সাভারে ছেলের দায়ের কোপে প্রাণ গেল বাবার
jugantor
সাভারে ছেলের দায়ের কোপে প্রাণ গেল বাবার

  আশুলিয়া (ঢাকা) প্রতিনিধি  

১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৩:০৪:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কুপিয়ে হত্যা

সাভারের আশুলিয়ায় ছেলের দায়ের কোপে নুর মোহাম্মদ (৭০) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নের টেঙ্গুরী কোনাপাড়া ফকিরবাড়ি এলাকায় হারুন গেটে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নুর মোহাম্মদ আশুলিয়ার টেঙ্গুরী এলাকার মৃত মোবারক আলী মণ্ডলের ছেলে। হত্যাকারী আফাজ উদ্দিন (৪০) নিহত নুর মোহাম্মদের প্রথম পক্ষের স্ত্রীর সন্তান।

আশুলিয়া থানার এসআই কাউছার হামিদ জানান, দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে আফাজ উদ্দিনের মানসিক চিকিৎসা করে যাচ্ছে তার পরিবার। আফাজ মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তার বাবা নুর মোহাম্মদ প্রায় রাতেই তার পাশে ঘুমাতেন।

মঙ্গলবার রাতে নুর মোহাম্মদ ছেলে আফাজের কক্ষে বাড়ির দ্বিতীয় তলায় ঘুমাতে যান। কিন্তু ভোর রাতে আফাজ উদ্দিন দা দিয়ে তার বাবার গলার পেছনে আঘাত করে। এ সময় বৃদ্ধ নুর মোহাম্মদ চিৎকার দিলে পরিবারের অন্য সদস্যরা আফাজের ঘরে যায়। এ সময় আফাজ দ্রুত পালিয়ে যায়।

পরে পরিবারের লোকজন নুর মোহাম্মদকে রক্তাক্ত অবস্থায় সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আফাজ উদ্দিন যেহেতু মানসিক প্রতিবন্ধী, তাই তার পরিবার মামলা করতে চাচ্ছে না।

তবে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরামর্শে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাভারে ছেলের দায়ের কোপে প্রাণ গেল বাবার

 আশুলিয়া (ঢাকা) প্রতিনিধি 
১৯ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কুপিয়ে হত্যা
ফাইল ছবি

সাভারের আশুলিয়ায় ছেলের দায়ের কোপে নুর মোহাম্মদ (৭০) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নের টেঙ্গুরী কোনাপাড়া ফকিরবাড়ি এলাকায় হারুন গেটে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নুর মোহাম্মদ আশুলিয়ার টেঙ্গুরী এলাকার মৃত মোবারক আলী মণ্ডলের ছেলে। হত্যাকারী আফাজ উদ্দিন (৪০) নিহত নুর মোহাম্মদের প্রথম পক্ষের স্ত্রীর সন্তান।  

আশুলিয়া থানার এসআই কাউছার হামিদ জানান, দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে আফাজ উদ্দিনের মানসিক চিকিৎসা করে যাচ্ছে তার পরিবার। আফাজ মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তার বাবা নুর মোহাম্মদ প্রায় রাতেই তার পাশে ঘুমাতেন। 

মঙ্গলবার রাতে নুর মোহাম্মদ ছেলে আফাজের কক্ষে বাড়ির দ্বিতীয় তলায় ঘুমাতে যান। কিন্তু ভোর রাতে আফাজ উদ্দিন দা দিয়ে তার বাবার গলার পেছনে আঘাত করে। এ সময় বৃদ্ধ নুর মোহাম্মদ চিৎকার দিলে পরিবারের অন্য সদস্যরা আফাজের ঘরে যায়। এ সময় আফাজ দ্রুত পালিয়ে যায়।

পরে পরিবারের লোকজন নুর মোহাম্মদকে রক্তাক্ত অবস্থায় সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
 
নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আফাজ উদ্দিন যেহেতু মানসিক প্রতিবন্ধী, তাই তার পরিবার মামলা করতে চাচ্ছে না। 

তবে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরামর্শে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন