রংপুর মেডিকেলে দুই মাথা নিয়ে শিশুর জন্ম
jugantor
রংপুর মেডিকেলে দুই মাথা নিয়ে শিশুর জন্ম

  রংপুর ব্যুরো  

২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৬:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই মাথা নিয়ে একটি শিশু জন্ম নিয়েছে। সোমবার রাত ৮টার দিকে শিশুটির জন্ম হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার মোগলবাসা ইউনিয়নে সেকেন্দার-আফরোজা দম্পতির কোলে সিজারের মাধ্যমে দুই মাথাবিশিষ্ট এক নবজাতকের জন্ম হয়েছে। ওই দম্পতি মোগলবাসা ইউনিয়নের ব্যাপারীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

শিশুটির বাবা সেকেন্দার আলী জানান, কুড়িগ্রামে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা করে জানতে পারি তার গর্ভে দুই মাথাবিশিষ্ট একটি সন্তান রয়েছে। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী শনিবার সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসি। সেখানে সিজারের মাধ্যমে দুই মাথাবিশিষ্ট নবজাতক শিশুটির জন্ম হয়। নবজাতক ও তার মা সুস্থ রয়েছে।

শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. আল আমিন মাসুদ বলেন, কনজয়েন টুইন এর কারণে এমন বাচ্চা ভূমিষ্ঠ হয়। কেননা মায়ের পেটে ভ্রূণ অনেক সময় বৃদ্ধি হওয়ার কারণে তা আলাদা হতে পারে না। এ কারণে গর্ভে দেহ এক থাকলেও মাথা আলাদা হয়। এ বাচ্চাগুলোর জন্য জটিল অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হয়। কিন্তু এ পরিবারটি সামান্য মুদি দোকানদার; তাদের পক্ষে এ ধরনের ব্যয়ভার বহন করা সম্ভব হবে না। তবে আমাদের সাধ্যমতো আমরা চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি।

রংপুর মেডিকেলে দুই মাথা নিয়ে শিশুর জন্ম

 রংপুর ব্যুরো 
২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই মাথা নিয়ে একটি শিশু জন্ম নিয়েছে। সোমবার রাত ৮টার দিকে শিশুটির জন্ম হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার মোগলবাসা ইউনিয়নে সেকেন্দার-আফরোজা দম্পতির কোলে সিজারের মাধ্যমে দুই মাথাবিশিষ্ট এক নবজাতকের জন্ম হয়েছে। ওই দম্পতি মোগলবাসা ইউনিয়নের ব্যাপারীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

শিশুটির বাবা সেকেন্দার আলী জানান, কুড়িগ্রামে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা করে জানতে পারি তার গর্ভে দুই মাথাবিশিষ্ট একটি সন্তান রয়েছে। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী শনিবার সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসি। সেখানে সিজারের মাধ্যমে দুই মাথাবিশিষ্ট নবজাতক শিশুটির জন্ম হয়। নবজাতক ও তার মা সুস্থ রয়েছে।

শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. আল আমিন মাসুদ বলেন, কনজয়েন টুইন এর কারণে এমন বাচ্চা ভূমিষ্ঠ হয়। কেননা মায়ের পেটে ভ্রূণ অনেক সময় বৃদ্ধি হওয়ার কারণে তা আলাদা হতে পারে না। এ কারণে গর্ভে দেহ এক থাকলেও মাথা আলাদা হয়। এ বাচ্চাগুলোর জন্য জটিল অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হয়। কিন্তু এ পরিবারটি সামান্য মুদি দোকানদার; তাদের পক্ষে এ ধরনের ব্যয়ভার বহন করা সম্ভব হবে না। তবে আমাদের সাধ্যমতো আমরা চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন