মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে মেয়রপ্রার্থীকে অপহরণ
jugantor
মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে মেয়রপ্রার্থীকে অপহরণ

  ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধি  

১১ অক্টোবর ২০২১, ১২:২০:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে মেয়রপ্রার্থীকে অপহরণ

ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যাওয়ার পথে স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী আবদুল হালিম (৩৮) হামলা ও অপহরণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় তার মনোনয়নপত্র ছিনতাই করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের কাছে এ ঘটনা ঘটে। পরে সন্ধ্যার দিকে পশ্চিম ছাগলনাইয়া থেকে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার ছিল ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন।

বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী আব্দুল হালিম তার ভাবি সাজিয়া আক্তারকে নিয়ে ছাগলনাইয়া নির্বাচন অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যান।

সাজিয়া আক্তার জানান, নির্বাচন অফিসে ওঠার সময় ১০-১২ জন যুবক তাকেসহ প্রার্থীকে টেনেহেঁচড়ে প্রধান সড়কের দিকে নিয়ে যায়। এ সময় সাজিয়া আক্তারের গলা চেপে ধরে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। একপর্যায়ে আব্দুল হালিমকে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।

রক্তাক্ত অবস্থায় সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় তারা। এ সময় তার মনোনয়নপত্র ছিনতাই করে। ভয়ে তটস্থ হয়ে সাজিয়া আক্তার একাই বাড়ি ফেরেন।

পুলিশের ছাগলনাইয়া সার্কেল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সোহেল পারভেজ জানান, ঘটনার পর পর ডিবিসহ থানা পুলিশ প্রার্থীকে উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। তৎক্ষণিকভাবে শিশির নামে একজনকে আটক করা হয়। প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর প্রার্থী আব্দুল হালিমকে পুলিশ উদ্ধার করে।

তাকে অপহরণ করে ফুলগাজীর দিকে নিয়ে গিয়েছিল দুর্বৃত্তরা। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার।

আব্দুল হালিম যুগান্তরকে জানান, একদল যুবক তার ওপর হামলা চালিয়েছে। তাদের নাম-পরিচয় তিনি জানেন না। তবে দেখলে তাদের চিনবেন। কি জন্য তার ওপর হামলা চালিয়েছে তা নিয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। এ ঘটনায় তিনি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. জসীম উদ্দিন জানান, বিকাল সোয়া ৩টার দিকে একজনকে কয়েকজন যুবক ধরে নিয়ে যাচ্ছিল। হইচই তিনি শুনেছেন। তবে তিনি কোনো প্রার্থী কিনা তৎক্ষণিকভাবে বলতে পারেননি। পরে শুনেছেন তিনি মেয়র পদপ্রার্থী।

এদিকে ছাগলনাইয়া পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী এম মোস্তফা বলেন, আমি চট্টগ্রাম ছিলাম। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় আব্দুল হালিমের বাড়িতে যাই। বাড়িতে আব্দুল হালিম এবং তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি। সেখান থেকে পুলিশ তাকে ( আব্দুল হালিম) থানায় নিয়ে এসেছে। ভুল বোঝাবুঝির অবসান হবে বলে মনে করেন তিনি।

প্রসঙ্গত ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এম মোস্তফা এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী সাংবাদিক জাকের হায়দার সুমন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে মেয়রপ্রার্থীকে অপহরণ

 ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধি 
১১ অক্টোবর ২০২১, ১২:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে মেয়রপ্রার্থীকে অপহরণ
ছবি: যুগান্তর

ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যাওয়ার পথে স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী আবদুল হালিম (৩৮) হামলা ও অপহরণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় তার মনোনয়নপত্র ছিনতাই করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। 

রোববার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের কাছে এ ঘটনা ঘটে। পরে সন্ধ্যার দিকে পশ্চিম ছাগলনাইয়া থেকে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার ছিল ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন।

বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী আব্দুল হালিম তার ভাবি সাজিয়া আক্তারকে নিয়ে ছাগলনাইয়া নির্বাচন অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যান। 

সাজিয়া আক্তার জানান, নির্বাচন অফিসে ওঠার সময় ১০-১২ জন যুবক তাকেসহ প্রার্থীকে টেনেহেঁচড়ে প্রধান সড়কের দিকে নিয়ে যায়। এ সময় সাজিয়া আক্তারের গলা চেপে ধরে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। একপর্যায়ে আব্দুল হালিমকে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।

রক্তাক্ত অবস্থায় সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় তারা। এ সময় তার মনোনয়নপত্র ছিনতাই করে। ভয়ে তটস্থ হয়ে সাজিয়া আক্তার একাই বাড়ি ফেরেন। 

পুলিশের ছাগলনাইয়া সার্কেল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সোহেল পারভেজ জানান, ঘটনার পর পর ডিবিসহ থানা পুলিশ প্রার্থীকে উদ্ধার অভিযান শুরু করেন। তৎক্ষণিকভাবে শিশির নামে একজনকে আটক করা হয়। প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর প্রার্থী আব্দুল হালিমকে পুলিশ উদ্ধার করে।
 
তাকে অপহরণ করে ফুলগাজীর দিকে নিয়ে গিয়েছিল দুর্বৃত্তরা। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার।

আব্দুল হালিম যুগান্তরকে জানান, একদল যুবক তার ওপর হামলা চালিয়েছে। তাদের নাম-পরিচয় তিনি জানেন না। তবে দেখলে তাদের চিনবেন। কি জন্য তার ওপর হামলা চালিয়েছে তা নিয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। এ ঘটনায় তিনি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান। 

নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. জসীম উদ্দিন জানান, বিকাল সোয়া ৩টার দিকে একজনকে কয়েকজন যুবক ধরে নিয়ে যাচ্ছিল। হইচই তিনি শুনেছেন। তবে তিনি কোনো প্রার্থী কিনা তৎক্ষণিকভাবে বলতে পারেননি। পরে শুনেছেন তিনি মেয়র পদপ্রার্থী।

এদিকে ছাগলনাইয়া পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী এম মোস্তফা বলেন, আমি চট্টগ্রাম ছিলাম। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় আব্দুল হালিমের বাড়িতে যাই। বাড়িতে আব্দুল হালিম এবং তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি। সেখান থেকে পুলিশ তাকে ( আব্দুল হালিম) থানায় নিয়ে এসেছে। ভুল বোঝাবুঝির অবসান হবে বলে মনে করেন তিনি। 

প্রসঙ্গত ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এম মোস্তফা এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী সাংবাদিক জাকের হায়দার সুমন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন