সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ছুরিকাহত
jugantor
সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ছুরিকাহত

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি  

১৬ অক্টোবর ২০২১, ০০:৫৩:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালে ঠাকুরগাঁওয়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা রয়েল বড়ুয়া। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা মানিকের ছোট ভাই রিয়াজকে (২২) আটক করেছে পুলিশ।

জমিদার পাড়ার টিংকু রায় জানান, শুক্রবার বিকালে জেলা শহরের পুলিশ সুপারের বাসভবনের নিকটস্থ রিভারভিউ বালক উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন টাঙ্গন নদীতে পাড়ে তরুণদের দুই গ্রুপের উত্তেজনার সময় কে বা কারা ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা রয়েল বড়ুয়ার পেটে ধারালো চাকু বসিয়ে দেয়। এতে তার বুকের নিচের একটি অংশ কেটে যায়। তাকে উদ্ধার করে তাকে প্রথমে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সৃজন দত্ত বলেন, উত্তেজিত দুই গ্রুপকে শান্ত করতে গিয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা রয়েল ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুত্বর আহত হন। এতে তিনি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রকিবুল আলম চয়নের বরাত দিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী ভুট্টো বলেন, রয়েল বড়ুয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুরে নেয়া হয়।

পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পরিস্থিতি এখন শান্ত। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ছুরিকাহত

 ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি 
১৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালে ঠাকুরগাঁওয়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা রয়েল বড়ুয়া। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সন্ধ্যায় ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা মানিকের ছোট ভাই রিয়াজকে (২২) আটক করেছে পুলিশ।

জমিদার পাড়ার টিংকু রায় জানান, শুক্রবার বিকালে জেলা শহরের  পুলিশ সুপারের বাসভবনের নিকটস্থ রিভারভিউ বালক উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন টাঙ্গন নদীতে পাড়ে তরুণদের দুই গ্রুপের উত্তেজনার সময় কে বা কারা ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা রয়েল বড়ুয়ার পেটে ধারালো চাকু বসিয়ে দেয়। এতে তার বুকের নিচের একটি অংশ কেটে যায়। তাকে উদ্ধার করে তাকে প্রথমে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সৃজন দত্ত বলেন, উত্তেজিত দুই গ্রুপকে শান্ত করতে গিয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা রয়েল ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুত্বর আহত হন। এতে তিনি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক ভাবে তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রকিবুল আলম চয়নের বরাত দিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী ভুট্টো বলেন, রয়েল বড়ুয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুরে নেয়া হয়।

পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পরিস্থিতি এখন শান্ত। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন