নাঙ্গলকোটে গণপিটুনিতে ডাকাত নিহতের ঘটনায় আটক ৩
jugantor
নাঙ্গলকোটে গণপিটুনিতে ডাকাত নিহতের ঘটনায় আটক ৩

  নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

০৯ নভেম্বর ২০২১, ১৫:০১:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

আটক

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলায় গণপিটুনিতে ফয়েজ আহম্মদ (৪৫) নামে এক ডাকাত নিহতের ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার গভীর রাতে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী ও আকবরশাহ এলাকা থেকে পৃথক অভিযানে তাদের আটক করা হয়। নিহত ডাকাত ফয়েজ আহম্মদের বাড়ি চট্টগ্রামের চন্দনাইশ গ্রামে।

মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অটককৃতরা হলো— উপজেলার হিয়াজোড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩১) ও ভোলাইন গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে শাহিন ওরফে সাজু (২৯) এবং দাউদকান্দি উপজেলার জুরানপুর গ্রামের মৃত গোবর্দ্ধন চন্দ্র সাহার ছেলে রঞ্জন চন্দ্র সাহা (৩৫)।

জানা যায়, গত ৬ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য আব্দুস সাত্তারের ঘরের গ্রিল কেটে প্রবেশ করে তার স্ত্রী মালেকা বেগম ও তার প্রতিবন্ধী ছেলে মাসুদকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারধর করে ডাকাতরা।

এ সময় ঘরে থাকা দুই লাখ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যাওয়ার সময় মসজিদে মাইকিং করে গ্রামে ডাকাত পড়েছে বলে ঘোষণা দিলে কয়েক গ্রামের লোকজন একত্রিত হয়ে ফয়েজ আহম্মদকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।

পরে এ ঘটনায় গৃহকর্ত্রী মালেকা বেগম বাদী হয়ে একটি মামলা করেন।

এ বিষয়ে থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রকিবুল ইসলাম বলেন, মামলাটি তদন্তভার গ্রহণ করার পর চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একাধিক অভিযান পরিচালনা করেছি। তারা স্থান বদল করায় ওই সময় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। পরে প্রযুক্তির সহায়তায় সোমবার রাতে চট্টগ্রামে পৃথক অভিযান চালিয়ে আকবরশাহ ও পাহাড়তলী থানার পুলিশের সহযোগিতায় তিন ডাকাতকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।

নাঙ্গলকোটে গণপিটুনিতে ডাকাত নিহতের ঘটনায় আটক ৩

 নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
০৯ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আটক
ছবি: যুগান্তর

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলায় গণপিটুনিতে ফয়েজ আহম্মদ (৪৫) নামে এক ডাকাত নিহতের ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার গভীর রাতে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী ও আকবরশাহ এলাকা থেকে পৃথক অভিযানে তাদের আটক করা হয়। নিহত ডাকাত ফয়েজ আহম্মদের বাড়ি চট্টগ্রামের চন্দনাইশ গ্রামে। 

মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

অটককৃতরা হলো— উপজেলার হিয়াজোড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩১) ও ভোলাইন গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে শাহিন ওরফে সাজু (২৯) এবং দাউদকান্দি উপজেলার জুরানপুর গ্রামের মৃত গোবর্দ্ধন চন্দ্র সাহার ছেলে রঞ্জন চন্দ্র সাহা (৩৫)। 

জানা যায়, গত ৬ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য আব্দুস সাত্তারের ঘরের গ্রিল কেটে প্রবেশ করে তার স্ত্রী মালেকা বেগম ও তার প্রতিবন্ধী ছেলে মাসুদকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারধর করে ডাকাতরা। 

এ সময় ঘরে থাকা দুই লাখ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যাওয়ার সময় মসজিদে মাইকিং করে গ্রামে ডাকাত পড়েছে বলে ঘোষণা দিলে কয়েক গ্রামের লোকজন একত্রিত হয়ে ফয়েজ আহম্মদকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। 

পরে এ ঘটনায় গৃহকর্ত্রী মালেকা বেগম বাদী হয়ে একটি মামলা করেন।

এ বিষয়ে থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রকিবুল ইসলাম বলেন, মামলাটি তদন্তভার গ্রহণ করার পর চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একাধিক অভিযান পরিচালনা করেছি। তারা স্থান বদল করায় ওই সময় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। পরে প্রযুক্তির সহায়তায় সোমবার রাতে চট্টগ্রামে পৃথক অভিযান চালিয়ে আকবরশাহ ও পাহাড়তলী থানার পুলিশের সহযোগিতায় তিন ডাকাতকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন