শিক্ষিকার বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ
jugantor
শিক্ষিকার বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ

  মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪৭:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

হামলা

কুমিল্লার মুরাদনগরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে শাহনাজ বেগম নামে এক শিক্ষিকার বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। শাহনাজ বেগম সুবিলাচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা।

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার সুবিলাচর চেঙ্গাতলি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় শাহনাজ বেগমের পরিবারের ৫ সদস্য আহত হন।

এ ঘটনায় শিক্ষিকার দেবর আব্দুল কাদির বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় ৫ জনকে আসামি করে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত শিক্ষিকা শাহনাজ বেগমের পরিবারের সঙ্গে একই গ্রামের মৃত মুকবল সওদাগরের ছেলে আব্দুল রহমান (৪৪), আব্দুল করিম (৪২), কবির হোসেন (৩৪) ও মেহেদী বাবুদের (৩২) জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছিল।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার রাতে তাদের নেতৃত্বে সুবিলাচর গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে মো. ইমরান (২৫), একই গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৪৪), মৃত মুকবল হোসেনের ছেলে মুজিবুর রহমান, দৈলারচর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে নূরে আলম (২৮), পার্শ্ববর্তী তিতাস উপজেলার কলাকান্দি সামসু মিয়ার ছেলে মো. সোহাগসহ (২২) ১০-১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল হকিস্টিক, লোহার পাইপ, রাম দা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শাহনাজ বেগমের বসত বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। তাদের হামলায় ওই পরিবারের ৫ সদস্য গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মুরাদনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ সাদেকুর রহমান বলেন, মারামারির খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমরা তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

শিক্ষিকার বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ

 মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
২২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হামলা
প্রতীকী ছবি

কুমিল্লার মুরাদনগরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে শাহনাজ বেগম নামে এক শিক্ষিকার বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। শাহনাজ বেগম সুবিলাচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। 

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার সুবিলাচর চেঙ্গাতলি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় শাহনাজ বেগমের পরিবারের ৫ সদস্য আহত হন।

এ ঘটনায় শিক্ষিকার দেবর আব্দুল কাদির বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় ৫ জনকে আসামি করে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত শিক্ষিকা শাহনাজ বেগমের পরিবারের সঙ্গে একই গ্রামের মৃত মুকবল সওদাগরের ছেলে আব্দুল রহমান (৪৪), আব্দুল করিম (৪২), কবির হোসেন (৩৪) ও মেহেদী বাবুদের (৩২) জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছিল।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার রাতে তাদের নেতৃত্বে সুবিলাচর গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে মো. ইমরান (২৫), একই গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৪৪), মৃত মুকবল হোসেনের ছেলে মুজিবুর রহমান, দৈলারচর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে নূরে আলম (২৮), পার্শ্ববর্তী তিতাস উপজেলার কলাকান্দি সামসু মিয়ার ছেলে মো. সোহাগসহ (২২) ১০-১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল হকিস্টিক, লোহার পাইপ, রাম দা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শাহনাজ বেগমের বসত বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। তাদের হামলায় ওই পরিবারের ৫ সদস্য গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মুরাদনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। 

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ সাদেকুর রহমান বলেন, মারামারির খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমরা তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন