গোপন বৈঠককালে জামায়াতের ১৮ নেতাকর্মী আটক
jugantor
গোপন বৈঠককালে জামায়াতের ১৮ নেতাকর্মী আটক

  শেরপুর প্রতিনিধি  

১৯ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৭:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

গোপন বৈঠককালে শেরপুরে ১৮ জামায়াত নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার বিকেলে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে শেরপুর টাউনের নারায়ণপুর বাগবাড়ীস্থ ‘দারুস শিফা’ নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে ওই নেতাকর্মীদের আটক করা হয়।

আটকরা হচ্ছেন, মানবতাবিরোদী অপরাধের দায়ে ফাঁসি কার্যকর হওয়া জামায়াতের শীর্ষ নেতা যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামানের কথিত সাবেক ড্রাইভার শেরপুর সদর উপজেলার গাজীর খামার এলাকার ছোটন (৫০), জামায়াত নেতা আব্দুর রউফ (৪৮) ও গোলাম কিবরিয়া (৩৬) শেরপুর শেরপুর টাউনের বাগরাকসা মহল্লার রফিকুল ইসলাম (৪০) সজবরখিলা মহল্লার সামস উদ্দিন (৬০), আনিসুর রহমান (৫০) ও শফিকুল ইসলাম (৫২), কান্দাপাড়া মহল্লার বুলবুল আহম্মেদ (৫৫), দিঘারপাড় মহল্লার আব্দুল মোনাফ খান (৪৮),ঝিনাইগাতী উপজেলার আব্দুল বারীর ছেলে আব্দুর রউফ (৪০) ও শেরপুর সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের জঙ্গলদী গ্রামের গোলাম মোস্তফাসহ (৫৪) আরও ৭ জন।

তবে আটকদের দাবি, তারা ওই হাসপাতাল পরিচালনার সঙ্গে জড়িত। সেখানে রাষ্ট্র বা সরকার বিরোধী কোনো গোপন বৈঠক হচ্ছিল না।

এ ব্যাপারে আটক অভিযানে অংশ নেওয়া শেরপুর সদর থানার ওসি (তদন্ত) বন্দে আলী যুগান্তরকে জানান, এনএসআই এর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একটি প্রাইভেট হাসপাতাল থেকে ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদসহ তদন্ত চলছে। তাদের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

গোপন বৈঠককালে জামায়াতের ১৮ নেতাকর্মী আটক

 শেরপুর প্রতিনিধি 
১৯ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গোপন বৈঠককালে শেরপুরে ১৮ জামায়াত নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার বিকেলে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে শেরপুর টাউনের নারায়ণপুর বাগবাড়ীস্থ ‘দারুস শিফা’ নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে ওই নেতাকর্মীদের আটক করা হয়।

আটকরা হচ্ছেন, মানবতাবিরোদী অপরাধের দায়ে ফাঁসি কার্যকর হওয়া জামায়াতের শীর্ষ নেতা  যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামানের কথিত সাবেক ড্রাইভার শেরপুর সদর উপজেলার গাজীর খামার এলাকার ছোটন (৫০), জামায়াত নেতা আব্দুর রউফ (৪৮) ও গোলাম কিবরিয়া (৩৬) শেরপুর শেরপুর টাউনের বাগরাকসা মহল্লার রফিকুল ইসলাম (৪০) সজবরখিলা মহল্লার সামস উদ্দিন (৬০), আনিসুর রহমান (৫০) ও শফিকুল ইসলাম (৫২), কান্দাপাড়া মহল্লার বুলবুল আহম্মেদ (৫৫), দিঘারপাড় মহল্লার আব্দুল মোনাফ খান (৪৮),ঝিনাইগাতী উপজেলার আব্দুল বারীর ছেলে আব্দুর রউফ (৪০) ও শেরপুর সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের জঙ্গলদী গ্রামের গোলাম মোস্তফাসহ (৫৪)  আরও ৭ জন।

তবে আটকদের দাবি, তারা ওই হাসপাতাল পরিচালনার সঙ্গে জড়িত। সেখানে রাষ্ট্র বা সরকার বিরোধী কোনো গোপন বৈঠক হচ্ছিল না।

এ ব্যাপারে আটক অভিযানে অংশ নেওয়া শেরপুর সদর থানার ওসি (তদন্ত) বন্দে আলী যুগান্তরকে জানান, এনএসআই এর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একটি প্রাইভেট হাসপাতাল থেকে ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদসহ তদন্ত চলছে। তাদের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন