কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাতে খুন করল ছাত্রলীগ কর্মী
jugantor
কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাতে খুন করল ছাত্রলীগ কর্মী

  সিলেট ব্যুরো  

২১ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৩:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা কলেজ গেটের একশ ফুট ভেতরে ছাত্রলীগ কর্মীর ছুরিকাঘাতে আরিফুল ইসলাম রাহাত (১৮) নামে এক কলেজছাত্র খুন হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

নিহত রাহাত দক্ষিণ সুরমা কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। তিনি দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ধরাধরপুর গ্রামের সুরমান আলীর পুত্র।

হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনায় অভিযুক্ত করা হয়েছে দক্ষিণ সুরমা কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী আরিফুল ইসলাম রাহাত সাদি নামের একজনকে। সাদিও একই কলেজের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি মোগলাবাজার থানার সিলাম এলাকায়।

নিহত রাহাতের চাচাত ভাই রাফি বলেন, আমার চাচাতো ভাই রাহাত প্রইভেট পড়তে যাবে। আমিও তার মোটরসাইকেলে ছিলাম। প্রাইভেটে যাওয়ার আগে এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে কলেজের ভেতর যায়। কলেজ থেকে বের হয়ে মূল গেটের অদূরে আসামাত্র সাদি নামের একজন পেছন থেকে অপর মোটরসাইকেলে করে এসে রাহাতকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি কামরুল হাসান তালুকদার হত্যাকাণ্ডের কথা যুগান্তরকে নিশ্চিত করে বলেন, কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড এখনই বলা যাচ্ছে না। আসামিকে গ্রেফতার করলে ক্লু বেরিয়ে আসবে।

এদিকে শিক্ষার্থী হত্যার ঘটনায়, আগামীকাল ২২ অক্টোবর থেকে আগামী ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত কলেজে পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে কলেজে পরীক্ষা চলবে।

হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনা তদন্তে কলেজ কর্তৃপক্ষ ৩ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। এ কমিটিকে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে বলেন, দুপুরে কলেজের মূল ফটকের ভেতরে এক শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। পরে ওই শিক্ষার্থী মারা যায়।

কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাতে খুন করল ছাত্রলীগ কর্মী

 সিলেট ব্যুরো 
২১ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা কলেজ গেটের একশ ফুট ভেতরে ছাত্রলীগ কর্মীর ছুরিকাঘাতে আরিফুল ইসলাম রাহাত (১৮) নামে এক কলেজছাত্র খুন হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

নিহত রাহাত দক্ষিণ সুরমা কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। তিনি দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ধরাধরপুর গ্রামের সুরমান আলীর পুত্র।

হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনায় অভিযুক্ত করা হয়েছে দক্ষিণ সুরমা কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী আরিফুল ইসলাম রাহাত সাদি নামের একজনকে। সাদিও একই কলেজের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি মোগলাবাজার থানার সিলাম এলাকায়।

নিহত রাহাতের চাচাত ভাই রাফি বলেন, আমার চাচাতো ভাই রাহাত প্রইভেট পড়তে যাবে। আমিও তার মোটরসাইকেলে ছিলাম। প্রাইভেটে যাওয়ার আগে এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে কলেজের ভেতর যায়। কলেজ থেকে বের হয়ে মূল গেটের অদূরে আসামাত্র সাদি নামের একজন পেছন থেকে অপর মোটরসাইকেলে করে এসে রাহাতকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি কামরুল হাসান তালুকদার হত্যাকাণ্ডের কথা যুগান্তরকে নিশ্চিত করে বলেন, কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড এখনই বলা যাচ্ছে না। আসামিকে গ্রেফতার করলে ক্লু বেরিয়ে আসবে।

এদিকে শিক্ষার্থী হত্যার ঘটনায়, আগামীকাল ২২ অক্টোবর থেকে আগামী ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত কলেজে পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে কলেজে পরীক্ষা চলবে।

হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনা তদন্তে কলেজ কর্তৃপক্ষ ৩ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। এ কমিটিকে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে বলেন, দুপুরে কলেজের মূল ফটকের ভেতরে এক শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। পরে ওই শিক্ষার্থী মারা যায়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন