বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ছাত্রলীগ কর্মী আহত
jugantor
বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ছাত্রলীগ কর্মী আহত

  নাসিরনগরে (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি  

২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৫৪:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ফেসবুকের স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে এক ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন। শনিবার সকালে উপজেলা সদরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন আহমেদ গুরুতর আহত হন। একই দিন দুপুরে আবারো সংঘর্ষ হলে নাসিরনগর কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী মনিরকে পিটিয়ে আহত করে মইনের পক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় উপজেলা সদরের সর্বত্র উত্তেজনা বিরাজ করছে।

আহত ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন আহমেদ নাসিরনগর উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নের বুড়িশ্বর গ্রামের মো. রমজান আলীর ছেলে। নাসিরনগর কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী মনির নাসিরনগর উপজেলা সদরের পশ্চিমপাড়ার আজগর আলীর ছেলে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার উপজেলার পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তির জন্য মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। ওই রাতেই মিলাদের ছবিসহ উপস্থিত কয়েকজন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন আহমেদ। স্ট্যাটাসে উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল আল মামুন উপস্থিত আছে উল্লেখ করায় ফেসবুকে দুজনের মধ্যে তর্কবির্তক হয়।

পরের দিন শনিবার সকালে উপজেলার সোনালী ব্যাংকের সামনে মইনকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে মামুন। এ ঘটনা মইনের গ্রামের বাড়ি বুড়িশ্বর ইউনিয়নের বুড়িশ্বর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে মইনের পক্ষের লোকজন নাসিরনগর উপজেলা সদরে এসে মহড়া দেয়। সে সময় মামুনের বাড়ির পাশের ছাত্রলীগ কর্মী মনিরকে সামনে পেয়ে পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা মনিরকে উদ্ধার করে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল আল মামুন দাবি করেন, আমি বিএনপির কোনো মিলাদে যায়নি। মসজিদে নামাজে গেছি কিন্তু মইন আমার ছবিসহ নাম উল্লেখ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়।

এদিকে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন সংঘর্ষে গুরুতর অসুস্থ থাকায় তার সঙ্গে কথা বলা যায়নি।

নাসিরনগর সরকারি কলেজ শাখার ছাত্রলীগের আহবায়ক তমাল মিঞা বলেন, মনির আমাদের কলেজ ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য। সে ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মারামারির সঙ্গে জড়িত না। তারপরও তাকে কেন মারধর করা হলো সে বিষয়ে আমরা আইনগত পদক্ষেপ নেব।

বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ছাত্রলীগ কর্মী আহত

 নাসিরনগরে (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি 
২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ফেসবুকের স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে বিএনপির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে এক ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছেন। শনিবার সকালে উপজেলা সদরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন আহমেদ গুরুতর আহত হন। একই দিন দুপুরে আবারো সংঘর্ষ হলে নাসিরনগর কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী মনিরকে পিটিয়ে আহত করে মইনের পক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় উপজেলা সদরের সর্বত্র উত্তেজনা বিরাজ করছে।

আহত ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন আহমেদ নাসিরনগর উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নের বুড়িশ্বর গ্রামের মো. রমজান আলীর ছেলে। নাসিরনগর কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী মনির নাসিরনগর উপজেলা সদরের পশ্চিমপাড়ার আজগর আলীর ছেলে। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার উপজেলার পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তির জন্য মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। ওই রাতেই মিলাদের ছবিসহ উপস্থিত কয়েকজন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন আহমেদ। স্ট্যাটাসে উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল আল মামুন উপস্থিত আছে উল্লেখ করায় ফেসবুকে দুজনের মধ্যে তর্কবির্তক হয়। 

পরের দিন শনিবার সকালে উপজেলার সোনালী ব্যাংকের সামনে মইনকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে মামুন। এ ঘটনা মইনের গ্রামের বাড়ি বুড়িশ্বর ইউনিয়নের বুড়িশ্বর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে মইনের পক্ষের লোকজন নাসিরনগর উপজেলা সদরে এসে মহড়া দেয়। সে সময় মামুনের বাড়ির পাশের ছাত্রলীগ কর্মী মনিরকে সামনে পেয়ে পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা মনিরকে উদ্ধার করে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল আল মামুন দাবি করেন, আমি বিএনপির কোনো মিলাদে যায়নি। মসজিদে নামাজে গেছি কিন্তু মইন আমার ছবিসহ নাম উল্লেখ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়।

এদিকে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মইন সংঘর্ষে গুরুতর অসুস্থ থাকায় তার সঙ্গে কথা বলা যায়নি।

নাসিরনগর সরকারি কলেজ শাখার ছাত্রলীগের আহবায়ক তমাল মিঞা বলেন, মনির আমাদের কলেজ ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য। সে ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মারামারির সঙ্গে জড়িত না। তারপরও তাকে কেন মারধর করা হলো সে বিষয়ে আমরা আইনগত পদক্ষেপ নেব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন