সাম্প্রদায়িক শক্তির বিষদাঁত ভেঙে ফেলার দাবি
jugantor
সাম্প্রদায়িক শক্তির বিষদাঁত ভেঙে ফেলার দাবি

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৫:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে শনিবার রাজশাহীতে বিক্ষোভ-সমাবেশ ও গণঅনশন পালিত হয়েছে। এসব কর্মসূচি থেকে এখনই দেশ থেকে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিষদাঁত উপড়ে ফেলার দাবি জানানো হয়েছে।

বক্তারা বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সরকার টানা তিন মেয়াদে রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকার পরও বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক শক্তির এমন ভয়ংকর কর্মকাণ্ড সংখ্যালঘুদের জন্য অত্যন্ত হতাশাজনক। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে এ ব্যাপারে সরকারকে এখনই কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

শনিবার সকাল ৯টায় নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ রাজশাহী জেলা ও মহানগর গণঅনশন কর্মসূচি শুরু করে। এতে একাত্মতা ঘোষণা করে যোগ দেয় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ, মহিলা ঐক্য পরিষদ, ছাত্র ঐক্য পরিষদ, ইসকন রাজশাহী ও রাজশাহীর সব পূজামণ্ডপের নেতারা। তারা গণঅবস্থান, গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের রাজশাহী মহানগরের সভাপতি ড. সুজিত সরকার। বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের জেলার সভাপতি অনিল সরকার, সাধারণ সম্পাদক অসিত কুমার ঘোষ, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, সহ-সভাপতি দেবাশীষ প্রামাণিক দেবু, অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, মহানগরের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ রণজিৎ সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জ্বল ঘোষ, নগর পূজা উদযাপনের সভাপতি অলোক কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক শরৎ চন্দ্র সরকার, জেলার সভাপতি অম্বর সরকার, সাধারণ সম্পাদক কাঞ্চন রায় চৌধুরী, নগর সহ-সভাপতি আনন্দ কুমার ঘোষ, গৌতম দাস, বিপন্ন কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক মৃদুল সাহা, ছাত্র ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুদ্র ধর, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদের সমন্বয়ক রনি সরকার, ইসকন রাজশাহী কেন্দ্রের অধ্যক্ষ রামেশ্বর দাস প্রমুখ। গণঅনশনের শুরুতেই খেলাঘরের শিল্পীরা গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন।

সাম্প্রদায়িক শক্তির বিষদাঁত ভেঙে ফেলার দাবি

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে শনিবার রাজশাহীতে বিক্ষোভ-সমাবেশ ও গণঅনশন পালিত হয়েছে। এসব কর্মসূচি থেকে এখনই দেশ থেকে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিষদাঁত উপড়ে ফেলার দাবি জানানো হয়েছে। 

বক্তারা বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সরকার টানা তিন মেয়াদে রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকার পরও বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক শক্তির এমন ভয়ংকর কর্মকাণ্ড সংখ্যালঘুদের জন্য অত্যন্ত হতাশাজনক। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে এ ব্যাপারে সরকারকে এখনই কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

শনিবার সকাল ৯টায় নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ রাজশাহী জেলা ও মহানগর গণঅনশন কর্মসূচি শুরু করে। এতে একাত্মতা ঘোষণা করে যোগ দেয় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ, মহিলা ঐক্য পরিষদ, ছাত্র ঐক্য পরিষদ, ইসকন রাজশাহী ও রাজশাহীর সব পূজামণ্ডপের নেতারা। তারা গণঅবস্থান, গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের রাজশাহী মহানগরের সভাপতি ড. সুজিত সরকার। বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের জেলার সভাপতি অনিল সরকার, সাধারণ সম্পাদক অসিত কুমার ঘোষ, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, সহ-সভাপতি দেবাশীষ প্রামাণিক দেবু, অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, মহানগরের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ রণজিৎ সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জ্বল ঘোষ, নগর পূজা উদযাপনের সভাপতি অলোক কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক শরৎ চন্দ্র সরকার, জেলার সভাপতি অম্বর সরকার, সাধারণ সম্পাদক কাঞ্চন রায় চৌধুরী, নগর সহ-সভাপতি আনন্দ কুমার ঘোষ, গৌতম দাস, বিপন্ন কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক মৃদুল সাহা, ছাত্র ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুদ্র ধর, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদের সমন্বয়ক রনি সরকার, ইসকন রাজশাহী কেন্দ্রের অধ্যক্ষ রামেশ্বর দাস প্রমুখ। গণঅনশনের শুরুতেই খেলাঘরের শিল্পীরা গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন