নিখোঁজের ২ দিন পর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার
jugantor
নিখোঁজের ২ দিন পর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

  বাগেরহাট প্রতিনিধি  

০৭ নভেম্বর ২০২১, ২১:০৩:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাটের কচুয়ায় নিখোঁজের দুই দিন পর মেহেদী হাসান শেখ (২৫) নামের এক ফ্লেক্সিলোড ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার বেলা ১২টার দিকে কচুয়া উপজেলার চর টেংরাখালী এলাকার কাওছার শেখের কলাবাগান থেকে মেহেদীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

মেহেদীর একটি হাত বাঁধা ও গলার নিচে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে টেংরাখালী বাজারের দোকান থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি মেহেদী।

নিহত মেহেদী চর টেংরাখালী এলাকার মনিরুজ্জামান শেখের একমাত্র ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে মেহেদী হাসান অবিবাহিত ছিলেন। টেংরাখালী বাজারে মোবাইল রিচার্জ, কম্পিউটারসহ ইলেকট্রনিকস সামগ্রীর দোকান ছিল মেহেদীর।

মেহেদীর প্রতিবেশী জামাল শেখ বলেন, মেহেদীর দোকানের পাশে আমার দোকান রয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে দোকান থেকে বের হওয়ার পর থেকে মেহেদীর আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে মেহেদীর বাবা এক রকম পাগল প্রায় হয়ে পড়েছে।

কচুয়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে মেহেদীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি হত্যা করে মরদেহ এখানে ফেলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

নিখোঁজের ২ দিন পর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

 বাগেরহাট প্রতিনিধি 
০৭ নভেম্বর ২০২১, ০৯:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাটের কচুয়ায় নিখোঁজের দুই দিন পর মেহেদী হাসান শেখ (২৫) নামের এক ফ্লেক্সিলোড ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার বেলা ১২টার দিকে কচুয়া উপজেলার চর টেংরাখালী এলাকার কাওছার শেখের কলাবাগান থেকে মেহেদীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

মেহেদীর একটি হাত বাঁধা ও গলার নিচে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে টেংরাখালী বাজারের দোকান থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি মেহেদী।

নিহত মেহেদী চর টেংরাখালী এলাকার মনিরুজ্জামান শেখের একমাত্র ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে মেহেদী হাসান অবিবাহিত ছিলেন। টেংরাখালী বাজারে মোবাইল রিচার্জ, কম্পিউটারসহ ইলেকট্রনিকস সামগ্রীর দোকান ছিল মেহেদীর।

মেহেদীর প্রতিবেশী জামাল শেখ বলেন, মেহেদীর দোকানের পাশে আমার দোকান রয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে দোকান থেকে বের হওয়ার পর থেকে মেহেদীর আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে মেহেদীর বাবা এক রকম পাগল প্রায় হয়ে পড়েছে।

কচুয়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে মেহেদীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি হত্যা করে মরদেহ এখানে ফেলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন