স্বামী-সন্তান ফেলে প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধূর অনশন
jugantor
স্বামী-সন্তান ফেলে প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধূর অনশন

  সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১২ অক্টোবর ২০২১, ০০:১৭:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বামী-সন্তান রেখে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে আমরণ অনশন করেছেন এক গৃহবধূ। তার এক কন্যা সন্তান রয়েছে। তার পরেও প্রেমের মোহে তিনি প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধতে চান। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নে।

সোমবার বিকালে দেখা গেছে, গৃহবধূর (২০) অবস্থান করা ওই বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড়। দুদু খাঁর পুত্র প্রেমিক জসিম উদ্দিন (২১) বাড়িতে নেই। তার মা সুফিয়া বেগম ভাত দিয়ে অনশন ভঙ্গের চেষ্টা করছেন। কিন্তু কিছুতেই কাজ হচ্ছে না, তার এক দাবী জসিমকে বিয়ে করতে হবে।

ওই গৃহবধূর অভিযোগ জানান, ৫ বছর আগে তার বিয়ে হয়। ওই ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। গত রমজান মাস থেকে জসিমের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরবর্তীতে সেটা শারীরিক সম্পর্কে গড়ায়। জসিমকে নিয়ে তার বোনের বাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে রাত যাপন করেছেন তিনি। বিষয়টি তার স্বামী জানতে পেরে সংসারে অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এক পর্যায়ে স্বামী তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরে বিয়ের দাবিতে জসিমের বাড়িতে অবস্থান নেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমাকে বিয়ে না করলে প্রয়োজনে এ বাড়িতেই আত্মহত্যা করবো।

এ দিকে অভিযুক্ত জসিম উদ্দিনকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তার মা সুফিয়া বেগম জানান, জসিম কাজে গেছেন। এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। আগে কখনো এমন সম্পর্কের কথা শুনিনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফেলু মিয়া জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত থাকায় এলাকার গণ্যমান্যদের মীমাংসার কথা বলেছি।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ওসি সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, কেউ অভিযোগ দিতে আসেনি। তার পরেও পুলিশ পাঠিয়ে খোঁজ নিচ্ছি।

স্বামী-সন্তান ফেলে প্রেমিকের বাড়িতে গৃহবধূর অনশন

 সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১২ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বামী-সন্তান রেখে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে আমরণ অনশন করেছেন এক গৃহবধূ। তার এক কন্যা সন্তান রয়েছে। তার পরেও প্রেমের মোহে তিনি প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধতে চান। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নে।

সোমবার বিকালে দেখা গেছে, গৃহবধূর (২০) অবস্থান করা ওই বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড়। দুদু খাঁর পুত্র প্রেমিক জসিম উদ্দিন (২১) বাড়িতে নেই। তার মা সুফিয়া বেগম ভাত দিয়ে অনশন ভঙ্গের চেষ্টা করছেন। কিন্তু কিছুতেই কাজ হচ্ছে না, তার এক দাবী জসিমকে বিয়ে করতে হবে।

ওই গৃহবধূর অভিযোগ জানান, ৫ বছর আগে তার বিয়ে হয়। ওই ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। গত রমজান মাস থেকে জসিমের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরবর্তীতে সেটা শারীরিক সম্পর্কে গড়ায়। জসিমকে নিয়ে তার বোনের বাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে রাত যাপন করেছেন তিনি। বিষয়টি তার স্বামী জানতে পেরে সংসারে অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এক পর্যায়ে  স্বামী তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরে বিয়ের দাবিতে জসিমের বাড়িতে অবস্থান নেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমাকে বিয়ে না করলে প্রয়োজনে এ বাড়িতেই আত্মহত্যা করবো।

এ দিকে অভিযুক্ত জসিম উদ্দিনকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তার মা সুফিয়া বেগম জানান, জসিম কাজে গেছেন। এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। আগে কখনো এমন সম্পর্কের কথা শুনিনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফেলু মিয়া জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত থাকায় এলাকার গণ্যমান্যদের মীমাংসার কথা বলেছি।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ওসি সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, কেউ অভিযোগ দিতে আসেনি। তার পরেও পুলিশ পাঠিয়ে খোঁজ নিচ্ছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন