চেয়ারম্যান মোশারফের বিরুদ্ধে মুখ খুলছে মানুষ, মানববন্ধন (ভিডিও)
jugantor
চেয়ারম্যান মোশারফের বিরুদ্ধে মুখ খুলছে মানুষ, মানববন্ধন (ভিডিও)

  নারায়ণগঞ্জ ও সোনারগাঁও প্রতিনিধি  

১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৮:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

সোনারগাঁও উপজেলার কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছে ভয়ে চুপ করে থাকা সাধারণ মানুষ। দৈনিক যুগান্তরে চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের ফিল্মি কায়দায় ব্যবসায়ীকে মারধর করে অপহরণের চেষ্টা শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর নিরবতা ভেঙে নির্যাতনের বিরুদ্ধে মুখ খুলছেন তারা।

শনিবার জমি দখল, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদে চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের বিরুদ্ধে কাঁচপুর বাসস্ট্যান্ডে মানববন্ধনে অংশ নেয় শত শত মানুষ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরজোরপূর্বক ভোট জালিয়াতি করে নির্বাচিত হওয়ার পরই সাধারষণ মানুষের জমি দখল, চাঁদাবাজী ও মাদক ব্যবসায় মেতে ওঠেন। তিনি একটি বাহিনী গড়ে তোলেন। এই বাহিনীর সদস্যরাজমি দখল ও চাদাঁবাজী করে যাচ্ছে। কেউ বাধা দিলেই তার ওপর নেমে আসে অমানসিকনির্যাতন, হামলা ও মামলা। মোশারফ হোসেনকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে ভুক্তভোগী সাইফুল ইসলাম জানান, তিনি উপজেলার কাচঁপুর উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা। কাচঁপুর চেঙ্গাইন সড়কের পাশে পৈত্রিক সম্পত্তিতেদীর্ঘ দিন ধরে একটি দোকান নির্মাণ করে ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। সম্প্রতি কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ওরফে মোশারফ ওমর ও তার লোকজন জমিটি দখলের চেষ্টা করছে। জমিটি লিখে দেওয়ার জন্য তাকে চাপ দেওয়া হচ্ছে।

সাইফুল ইসলাম বলেন, গত মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের নেতৃত্বে ২০-৩০ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার দোকান ভাংচুর করে জমি দখলের চেষ্টা করে। এতে বাধা দেওয়ায় তাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করা হয়। পরে এ ঘটনায় সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরকেপ্রধান আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে সাইফুল নামে এক মুদি দোকানীকে মারধর করে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দখলের চেষ্টারঅপর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, রাতের বেলায় লোকজন নিয়ে মুদি দোকানীকে জোরপূর্বক দোকান বন্ধ করতে নির্দেশ দিচ্ছেন চেয়ারম্যান মোশারফ। এ সময় তিনি ওই দোকানীকে উপর্যুপুরি লাথি ও চড়থাপ্পড় মারেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরবলেন, একটি চক্র নির্বাচনে ফায়দা লুটার জন্যই আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি কোনো জমি দখল ও চাদাঁবাজীর সঙ্গে জড়িত নন বলে দাবি করেন।

কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চেয়ারম্যান মোশারফের বিরুদ্ধে মুখ খুলছে মানুষ, মানববন্ধন (ভিডিও)

 নারায়ণগঞ্জ ও সোনারগাঁও প্রতিনিধি 
১৬ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সোনারগাঁও উপজেলার কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছে ভয়ে চুপ করে থাকা সাধারণ মানুষ। দৈনিক যুগান্তরে চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের ফিল্মি কায়দায় ব্যবসায়ীকে মারধর করে অপহরণের চেষ্টা শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর নিরবতা ভেঙে নির্যাতনের বিরুদ্ধে মুখ খুলছেন তারা।

শনিবার জমি দখল, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদে চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের বিরুদ্ধে কাঁচপুর বাসস্ট্যান্ডে মানববন্ধনে অংশ নেয় শত শত মানুষ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর জোরপূর্বক ভোট জালিয়াতি করে নির্বাচিত হওয়ার পরই সাধারষণ মানুষের জমি দখল, চাঁদাবাজী ও মাদক ব্যবসায় মেতে ওঠেন। তিনি একটি বাহিনী গড়ে তোলেন। এই বাহিনীর সদস্যরা জমি দখল ও চাদাঁবাজী করে যাচ্ছে। কেউ বাধা দিলেই তার ওপর নেমে আসে অমানসিক নির্যাতন, হামলা ও মামলা। মোশারফ হোসেনকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে ভুক্তভোগী সাইফুল ইসলাম জানান, তিনি উপজেলার কাচঁপুর উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা। কাচঁপুর চেঙ্গাইন সড়কের পাশে পৈত্রিক সম্পত্তিতে দীর্ঘ দিন ধরে একটি দোকান নির্মাণ করে ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। সম্প্রতি কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ওরফে মোশারফ ওমর ও তার লোকজন জমিটি দখলের চেষ্টা করছে।  জমিটি লিখে দেওয়ার জন্য তাকে চাপ দেওয়া হচ্ছে।

সাইফুল ইসলাম বলেন, গত মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের নেতৃত্বে ২০-৩০ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার দোকান ভাংচুর করে জমি দখলের চেষ্টা করে। এতে বাধা দেওয়ায় তাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করা হয়। পরে এ ঘটনায় সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরকে প্রধান আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে সাইফুল নামে এক মুদি দোকানীকে মারধর করে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দখলের চেষ্টার অপর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, রাতের বেলায় লোকজন নিয়ে মুদি দোকানীকে জোরপূর্বক দোকান বন্ধ করতে নির্দেশ দিচ্ছেন চেয়ারম্যান মোশারফ। এ সময় তিনি ওই দোকানীকে উপর্যুপুরি লাথি ও চড়থাপ্পড় মারেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর বলেন, একটি চক্র নির্বাচনে ফায়দা লুটার জন্যই আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি কোনো জমি দখল ও চাদাঁবাজীর সঙ্গে জড়িত নন বলে দাবি করেন।

কাচঁপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ ওমরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন