দোকান থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে ছুরিকাঘাত
jugantor
দোকান থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে ছুরিকাঘাত

  বাউফল ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪৩:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ছুরিকাঘাত

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় চায়ের দোকান থেকে ডেকে নিয়ে সুমন মুন্সি (৩২) নামে এক যুবককে ছুরিকাঘাত করে জখম করা হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার ধুলিয়া ইউনিয়নের ঘুরচাকাঠি গ্রামের তালতলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় সুমন মুন্সিকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সুমন মুন্সি একই এলাকার বাসিন্দা। তিনি পেশায় গ্রাম্য পশু চিকিৎসক।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সুমন মুন্সি তালতলা বাজারে জাহাঙ্গীর সর্দারের দোকানে বসে চা পান করছিলেন। এ সময় এক যুবক এসে তাকে ডেকে নিয়ে পেটের দুই পাশে চাকু ঢুকিয়ে দেয়। একপর্যায়ে সুমনকে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে ওই যুবক পালিয়ে যায়।

সুমনের আর্তচিৎকারে বাজারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

সুমন মুন্সির চাচা রিপন মুন্সি বলেন, বাপ্পি নামে এক যুবক সুমনকে ডেকে নিয়ে চাকু দিয়ে জখম করেছে। বাপ্পির সঙ্গে তার কোনো বিরোধ আছে কিনা তা তিনি জানাতে পারেননি।

সুমন মুন্সির স্ত্রী উর্মী আক্তার সুখী বলেন, আমার স্বামীর সঙ্গে কারও বিরোধ নেই। তাকে কি কারণে ছুরিকাহত করা হয়েছে তা জানি না।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বাপ্পিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

দোকান থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে ছুরিকাঘাত

 বাউফল ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছুরিকাঘাত
ফাইল ছবি

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় চায়ের দোকান থেকে ডেকে নিয়ে সুমন মুন্সি (৩২) নামে  এক যুবককে ছুরিকাঘাত করে জখম করা হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার ধুলিয়া ইউনিয়নের ঘুরচাকাঠি গ্রামের তালতলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় সুমন মুন্সিকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সুমন মুন্সি একই এলাকার বাসিন্দা। তিনি পেশায় গ্রাম্য পশু চিকিৎসক।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সুমন মুন্সি তালতলা বাজারে জাহাঙ্গীর সর্দারের দোকানে বসে চা পান করছিলেন। এ সময় এক যুবক এসে তাকে ডেকে নিয়ে পেটের দুই পাশে চাকু ঢুকিয়ে দেয়। একপর্যায়ে সুমনকে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে ওই যুবক পালিয়ে যায়।

সুমনের আর্তচিৎকারে বাজারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

সুমন মুন্সির চাচা রিপন মুন্সি বলেন, বাপ্পি নামে এক যুবক সুমনকে ডেকে নিয়ে চাকু দিয়ে জখম করেছে। বাপ্পির সঙ্গে তার কোনো বিরোধ আছে কিনা তা তিনি জানাতে পারেননি।

সুমন মুন্সির স্ত্রী উর্মী আক্তার সুখী বলেন, আমার স্বামীর সঙ্গে কারও বিরোধ নেই। তাকে কি কারণে ছুরিকাহত করা হয়েছে তা জানি না।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বাপ্পিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন