চৌমুহনীতে হামলা: সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪
jugantor
চৌমুহনীতে হামলা: সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৩:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

চৌমুহনীতে হামলা: সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪

নোয়াখালীর চৌমুহনী উপজেলায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ আরও চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সেনবাগ উপজেলার সেবারহাট থেকে ওই ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ছাড়া বেগমগঞ্জ থেকে গ্রেফতার তিন আসামিকে একই দিন বিকালে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো— সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা হারুন অর রশীদ, বেগমগঞ্জের কালিকাপুর গ্রামের মৃত হাজী মফিজ উল্যার ছেলে মো. আনোয়ারুল ইসলাম (২৯), আলীপুর গ্রামের মৃত আবুল খায়েরের ছেলে মো. আবু তালেব (৪৭), হাজীপুর গ্রামের মৃত সৈয়দ আহম্মদের ছেলে মো. ফরহাদ (২৭)।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বেগমগঞ্জ থানা এলাকায় পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে রোববার বেগমগঞ্জ উপজেলা থেকে আরও তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে একই দিন বিকালে তিন আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

অপরদিকে সেনবাগ থানার ওসি মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, চৌমুহনীতে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জামায়াত নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার রাতে তাকে উপজেলার সেবারহাট থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি আরও জানান, সোমবার সকালে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

চৌমুহনীতে হামলা: সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চৌমুহনীতে হামলা: সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর চৌমুহনী উপজেলায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ আরও চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সেনবাগ উপজেলার সেবারহাট থেকে ওই ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ছাড়া বেগমগঞ্জ থেকে গ্রেফতার তিন আসামিকে একই দিন বিকালে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

গ্রেফতারকৃতরা হলো— সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা হারুন অর রশীদ, বেগমগঞ্জের কালিকাপুর গ্রামের মৃত হাজী মফিজ উল্যার ছেলে মো. আনোয়ারুল ইসলাম (২৯), আলীপুর গ্রামের মৃত আবুল খায়েরের ছেলে মো. আবু তালেব (৪৭), হাজীপুর গ্রামের মৃত সৈয়দ আহম্মদের ছেলে মো. ফরহাদ (২৭)।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বেগমগঞ্জ থানা এলাকায় পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে রোববার বেগমগঞ্জ উপজেলা থেকে আরও তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে একই দিন বিকালে তিন আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। 

অপরদিকে সেনবাগ থানার ওসি মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, চৌমুহনীতে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জামায়াত নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার রাতে তাকে উপজেলার সেবারহাট থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি আরও জানান, সোমবার সকালে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন