ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পরিবহণ শ্রমিকরাও
jugantor
ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পরিবহণ শ্রমিকরাও

  ময়মনসিংহ ব্যুরো  

০৭ নভেম্বর ২০২১, ১৬:৫০:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ময়মনসিংহেও টানা তৃতীয় দিনের মতো চলছে পরিবহণ ধর্মঘট। তিন দিনের টানা ধর্মঘটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো যাত্রীরা। আর এ ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবহণ শ্রমিকরাও।

পরিবহন মালিক শ্রমিকদের আকস্মিক ডাকা ধর্মঘটের কারণে নগরীর আন্ত:জেলা মাসকান্দা, পাটগুদাম ব্রিজের মোড় ও কাঁচিঝুলি টাঙ্গাইল বাসস্ট্যান্ড থেকে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি।

রোববার সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে যোগ দিতে অফিসগামী চাকরিজীবীরা বিপাকে পড়েছেন। অনেকেই কয়েকগুণ বেশি ভাড়ায় মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গন্তব্যে রওনা হন। কেউ কেউ ইজিবাইক, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মোটরবাইকের মতো বিকল্প পরিবহনে ভেঙ্গে ভেঙ্গে গন্তব্যে ছুটে যাচ্ছেন। এজন্য দুই থেকে তিনগুণের চেয়েও বেশি ভাড়া গুণতে হচ্ছে যাত্রীদেরকে।

জেলা মটর মালিক সমিতির মহাসচিব মাহবুবুর রহমান জানান, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে পরিবহণের ভাড়া সমন্বয় করা না হলে কিংবা জ্বালানির বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার না করলে ধর্মঘট চলবেই।

এদিকে পরিবহণ শ্রমিকরা বেকার হয়ে দুর্বিসহ জীবনযাপন করছেন। দৈনিক মজুরিভিত্তিক এসব শ্রমিকরা ধারদেনা করে চলছেন বলে জানান জানান।

চালক দেলোয়ার ও আজিজুল জানান, তিনদিন ধরে পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকায় তাদের রুটিরুজিও বন্ধ হয়ে গেছে। কোনো মালিক তাদের খোঁজখবর পর্যন্ত নিচ্ছেন না। অনেকেই কষ্টে দিনানিপাত করছেন বলেও জানান তারা।

ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পরিবহণ শ্রমিকরাও

 ময়মনসিংহ ব্যুরো 
০৭ নভেম্বর ২০২১, ০৪:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ময়মনসিংহেও টানা তৃতীয় দিনের মতো চলছে পরিবহণ ধর্মঘট। তিন দিনের টানা ধর্মঘটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো যাত্রীরা। আর এ ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবহণ শ্রমিকরাও।

পরিবহন মালিক শ্রমিকদের আকস্মিক ডাকা ধর্মঘটের কারণে নগরীর আন্ত:জেলা মাসকান্দা, পাটগুদাম ব্রিজের মোড় ও কাঁচিঝুলি টাঙ্গাইল বাসস্ট্যান্ড থেকে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি।

রোববার সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে যোগ দিতে অফিসগামী চাকরিজীবীরা বিপাকে পড়েছেন। অনেকেই কয়েকগুণ বেশি ভাড়ায় মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজিচালিত অটোরিকশায় গন্তব্যে রওনা হন। কেউ কেউ ইজিবাইক, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মোটরবাইকের মতো বিকল্প পরিবহনে ভেঙ্গে ভেঙ্গে গন্তব্যে ছুটে যাচ্ছেন। এজন্য দুই থেকে তিনগুণের চেয়েও বেশি ভাড়া গুণতে হচ্ছে যাত্রীদেরকে।

জেলা মটর মালিক সমিতির মহাসচিব মাহবুবুর রহমান জানান, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে পরিবহণের ভাড়া সমন্বয় করা না হলে কিংবা জ্বালানির বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার না করলে ধর্মঘট চলবেই।

এদিকে পরিবহণ শ্রমিকরা বেকার হয়ে দুর্বিসহ জীবনযাপন করছেন। দৈনিক মজুরিভিত্তিক এসব শ্রমিকরা ধারদেনা করে চলছেন বলে জানান জানান।

চালক দেলোয়ার ও আজিজুল জানান, তিনদিন ধরে পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকায় তাদের রুটিরুজিও বন্ধ হয়ে গেছে। কোনো মালিক তাদের খোঁজখবর পর্যন্ত নিচ্ছেন না। অনেকেই কষ্টে দিনানিপাত করছেন বলেও জানান তারা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন