১০০ টাকায় পুলিশে চাকরি পেলেন ৫০ জন
jugantor
১০০ টাকায় পুলিশে চাকরি পেলেন ৫০ জন

  চাঁদপুর প্রতিনিধি  

০৭ নভেম্বর ২০২১, ১৯:৪৩:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁদপুরে একশ টাকা ব্যাংক ড্রাফটে পুলিশে (ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে) ৫০ জন চাকরি পেয়েছেন। বিনা টাকায় চাকরি পেয়ে তাদের অনেকেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

এসব চূড়ান্ত প্রার্থীর অভিভাবকরা কখনো বিশ্বাসই করতে পারেননি তাদের সন্তানদের টাকা ছাড়া পুলিশে চাকরি হবে। স্বচ্ছতা ও সততার এ বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ।

শুধু তাই নয়, নিয়োগপ্রাপ্তদের সব ধরনের মেডিকেল চেকআপ পুলিশ হাসপাতাল থেকে বিনামূল্যে করার ব্যবস্থা করেন তিনি।

এ উপলক্ষে রোববার সকালে চাঁদপুর পুলিশ লাইনসে টিআরসি পদে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রাথমিকভাবে নির্বাচিতদের পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে নিয়োগ পরীক্ষায় নির্বাচিত ৫০ জন নারী ও পুরুষকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায়ের সভাপতিত্বে এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়াটার্স) মোহাম্মদ মঈনুল ইসলামের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- চাঁদপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, নিয়োগ পরীক্ষার দায়িত্বরত সিভিল সার্জন প্রতিনিধি ডা. মো. মাসুদ রানা প্রমুখ।

জানা যায়, সারা দেশের মতো চাঁদপুর জেলাতেও ২৭ অক্টোবর পুলিশের ‘ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে’ পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। এ পরীক্ষায় সর্বমোট ২ হাজার নারী-পুরুষ অংশ নেন। যার মধ্য থেকে প্রথম ধাপে ৪১৩ জন, দ্বিতীয় ধাপে ১২৯ জন এবং তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শেষে চূড়ান্তভাবে ৫০ জনকে নির্বাচন করা হয়। পুলিশকে আধুনিক ও মানবিক হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তারই অংশ হিসেবে বর্তমান আইজিপি প্রচেষ্টায় পুলিশের সব পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ার মানোন্নয়ন করা হয়েছে।

চাঁদপুরে পুলিশের মানোন্নয়ন ও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় ৫০ জন যোগ্য ব্যক্তি নিয়োগ পেয়েছেন। যাদের শুধুমাত্র একশ টাকা ব্যাংক ড্রাফট করতে হয়েছে। এছাড়া আর কোনো খরচ হয়নি। অবৈধ পন্থা কিংবা দালাল ধরতে হয়নি। এমন প্রতিক্রিয়া শোনা গেল কয়েকজন চাকরিপ্রার্থী ও তাদের বাবা-মায়ের কণ্ঠে।

১০০ টাকায় পুলিশে চাকরি পেলেন ৫০ জন

 চাঁদপুর প্রতিনিধি 
০৭ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁদপুরে একশ টাকা ব্যাংক ড্রাফটে পুলিশে (ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে) ৫০ জন চাকরি পেয়েছেন। বিনা টাকায় চাকরি পেয়ে তাদের অনেকেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

এসব চূড়ান্ত প্রার্থীর অভিভাবকরা কখনো বিশ্বাসই করতে পারেননি তাদের সন্তানদের টাকা ছাড়া পুলিশে চাকরি হবে। স্বচ্ছতা ও সততার এ বিরল দৃষ্টান্ত  স্থাপন করেছেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ।

শুধু তাই নয়, নিয়োগপ্রাপ্তদের সব ধরনের মেডিকেল চেকআপ পুলিশ হাসপাতাল থেকে বিনামূল্যে করার ব্যবস্থা করেন তিনি।

এ উপলক্ষে রোববার সকালে চাঁদপুর পুলিশ লাইনসে টিআরসি পদে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রাথমিকভাবে নির্বাচিতদের পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে নিয়োগ পরীক্ষায় নির্বাচিত ৫০ জন নারী ও পুরুষকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায়ের সভাপতিত্বে এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়াটার্স) মোহাম্মদ মঈনুল ইসলামের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- চাঁদপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, নিয়োগ পরীক্ষার দায়িত্বরত সিভিল সার্জন প্রতিনিধি ডা. মো. মাসুদ রানা প্রমুখ।

জানা যায়, সারা দেশের মতো চাঁদপুর জেলাতেও ২৭ অক্টোবর পুলিশের ‘ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে’ পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। এ পরীক্ষায় সর্বমোট ২ হাজার নারী-পুরুষ অংশ নেন। যার মধ্য থেকে প্রথম ধাপে ৪১৩ জন, দ্বিতীয় ধাপে ১২৯ জন এবং তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শেষে চূড়ান্তভাবে ৫০ জনকে নির্বাচন করা হয়। পুলিশকে আধুনিক ও মানবিক হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তারই অংশ হিসেবে বর্তমান আইজিপি প্রচেষ্টায় পুলিশের সব পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ার মানোন্নয়ন করা হয়েছে।

চাঁদপুরে পুলিশের মানোন্নয়ন ও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় ৫০ জন যোগ্য ব্যক্তি নিয়োগ পেয়েছেন। যাদের শুধুমাত্র একশ টাকা ব্যাংক ড্রাফট করতে হয়েছে। এছাড়া আর কোনো খরচ হয়নি। অবৈধ পন্থা কিংবা দালাল ধরতে হয়নি। এমন প্রতিক্রিয়া শোনা গেল  কয়েকজন চাকরিপ্রার্থী ও তাদের বাবা-মায়ের কণ্ঠে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন