নৌকার প্রার্থীকে শোকজ
jugantor
নৌকার প্রার্থীকে শোকজ

  ফরিদপুর ব্যুরো  

২৮ অক্টোবর ২০২১, ২০:১৭:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ফরিদপুরের নগরকান্দায় নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীকে শোকজ করেছেন রিটার্নিং অফিসার। বৃহস্পতিবার সকালে রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার স্বাক্ষরিত চিঠি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কাজী আবুল কালামকে শোকজ করেছেন ওই ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার। বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর তিনি এই শোকজের চিঠি পৌঁছে দেন।

চিঠিতে শেখ তানভীর আখতার উল্লেখ করেন, বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ডাঙ্গী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে মুষ্টিমেয় লোকজনকে আপনার নির্বাচনী প্রচারণায় দেখা গেছে। উক্ত মিছিলের কারণে অ্যাম্বুলেন্সসহ যানবাহনের চলাচল বিঘ্নিত হয় এবং ডাঙ্গী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ভীতসন্ত্রস্ত অবস্থার সৃষ্টি হয়। ইতোপূর্বে আপনাকে মৌখিকভাবে সতর্ক করা সত্ত্বেও আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন।

পত্রে আরও উল্লেখ রয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নির্বাচন আচরণ বিধিমালা বহির্ভূত কর্মকাণ্ডের যথাযথ কারণ ব্যাখ্যা করার জন্য বলা হলো। যদি ব্যাখ্যা সন্তোষজনক না হয় তাহলে ইউনিয়ন পরিষদ আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অভিযোগকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী মুরাদ হোসেন বলেন, বুধবার সন্ধ্যার পর কাজী আবুল কালামের শতাধিক সমর্থক লাঠিসোটাসহ মিছিল নিয়ে বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। এতে এলাকার সাধারণ ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে প্রশাসনকে তথ্য প্রমাণসহ অবগত করা হয়েছে।

অভিযুক্ত প্রার্থী কাজী আবুল কালাম বলেন, আমার কিছু সমর্থক বৈঠা হাতে মিছিল করেছে বলে জানতে পেরেছি। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে আমি তাদের নিষেধও করেছি।

নৌকার প্রার্থীকে শোকজ

 ফরিদপুর ব্যুরো 
২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ফরিদপুরের নগরকান্দায় নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীকে শোকজ করেছেন রিটার্নিং অফিসার। বৃহস্পতিবার সকালে রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার স্বাক্ষরিত চিঠি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কাজী আবুল কালামকে শোকজ করেছেন ওই ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার। বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর তিনি এই শোকজের চিঠি পৌঁছে দেন।

চিঠিতে শেখ তানভীর আখতার উল্লেখ করেন, বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ডাঙ্গী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে মুষ্টিমেয় লোকজনকে আপনার নির্বাচনী প্রচারণায় দেখা গেছে। উক্ত মিছিলের কারণে অ্যাম্বুলেন্সসহ যানবাহনের চলাচল বিঘ্নিত হয় এবং ডাঙ্গী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ভীতসন্ত্রস্ত অবস্থার সৃষ্টি হয়। ইতোপূর্বে আপনাকে মৌখিকভাবে সতর্ক করা সত্ত্বেও আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন।

পত্রে আরও উল্লেখ রয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নির্বাচন আচরণ বিধিমালা বহির্ভূত কর্মকাণ্ডের যথাযথ কারণ ব্যাখ্যা করার জন্য বলা হলো। যদি ব্যাখ্যা সন্তোষজনক না হয় তাহলে ইউনিয়ন পরিষদ আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অভিযোগকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী মুরাদ হোসেন বলেন, বুধবার সন্ধ্যার পর কাজী আবুল কালামের শতাধিক সমর্থক লাঠিসোটাসহ মিছিল নিয়ে বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। এতে এলাকার সাধারণ ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে প্রশাসনকে তথ্য প্রমাণসহ অবগত করা হয়েছে।

অভিযুক্ত প্রার্থী কাজী আবুল কালাম বলেন, আমার কিছু সমর্থক বৈঠা হাতে মিছিল করেছে বলে জানতে পেরেছি। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে আমি তাদের নিষেধও করেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন