কথিত ‘আরসা কমান্ডারসহ’ ১৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার
jugantor
কথিত ‘আরসা কমান্ডারসহ’ ১৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার

  কক্সবাজার প্রতিনিধি  

১২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৪৯:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পৃথক অভিযানে কথিত আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) কমান্ডার ছলিম মাস্টারসহ ১৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত ১৫ নম্বর জামতলী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

৮ এপিবিএনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. কামরান হোসেন বলেন, গোপন খবরের ভিত্তিতে সোমবার গভীর রাতে থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে এসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করা হয়।

এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ছলিম মাস্টার কথিত সংগঠন 'আরসা'র স্থানীয় কমান্ডার। এছাড়া এনায়েত উল্লাহ, আব্দুল আমিন, নূর মোহাম্মদ, মো. রফিক, মো. আরিফ উল্লাহ আরসার অন্যতম নেতা আনাসের ঘনিষ্ঠ সহচর এবং ফিরোজ মিয়া চিহ্নিত মাদক কারবারি। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করে উখিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

এদিকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ তালিকাভুক্ত দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী নুর হোসেনসহ ৬ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে ১৪ এপিবিএন ও জেলা পুলিশের যৌথ টিম। রাত দেড়টায় কুতুপালং রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের জি-ব্লকের শেড নং-৪১ ও ৪২ এর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী নুর হোসেন (২৭) ফারুক (৩৫) মো. কামাল হোসেন (৩০), জিয়াউর রহমান (৩১) এবং আয়াতুল্লাহ (২৮)। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ১টি দেশীয় তৈরি ওয়ান শুটারগান, ১ রাউন্ড কার্তুজ, ২০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

১৪ এপিবিএনের সহকারী পুলিশ সুপার একেএম এমরানুল হক মারুফ জানান, গ্রেফতারকৃতরা সবাই বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত। তাদের অনেকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ভেতর অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের গুলিতে নিহত হন রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ। এরপর আলোচনায় আসে কথিত ও বিতর্কিত সংগঠন আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা)। নিহত মুহিবুল্লাহর ছোটভাই হাবিবুল্লাহর দাবি- আরসা সন্ত্রাসীরা তার ভাইকে গুলি করে হত্যা করেছে।

কথিত ‘আরসা কমান্ডারসহ’ ১৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার

 কক্সবাজার প্রতিনিধি 
১২ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পৃথক অভিযানে কথিত আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) কমান্ডার ছলিম মাস্টারসহ ১৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত ১৫ নম্বর জামতলী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

৮ এপিবিএনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো. কামরান হোসেন বলেন, গোপন খবরের ভিত্তিতে সোমবার গভীর রাতে থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে এসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করা হয়।

এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ছলিম মাস্টার কথিত সংগঠন 'আরসা'র স্থানীয় কমান্ডার। এছাড়া এনায়েত উল্লাহ, আব্দুল আমিন, নূর মোহাম্মদ, মো. রফিক, মো. আরিফ উল্লাহ আরসার অন্যতম নেতা আনাসের ঘনিষ্ঠ সহচর এবং ফিরোজ মিয়া চিহ্নিত মাদক কারবারি। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করে উখিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

এদিকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ তালিকাভুক্ত দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী নুর হোসেনসহ ৬ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে ১৪ এপিবিএন ও জেলা পুলিশের যৌথ টিম। রাত দেড়টায় কুতুপালং রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের জি-ব্লকের শেড নং-৪১ ও ৪২ এর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী নুর হোসেন (২৭) ফারুক (৩৫) মো. কামাল হোসেন (৩০), জিয়াউর রহমান (৩১) এবং আয়াতুল্লাহ (২৮)। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ১টি দেশীয় তৈরি ওয়ান শুটারগান, ১ রাউন্ড কার্তুজ, ২০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

১৪ এপিবিএনের সহকারী পুলিশ সুপার একেএম এমরানুল হক মারুফ জানান, গ্রেফতারকৃতরা সবাই বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত। তাদের অনেকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ভেতর অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের গুলিতে নিহত হন রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ। এরপর আলোচনায় আসে কথিত ও বিতর্কিত সংগঠন আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা)। নিহত মুহিবুল্লাহর ছোটভাই হাবিবুল্লাহর দাবি- আরসা সন্ত্রাসীরা তার ভাইকে গুলি করে হত্যা করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন