকশন পুষ করেন ধীমান সরকার। দ্বিতীয় দিনও শিশুটিকে একই চিকিৎসা দেন। তৃতীয় দিন শিশুটির পা ফুলে যায় এবং কালো বর্ণ ধারণ করে। একপর্যায়ে ঢাকার কয়েকটি হাসপাতাল ঘুরে ধানমন্ডির একটি হাসপাতালে ১৭ দিন বয়সী শিশুটির ডান পা অস্ত্রোপচার করে কেটে ফেলতে হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর জানান, শিশুটির পা হারানোর ঘটনাটি যুগান্তরসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে বিষয়টি গুরুত্ব নিয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। শিশুটির পিতা মামলা করার পর গ্রেফতার করা হয় গ্রাম্যডাক্তার ধীমান সরকারকে। গ্রেফতারের পর রোববার ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হয়। শুনানি শেষে আদালত ধীমান সরকারকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন