যুবলীগ কর্মীকে পিটিয়ে আহত করলেন বিএনপি নেতা
jugantor
যুবলীগ কর্মীকে পিটিয়ে আহত করলেন বিএনপি নেতা

  বাউফল দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৯ অক্টোবর ২০২১, ২২:৪৯:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির পিটিয়ে আহত করেছেন পৌর যুবলীগের কর্মী শুভ্র কুমার সাহা ওরফে কার্ত্তিককে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে পৌরশহরের কুন্ডপট্টি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

বিএনপি নেতা হুমায়ন কবির বাউফল পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

যুবলীগ কর্মী কার্ত্তিক বলেন, বিএনপি নেতা কবির সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। এর আগে কবির ও তার বাহিনী আমার ওপর হামলা করেছে। ওই ঘটনায় আমি থানায় মামলা করি। এরই জের ধরে কবির ও তার বাহিনী আমার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করায় কুন্ডপট্টি শাওন জুয়েলার্সের সামনে কবির ও তার ছেলে ইমাম হোসেনের নেতৃত্বে ৭-৮ জন সন্ত্রাসী লোহার পাইপ ও লাঠিসোটা নিয়ে আমার ওপর হামলা চালায়।

তিনি বলেন, আমার ডাকচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে বাউফল হাসপাতালে নিয়ে যান। বর্তমানে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ ব্যাপারে কার্ত্তিক বাউফল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে বিএনপি নেতা হুমায়ন কবির বলেন, কার্ত্তিক আমার ছোটভাই। তার সঙ্গে আমার কোনো বিরোধ নেই।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, এখন পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুবলীগ কর্মীকে পিটিয়ে আহত করলেন বিএনপি নেতা

 বাউফল দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৯ অক্টোবর ২০২১, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির পিটিয়ে আহত করেছেন পৌর যুবলীগের কর্মী শুভ্র কুমার সাহা ওরফে কার্ত্তিককে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে পৌরশহরের কুন্ডপট্টি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

বিএনপি নেতা হুমায়ন কবির বাউফল পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

যুবলীগ কর্মী কার্ত্তিক বলেন, বিএনপি নেতা কবির সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। এর আগে কবির ও তার বাহিনী আমার ওপর হামলা করেছে। ওই ঘটনায় আমি থানায় মামলা করি। এরই জের ধরে কবির ও তার বাহিনী আমার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করায় কুন্ডপট্টি শাওন জুয়েলার্সের সামনে কবির ও তার ছেলে ইমাম হোসেনের নেতৃত্বে ৭-৮ জন সন্ত্রাসী লোহার পাইপ ও লাঠিসোটা নিয়ে আমার ওপর হামলা চালায়।

তিনি বলেন, আমার ডাকচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে বাউফল হাসপাতালে নিয়ে যান। বর্তমানে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ ব্যাপারে কার্ত্তিক বাউফল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে বিএনপি নেতা হুমায়ন কবির বলেন, কার্ত্তিক আমার ছোটভাই। তার সঙ্গে আমার কোনো বিরোধ নেই।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, এখন পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন