সিলিন্ডার বিস্ফোরণে স্বপ্নভঙ্গ মুন্নি বেগমের
jugantor
সিলিন্ডার বিস্ফোরণে স্বপ্নভঙ্গ মুন্নি বেগমের

  বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি  

১১ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৩:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতিদিনের মতো রান্নার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় গ্যাসের চুলায় আগুন দিতেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো ঘরে। এর কিছুক্ষণের মধ্যে গ্যাস সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ ঘটে এতে আগুনের তীব্রতা আরও বেড়ে যায়।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে গ্যাসের চুলা দিয়ে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে গেলেও ততক্ষণে বিধবা মুন্নি বেগমের ঘরের বেশিরভাগই পুড়ে যায়। এ ঘটনা বরিশালের বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে।

মুন্নি বেগম জানান, সকালে রান্না করার জন্য গ্যাসের চুলায় আগুন দিলে মুহূর্তে আগুন পুরো ঘরে ছড়িয়ে পরে। এতে আমার স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকাসহ ৮-৯ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ইউএনও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

জানা যায়, কয়েক বছর আগে ৩ ছেলে রেখে মুন্নি বেগমের স্বামী মোতালেব মারা যায়। মুন্নি বেগম তার তিন ছেলেকে নিয়ে ওই ঘরে বসবাস করতেন। একমাত্র থাকার ঘরটি আগুনে পুরে যাওয়ায় তিনি দিশেহারা হয়ে পড়ছেন।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিরুজ্জামান রিপন জানান, খরর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। এ ঘটনায় মুন্নি বেগমের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকলকে আহ্বান জানাই।

বাকেরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ইনচার্জ আব্দুল কুদ্দুস যুগান্তরকে জানান, আগুনের সংবাদ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এতে ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টা চালাতে হয়েছে। গ্যাস সিলিন্ডার থেকেই আগুনের সূত্রপাত বলেও তিনি নিশ্চিত করেন।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাধবী রায় যুগান্তরকে জানান, আগুনের ঘটনায় আমি নিজে ফায়ার সার্ভিস অফিসে কল করি। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসা পর্যন্ত ওইখানেই ছিলাম। তাদেরকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। ঢেউটিন আসলে তাদেরকে দেওয়া হবে। পাশাপাশি আর্থিক সহায়তার জন্য তালিকা করে জেলায় পাঠানো হবে।

সিলিন্ডার বিস্ফোরণে স্বপ্নভঙ্গ মুন্নি বেগমের

 বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি 
১১ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতিদিনের মতো রান্নার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় গ্যাসের চুলায় আগুন দিতেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো ঘরে। এর কিছুক্ষণের মধ্যে গ্যাস সিলিন্ডারের বিস্ফোরণ ঘটে এতে আগুনের তীব্রতা আরও বেড়ে যায়।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে গ্যাসের চুলা দিয়ে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে গেলেও ততক্ষণে বিধবা মুন্নি বেগমের ঘরের বেশিরভাগই পুড়ে যায়। এ ঘটনা বরিশালের বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে।

মুন্নি বেগম জানান, সকালে রান্না করার জন্য গ্যাসের চুলায় আগুন দিলে মুহূর্তে আগুন পুরো ঘরে ছড়িয়ে পরে। এতে আমার স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকাসহ ৮-৯ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ইউএনও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

জানা যায়, কয়েক বছর আগে ৩ ছেলে রেখে মুন্নি বেগমের স্বামী মোতালেব মারা যায়। মুন্নি বেগম তার তিন ছেলেকে নিয়ে ওই ঘরে বসবাস করতেন। একমাত্র থাকার ঘরটি আগুনে পুরে যাওয়ায় তিনি দিশেহারা হয়ে পড়ছেন।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিরুজ্জামান রিপন জানান, খরর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। এ ঘটনায় মুন্নি বেগমের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকলকে আহ্বান জানাই।

বাকেরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ইনচার্জ আব্দুল কুদ্দুস যুগান্তরকে জানান, আগুনের সংবাদ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এতে ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টা চালাতে হয়েছে। গ্যাস সিলিন্ডার থেকেই আগুনের সূত্রপাত বলেও তিনি নিশ্চিত করেন।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাধবী রায় যুগান্তরকে জানান, আগুনের ঘটনায় আমি নিজে ফায়ার সার্ভিস অফিসে কল করি। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসা পর্যন্ত ওইখানেই ছিলাম। তাদেরকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। ঢেউটিন আসলে তাদেরকে দেওয়া হবে। পাশাপাশি আর্থিক সহায়তার জন্য তালিকা করে জেলায় পাঠানো হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন