ফলাফল উলটে দেওয়ার আশঙ্কা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীদের
jugantor
ফলাফল উলটে দেওয়ার আশঙ্কা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীদের

  মাগুরা প্রতিনিধি  

০২ নভেম্বর ২০২১, ১৮:২২:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরায় ইউপি নির্বাচনে কারচুপি, ফলাফল উলটে দেয়া, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও সহিংসতার আশঙ্কায় পর্যাপ্ত র‌্যাব বিজিবি মোতায়েনের দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।

১১ নভেম্বর মাগুরায় সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন নির্বাচনকে সামনে রেখে মঙ্গলবার সদর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা নির্বাচন অফিসের উদ্যোগে নির্বাচন আচরণবিধি প্রতিপালন, আইনশৃঙ্খলা ও সমন্বয় সভায় উপস্থিত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা এসব অভিযোগ করেন।

মাগুরা আছাদুজ্জামান মিলনায়তনে জেলা নির্বাচন অফিসার অলিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল হাসান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসিন কবীরসহ অন্যরা।

অতিথিদের বক্তব্যের পর উপস্থিত বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান মেম্বর প্রার্থীরা সরকারদলীয় প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উত্থাপনের পাশাপাশি নির্বাচন সুষ্ঠুর দাবি জানান।

মাগুরা সদর উপজেলা মঘি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ কর্মী মিজানুর রহমান মনজু অভিযোগ করেন, তার কর্মী-সমর্থকদের ওপর আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মীরা মারধর করে নির্বাচনী কর্মকাণ্ড চালাতে দিচ্ছে না।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বেরইল পলিতা ইউনিয়নের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী এনামুল হক রাজা ভোটের ফলাফল উলটে দেওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করে ভোটের দিন নির্দিষ্ট সংখ্যক ব্যালট পেপার রাখার পাশাপাশি প্রিসাইডিং অফিসারদের নিরাপত্তা বিধানের দাবি জানান।

সদর উপজেলার শত্রুজিতপুর ইউনিয়নের বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের কর্মী সমর্থকদের ওপর অবর্ণনীয় নির্যাতন চালানো হচ্ছে। নির্বাচন নিরপেক্ষ করার স্বার্থে রাতের পরিবর্তে ব্যালট পেপার ও বাক্স ভোটের দিন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আশরাফুল আলম তার বক্তব্যে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

সভায় সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের ৩ শতাধিক চেয়ারম্যান মেম্বর প্রার্থী ও সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসাররা অংশ নেন।

ফলাফল উলটে দেওয়ার আশঙ্কা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীদের

 মাগুরা প্রতিনিধি 
০২ নভেম্বর ২০২১, ০৬:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরায় ইউপি নির্বাচনে কারচুপি, ফলাফল উলটে দেয়া, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও সহিংসতার আশঙ্কায় পর্যাপ্ত র‌্যাব বিজিবি মোতায়েনের দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।

১১ নভেম্বর মাগুরায় সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন নির্বাচনকে সামনে রেখে মঙ্গলবার সদর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা নির্বাচন অফিসের উদ্যোগে নির্বাচন আচরণবিধি প্রতিপালন, আইনশৃঙ্খলা ও সমন্বয় সভায় উপস্থিত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা এসব অভিযোগ করেন।

মাগুরা আছাদুজ্জামান মিলনায়তনে জেলা নির্বাচন অফিসার অলিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল হাসান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইয়াসিন কবীরসহ অন্যরা।

অতিথিদের বক্তব্যের পর উপস্থিত বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান মেম্বর প্রার্থীরা সরকারদলীয় প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উত্থাপনের পাশাপাশি নির্বাচন সুষ্ঠুর দাবি জানান।

মাগুরা সদর উপজেলা মঘি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ কর্মী মিজানুর রহমান মনজু অভিযোগ করেন, তার কর্মী-সমর্থকদের ওপর আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মীরা মারধর করে নির্বাচনী কর্মকাণ্ড চালাতে দিচ্ছে না।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বেরইল পলিতা ইউনিয়নের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী এনামুল হক রাজা ভোটের ফলাফল উলটে দেওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করে ভোটের দিন নির্দিষ্ট সংখ্যক ব্যালট পেপার রাখার পাশাপাশি প্রিসাইডিং অফিসারদের নিরাপত্তা বিধানের দাবি জানান। 

সদর উপজেলার শত্রুজিতপুর ইউনিয়নের বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের কর্মী সমর্থকদের ওপর অবর্ণনীয় নির্যাতন চালানো হচ্ছে। নির্বাচন নিরপেক্ষ করার স্বার্থে রাতের পরিবর্তে ব্যালট পেপার ও বাক্স ভোটের দিন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আশরাফুল আলম তার বক্তব্যে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

সভায় সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের ৩ শতাধিক চেয়ারম্যান মেম্বর প্রার্থী ও সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসাররা অংশ নেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন