যুবদল নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক
jugantor
যুবদল নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

  সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি  

২৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৩:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালনকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে যুবদল নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষের সময় পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারষেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সকালে জাতীয়তাবাদী যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরের ইবি রোডের বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে কর্মসূচি পালনের চেষ্টা করলে পুলিশ অফিসের ভিতর কর্মসূচি পালনের জন্য বলে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। দ্রুত এ সংঘর্ষ শহরের ইবি রোড, ইসলামিয়া কলেজ রোড, নগরদ্বীপপুল এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু বলেন, যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আমাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ চলছিল। এ সমাবেশে পুলিশ নগ্নভাবে হামলা করে। এতে তার দলের কমপক্ষে ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে পৌর যুবদলের সদস্য আব্দুল মতিনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে এবং রুবেল নামে এক যুবদল নেতাকে পুলিশ আটক করেছে।

সদর থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ করার কথা ছিল যুবদলের। কিন্তু সমাবেশে লোক জড়ো হলে সেটি আর শান্তিপূর্ণ থাকে না। বিষয়টি বলতে গেলে যুবদল নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পুলিশের উপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে।

তিনি বলেন, একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপে পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলামসহ দুজন আহত হন। পরে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলেও জানান ওসি।

যুবদল নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

 সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি 
২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালনকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে যুবদল নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষের সময় পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারষেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সকালে জাতীয়তাবাদী যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরের ইবি রোডের বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে কর্মসূচি পালনের চেষ্টা করলে পুলিশ অফিসের ভিতর কর্মসূচি পালনের জন্য বলে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। দ্রুত এ সংঘর্ষ শহরের ইবি রোড, ইসলামিয়া কলেজ রোড, নগরদ্বীপপুল এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু বলেন, যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আমাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ চলছিল। এ সমাবেশে পুলিশ নগ্নভাবে হামলা করে। এতে তার দলের কমপক্ষে ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে পৌর যুবদলের সদস্য আব্দুল মতিনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে এবং রুবেল নামে এক যুবদল নেতাকে পুলিশ আটক করেছে।

সদর থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ করার কথা ছিল যুবদলের। কিন্তু সমাবেশে লোক জড়ো হলে সেটি আর শান্তিপূর্ণ থাকে না। বিষয়টি বলতে গেলে যুবদল নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পুলিশের উপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে।

তিনি বলেন, একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপে পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলামসহ দুজন আহত হন। পরে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলেও জানান ওসি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন