প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমানে ‘ছেলেকে হত্যায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা’
jugantor
প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমানে ‘ছেলেকে হত্যায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা’

  রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:২২:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমানে ‘ছেলেকে হত্যায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা’

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে এক সন্তানের জননী আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ওই গৃহবধূর পরিবার জানায়, পারিবারিক কলহের জেরে সেলিনা আক্তার শিল্পি (২৮) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

শনিবার রাত ৮টার দিকে পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম কাঞ্চনপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

মৃত সেলিনা আক্তার বামনী ইউপির চরবগা গ্রামের ভ্রাম্যমাণ তরকারি বিক্রেতা নুরুল ইসলামের মেয়ে। তার স্বামী রায়পুর বাসটার্মিনাল সংলগ্ন দেনায়েতপুর গ্রামের মিয়াজি বাড়ির লোকমানের ছেলে। তাদের সংসারে তাহসান (৭) নামের মাদরাসা পড়ুয়া এক শিশু সন্তান রয়েছে।

সেলিনার বাবা নুরুল ইসলাম মিয়া জানান, গত ৮ বছর আগে সম্পর্ক করে জহিরের সঙ্গে তার মেয়ের বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পর থেকে সেলিনা ও তার স্বামীর পরিবারের সদস্যদের মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। এ অবস্থায় সেলিনা কাঞ্চনপুর গ্রামে একটি ঘর করে ছেলেকে নিয়ে একাই বসবাস করছিল। গত মঙ্গলবার সেলিনার শ্বশুর মারা যান। শনিবার দুপুরে সেলিনা তার শ্বশুর বাড়িতে যায়। এসময় শ্বশুরের চেহলাম অনুষ্ঠান নিয়ে দেবর ও ননদদের সঙ্গে ঝগড়া হয়। বিষয়টি সেলিনা প্রবাসী স্বামীর কাছে বিচার দেন। এতে সমাধান না পেলে জহিরের সঙ্গে ঝগড়া হয় সেলিনার। এক পর্যায়ে কক্ষের দরজা বন্ধ করে শিশু ছেলেকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে নিজেই জানালার গ্রিলের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

রায়পুর থানা পুলিশের এসআই মো. জাহাঙ্গির হোসেন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়পুর থানা থেকে সদর হাসপাতাল মর্গের উদ্দেশে নেওয়া হয়।

প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমানে ‘ছেলেকে হত্যায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা’

 রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
১৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:২২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমানে ‘ছেলেকে হত্যায় ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা’
প্রতীকী ছবি

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে এক সন্তানের জননী আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ওই গৃহবধূর পরিবার জানায়, পারিবারিক কলহের জেরে সেলিনা আক্তার শিল্পি (২৮) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। 

শনিবার রাত ৮টার দিকে পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম কাঞ্চনপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

মৃত সেলিনা আক্তার বামনী ইউপির চরবগা গ্রামের ভ্রাম্যমাণ তরকারি বিক্রেতা নুরুল ইসলামের মেয়ে। তার স্বামী রায়পুর বাসটার্মিনাল সংলগ্ন দেনায়েতপুর গ্রামের মিয়াজি বাড়ির লোকমানের ছেলে। তাদের সংসারে তাহসান (৭) নামের মাদরাসা পড়ুয়া এক শিশু সন্তান রয়েছে।

সেলিনার বাবা নুরুল ইসলাম মিয়া জানান, গত ৮ বছর আগে সম্পর্ক করে জহিরের সঙ্গে তার মেয়ের বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পর থেকে সেলিনা ও তার স্বামীর পরিবারের সদস্যদের মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। এ অবস্থায় সেলিনা কাঞ্চনপুর গ্রামে একটি ঘর করে ছেলেকে নিয়ে একাই বসবাস করছিল। গত মঙ্গলবার সেলিনার শ্বশুর মারা যান। শনিবার দুপুরে সেলিনা তার শ্বশুর বাড়িতে যায়। এসময় শ্বশুরের চেহলাম অনুষ্ঠান নিয়ে দেবর ও ননদদের সঙ্গে ঝগড়া হয়।  বিষয়টি সেলিনা প্রবাসী স্বামীর কাছে বিচার দেন। এতে সমাধান না পেলে জহিরের সঙ্গে ঝগড়া হয় সেলিনার। এক পর্যায়ে কক্ষের দরজা বন্ধ করে শিশু ছেলেকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে নিজেই জানালার গ্রিলের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

রায়পুর থানা পুলিশের এসআই মো. জাহাঙ্গির হোসেন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 

তিনি জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়পুর থানা থেকে সদর হাসপাতাল মর্গের উদ্দেশে নেওয়া হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন