বিয়ের প্রলোভনে সৌদি থেকে দেশে এনে তরুণীকে ধর্ষণ
jugantor
বিয়ের প্রলোভনে সৌদি থেকে দেশে এনে তরুণীকে ধর্ষণ

  মনপুরা (ভোলা) প্রতিনিধি  

০৬ নভেম্বর ২০২১, ১৯:৪১:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার মনপুরায় বিয়ের প্রলোভনে সৌদি প্রবাসী তরুণীকে দেশে এনে নিজ বাড়িতে ধর্ষণ করে মো. মামুন সুলতান নামে এক যুবক।

শনিবার সকালে এ ঘটনায় সৌদি প্রবাসী তরুণী বাদী হয়ে ওই যুবকের বিরুদ্ধে মনপুরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। পরে ওই দিনই পুলিশ প্রবাসী তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভোলা জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ধর্ষণের ঘটনাটি শুক্রবার সকাল ১০টায় উপজেলার ৩নং উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরগোয়ালিয়া গ্রামে ওই যুবকের বাড়িতে ঘটে।

ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত যুবক উপজেলার ৩নং উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরগোয়ালিয়া গ্রামের ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. মোতালেবের ছেলে মো. মামুন সুলতান (২৫)। ওই প্রবাসী তরুণীর বাড়িও একই উপজেলায়।

মামলার এজাহার ও ওই তরুণী সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে ওই তরুণীকে সৌদি থাকাকালীন মামুন মোবাইলে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। প্রবাসী তরুণী রাজি না হলে একপর্যায়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয় এবং সৌদি আরব থেকে দেশে চলে আসতে বলে। পরে ওই প্রবাসী তরুণী যুবকের বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হয়ে গত ২ আগস্ট বাংলাদেশে আসেন। তখন মামুন এয়ারপোর্ট থেকে রিসিভ করে ওই তরুণীকে আত্মীয়র বাড়িতে নিয়ে যাবে বলে হোটেলে নিয়ে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক করে।

এরপর থেকেই ওই যুবক বিয়ে নিয়ে টালবাহানা শুরু করে। পরে শুক্রবার সকাল ১০টায় বিয়ের ব্যাপারে কথা বলতে যুবকের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ফের ধর্ষণ করে ওই তরুণীকে। এ সময় ওই তরুণী চিৎকার দিলে মামুন পালিয়ে যায়। তখন মামুনের বাড়িতে কেউ ছিল না বলে জানান প্রবাসী তরুণী।

এ ঘটনায় মনপুরা থানার ওসি সাইদ আহমেদ জানান, সৌদি প্রবাসী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বিয়ের প্রলোভনে সৌদি থেকে দেশে এনে তরুণীকে ধর্ষণ

 মনপুরা (ভোলা) প্রতিনিধি 
০৬ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলার মনপুরায় বিয়ের প্রলোভনে সৌদি প্রবাসী তরুণীকে দেশে এনে নিজ বাড়িতে ধর্ষণ করে মো. মামুন সুলতান নামে এক যুবক। 

শনিবার সকালে এ ঘটনায় সৌদি প্রবাসী তরুণী বাদী হয়ে ওই যুবকের বিরুদ্ধে মনপুরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। পরে ওই দিনই পুলিশ প্রবাসী তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভোলা জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ধর্ষণের ঘটনাটি শুক্রবার সকাল ১০টায় উপজেলার ৩নং উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরগোয়ালিয়া গ্রামে ওই যুবকের বাড়িতে ঘটে। 

ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত যুবক উপজেলার ৩নং উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরগোয়ালিয়া গ্রামের ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. মোতালেবের ছেলে মো. মামুন সুলতান (২৫)। ওই প্রবাসী তরুণীর বাড়িও একই উপজেলায়।

মামলার এজাহার ও ওই তরুণী সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে ওই তরুণীকে সৌদি থাকাকালীন মামুন মোবাইলে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। প্রবাসী তরুণী রাজি না হলে একপর্যায়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয় এবং সৌদি আরব থেকে দেশে চলে আসতে বলে। পরে ওই প্রবাসী তরুণী যুবকের বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হয়ে গত ২ আগস্ট বাংলাদেশে আসেন। তখন মামুন এয়ারপোর্ট থেকে রিসিভ করে ওই তরুণীকে আত্মীয়র বাড়িতে নিয়ে যাবে বলে হোটেলে নিয়ে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক করে। 

এরপর থেকেই ওই যুবক বিয়ে নিয়ে টালবাহানা শুরু করে। পরে শুক্রবার সকাল ১০টায় বিয়ের ব্যাপারে কথা বলতে যুবকের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ফের ধর্ষণ করে ওই তরুণীকে। এ সময় ওই তরুণী চিৎকার দিলে মামুন পালিয়ে যায়। তখন মামুনের বাড়িতে কেউ ছিল না বলে জানান প্রবাসী তরুণী।

এ ঘটনায় মনপুরা থানার ওসি সাইদ আহমেদ জানান, সৌদি প্রবাসী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন