এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলেসহ বাবা-মা নিহত
jugantor
এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলেসহ বাবা-মা নিহত

  বাসাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

২৩ অক্টোবর ২০২১, ১০:১৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলেসহ বাবা-মা নিহত

টাঙ্গাইলে মোটরসাইকেলে রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে বাবা, মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ওই দম্পতির আরেক ছেলেও।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার হাতিলা রেলক্রসিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- স্বামী আজগর আলী (৩৫), তার স্ত্রী সারামণি (২৫) ও তাদের ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান (০৩)।

এ ঘটনায় আহত হয়েছে ওই দম্পতির অপর ছেলে আব্দুল্লাহ (৫)।

হতাহতরা জেলার বাসাইল উপজেলার ময়থা উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সম্প্রতি তারা সদর উপজেলার করটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় বসবাস করছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, সারামণি ও আজগর আলী তাদের দুই ছেলেকে নিয়ে মোটরসাইকেলে কোদালিয়া থেকে করটিয়া ফিরছিলেন। সদর উপজেলার হাতিলা রেলক্রসিং পাড় হওয়ার সময় কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে কাটা পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলেই সারামণি ও তার ছোট ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান মারা যান। এসময় আহত হন আজগর আলী ও তার বড় ছেলে আব্দুল্লাহ।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক রাজিব পাল চৌধুরী বলেন, হাসপাতালে দুজনকে আনা হয়েছিল। এদের মধ্যে আজগর আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে রাতে তিনি মারা যান। আর অপর এক শিশুকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা স্টেশন মাস্টার সোহেল খান বলেন, এ ঘটনার পরপরই লাশ তাদের স্বজনরা নিয়ে যায়।

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলেসহ বাবা-মা নিহত

 বাসাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
২৩ অক্টোবর ২০২১, ১০:১৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলেসহ বাবা-মা নিহত
ছবি: যুগান্তর

টাঙ্গাইলে মোটরসাইকেলে রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে বাবা, মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ওই দম্পতির আরেক ছেলেও।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার হাতিলা রেলক্রসিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- স্বামী আজগর আলী (৩৫), তার স্ত্রী সারামণি (২৫) ও তাদের ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান (০৩)।

এ ঘটনায় আহত হয়েছে ওই দম্পতির অপর ছেলে আব্দুল্লাহ (৫)।

হতাহতরা জেলার বাসাইল উপজেলার ময়থা উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সম্প্রতি তারা সদর উপজেলার করটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় বসবাস করছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, সারামণি ও আজগর আলী তাদের দুই ছেলেকে নিয়ে মোটরসাইকেলে কোদালিয়া থেকে করটিয়া ফিরছিলেন। সদর উপজেলার হাতিলা রেলক্রসিং পাড় হওয়ার সময় কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে কাটা পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলেই সারামণি ও তার ছোট ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান মারা যান। এসময় আহত হন আজগর আলী ও তার বড় ছেলে আব্দুল্লাহ।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক রাজিব পাল চৌধুরী বলেন, হাসপাতালে দুজনকে আনা হয়েছিল। এদের মধ্যে আজগর আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে রাতে তিনি মারা যান। আর অপর এক শিশুকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা স্টেশন মাস্টার সোহেল খান বলেন, এ ঘটনার পরপরই লাশ তাদের স্বজনরা নিয়ে যায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন