স্ত্রীকে আনতে যাওয়ার পথে যুবকের আত্মহত্যা!
jugantor
স্ত্রীকে আনতে যাওয়ার পথে যুবকের আত্মহত্যা!

  ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি  

২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৬:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে রহস্যজনকভাবে মোশাররফ হোসেন লিমন (২২) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ওই যুবক স্ত্রীকে আনতে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার সময় পথিমধ্যে একটি চাতালে বিষপান করেন বলে স্থানীয় সূত্র দাবি করে।

সেখানে অজ্ঞান হয়ে পড়লে স্থানীয়রা তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে খবর দেন। প্রথমে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তিনি উপজেলার পশ্চিম ফুলমতি গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে।

এ ঘটনায় পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানায় নিয়ে আসে। মঙ্গলবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় দেড় বছর পূর্বে মোশাররফ হোসেন লিমনের সাথে পার্শ্ববর্তী উপজেলা সদরের পানিমাছকুটি কাশিয়াবাড়ী এলাকার আশরাফুল আলমের মেয়ে রাশিদা খাতুনের বিয়ে হয়। এক সপ্তাহ পূর্বে লিমন স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতে রেখে আসেন। সোমবার রাত ৮টার দিকে রাতের খাবার খেয়ে স্ত্রীকে আনতে শ্বশুরবাড়ির পথে মোটরসাইকেলযোগে রওনা দেন। রাত পৌনে ১১টার দিকে শ্বশুরবাড়ি থেকে একশ গজ দূরে ফুলবাড়ী-বালাহাট সড়কে পানিমাছকুটি নামক এলাকায় একটি চাতালে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া যায়।

মোশাররফ হোসেন লিমনের স্ত্রী রাশিদা খাতুন জানান, স্থানীয়রা একটি চাতালে তার স্বামীকে অজ্ঞান অবস্থায় পেয়ে তাদের পরিবারে খবর পাঠান। আমরা দ্রুত চাতাল থেকে স্বামীকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করি।

লিমনের ভাই গোলাম মোস্তফা জানান, রাত ১১টার দিকে রাশিদার ফোন পেয়ে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ছুটে যাই। গিয়ে জানতে পারি আমার ভাই বিষপান করে অসুস্থ হওয়ায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে অবস্থার অবনতি হওয়ায় কাউনিয়ায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে তিনি দাবি করেন তার ভাইয়ের মৃত্যুটা রহস্যজনক। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা ছিল না।

ফুলবাড়ী থানার ওসি রাজীব কুমার রায় নিশ্চিত করে জানান, যুবকের লাশ উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানায় আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে। লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্ত্রীকে আনতে যাওয়ার পথে যুবকের আত্মহত্যা!

 ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি 
২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে রহস্যজনকভাবে মোশাররফ হোসেন লিমন (২২) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ওই যুবক স্ত্রীকে আনতে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার সময় পথিমধ্যে একটি চাতালে বিষপান করেন বলে স্থানীয় সূত্র দাবি করে।

সেখানে অজ্ঞান হয়ে পড়লে স্থানীয়রা তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে খবর দেন। প্রথমে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তিনি উপজেলার পশ্চিম ফুলমতি গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে।

এ ঘটনায় পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানায় নিয়ে আসে। মঙ্গলবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় দেড় বছর পূর্বে মোশাররফ হোসেন লিমনের সাথে পার্শ্ববর্তী উপজেলা সদরের পানিমাছকুটি কাশিয়াবাড়ী এলাকার আশরাফুল আলমের মেয়ে রাশিদা খাতুনের বিয়ে হয়। এক সপ্তাহ পূর্বে লিমন স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতে রেখে আসেন। সোমবার রাত ৮টার দিকে রাতের খাবার খেয়ে স্ত্রীকে আনতে শ্বশুরবাড়ির পথে মোটরসাইকেলযোগে রওনা দেন। রাত পৌনে ১১টার দিকে শ্বশুরবাড়ি থেকে একশ গজ দূরে ফুলবাড়ী-বালাহাট সড়কে পানিমাছকুটি নামক এলাকায় একটি চাতালে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় পাওয়া যায়।

মোশাররফ হোসেন লিমনের স্ত্রী রাশিদা খাতুন জানান, স্থানীয়রা একটি চাতালে তার স্বামীকে অজ্ঞান অবস্থায় পেয়ে তাদের পরিবারে খবর পাঠান। আমরা দ্রুত চাতাল থেকে স্বামীকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করি।

লিমনের ভাই গোলাম মোস্তফা জানান, রাত ১১টার দিকে রাশিদার ফোন পেয়ে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ছুটে যাই। গিয়ে জানতে পারি আমার ভাই বিষপান করে অসুস্থ হওয়ায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে অবস্থার অবনতি হওয়ায় কাউনিয়ায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে তিনি দাবি করেন তার ভাইয়ের মৃত্যুটা রহস্যজনক। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা ছিল না।

ফুলবাড়ী থানার ওসি রাজীব কুমার রায় নিশ্চিত করে জানান, যুবকের লাশ উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানায় আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে। লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন