স্বাধীন বাহিনীর সঙ্গে র‌্যাবের গোলাগুলি
jugantor
স্বাধীন বাহিনীর সঙ্গে র‌্যাবের গোলাগুলি

  নরসিংদী প্রতিনিধি  

০৯ নভেম্বর ২০২১, ২২:৩৮:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীর অশান্ত চরাঞ্চলে শান্তি ফেরাতে আলোকবালী রায়পুরার মির্জারচর ও নিলক্ষাচরে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব-১১। এ সময় স্বাধীন বাহিনীর সঙ্গে র‌্যাবের গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

একটি রিভালবার, একটি শটগান, একটি ওয়ান শুটারগান, ৩১ রাউন্ড গুলি, বুলেটপ্রুফ জ্যাকেটসহ বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ সময় ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-১১ নরসিংদী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান র্যালব-১১ নারায়ণগঞ্জ অধিনায়ক লে. কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা (পিএসসি)।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- আ. সাত্তার ওরফে স্বাধীন (৫৪), কালন (৩০), নাজির হোসেন (৩৫), বিল্লাহ হোসেন (৩৫), জুয়েল (২৫), আবুল হোসেন (৫৫), মো. আনিস (২৬), খোকন মিয়া (৩২), মিজানুর রহমান (৪৫), আইব আলী (৪৪), নাসির (৩০), লিটন (২০)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র্যাকব-১১ জানায়, নরসিংদী জেলায় সংগঠিত হত্যা, মাদক, চুরি, ডাকাতি, অপহরণ, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিসহ সংঘটিত বিভিন্ন অপরাধ রুখে দিতে র্যাাব-১১ এর অভিযান আরও জোরদার করা হয়েছে। এ পর্যন্ত গত ২ সপ্তাহে নির্বাচনী সহিংসতায় ৬ জন গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়। বহুসংখ্যক মানুষ এ সহিংসতায় আহত হয়েছেন। সুষ্ঠু, সুন্দর ও নিরপেক্ষ নির্বাচন এবং জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য র্যােবের অভিযান জোরদার করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় ইউপি নির্বাচনের সহিংসতা প্রতিরোধে নরসিংদীর রায়পুরা থানার মির্জারচর, আলোকবালী ও নিলক্ষাচরাঅঞ্চলে র্যাীব-১১ নরসিংদীর চৌকস একটি দল মঙ্গলবার ভোরে চরাঞ্চলে অভিযান চালায়। খবর পেয়ে নিলক্ষা ও আলোকবালী চরাঞ্চলের সন্ত্রাসীরা আত্মগোপন করে। পরে জেলার রায়পুরার মির্জাচর এলাকায় অভিযান চালায় র্যাসব।

এ সময় অভিযানে র্যাজবের উপস্থিতি টের পেয়ে কুখ্যাত স্বাধীন বাহিনীর প্রধান স্বাধীনসহ দলের অন্য সদস্যরা র্যাাবকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। এ সময় জানমাল ও সরকারি সম্পদ রক্ষার্থে র্যাববও পাল্টা গুলি চালায়। পরে তাদের চারপাশ থেকে ঘেরাও দিয়ে হত্যাসহ অসংখ্য মামলার পলাতক আসামি স্বাধীন বাহিনীর প্রধান স্বাধীনসহ স্বাধীন বাহিনীর ১২ জনকে গ্রেফতার করে র্যাাব।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ১টি রিভালবার, ২ রাউন্ড রিভালবারের গুলি, ১টি ইউএসএর তৈরি শটগান, ২৯ রাউন্ড শটগানের গুলি, ১টি ওয়ান শুটারগান, রামদা ৬টি, ছোরা ১টি, তলোয়ার ১টি, কিরিচ ১টি, সামুরাই ২টি, চাপাতি ১টি, ৩টি বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, নগদ ৮৮৮০/- টাকা এবং ৮টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-১১ আরও জানায়, স্বাধীন বাহিনীর সদস্যরা চাঁদাবাজি, ডাকাতি, অগ্নিসংযোগ, ভয়ভীতি প্রদর্শন, হত্যাসহ ব্যাপক সহিংসতা করে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামিরা এলাকার চিহ্নিত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। দীর্ঘদিন তারা ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল। তার বিরুদ্ধে নরসিংদী রায়পুরা থানাসহ বিভিন্ন থানায় খুন, হত্যাচেষ্টা, মাদক মামলাসহ একাধিক অস্ত্র মামলা আছে।

স্বাধীন বাহিনীর সঙ্গে র‌্যাবের গোলাগুলি

 নরসিংদী প্রতিনিধি 
০৯ নভেম্বর ২০২১, ১০:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নরসিংদীর অশান্ত চরাঞ্চলে শান্তি ফেরাতে আলোকবালী রায়পুরার মির্জারচর ও নিলক্ষাচরে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব-১১। এ সময় স্বাধীন বাহিনীর সঙ্গে র‌্যাবের গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

একটি রিভালবার, একটি শটগান, একটি ওয়ান শুটারগান, ৩১ রাউন্ড গুলি, বুলেটপ্রুফ জ্যাকেটসহ বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ সময় ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-১১ নরসিংদী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান র্যালব-১১ নারায়ণগঞ্জ অধিনায়ক লে. কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা (পিএসসি)।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- আ. সাত্তার ওরফে স্বাধীন (৫৪), কালন (৩০), নাজির হোসেন (৩৫), বিল্লাহ হোসেন (৩৫), জুয়েল (২৫), আবুল হোসেন (৫৫), মো. আনিস (২৬), খোকন মিয়া (৩২), মিজানুর রহমান (৪৫), আইব আলী (৪৪), নাসির (৩০), লিটন (২০)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র্যাকব-১১ জানায়, নরসিংদী জেলায় সংগঠিত হত্যা, মাদক, চুরি, ডাকাতি, অপহরণ, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিসহ সংঘটিত বিভিন্ন অপরাধ রুখে দিতে র্যাাব-১১ এর অভিযান আরও জোরদার করা হয়েছে। এ পর্যন্ত গত ২ সপ্তাহে নির্বাচনী সহিংসতায় ৬ জন গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়। বহুসংখ্যক মানুষ এ সহিংসতায় আহত হয়েছেন। সুষ্ঠু, সুন্দর ও নিরপেক্ষ নির্বাচন এবং জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য র্যােবের অভিযান জোরদার করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় ইউপি নির্বাচনের সহিংসতা প্রতিরোধে নরসিংদীর রায়পুরা থানার মির্জারচর, আলোকবালী ও  নিলক্ষাচরাঅঞ্চলে র্যাীব-১১ নরসিংদীর চৌকস একটি দল মঙ্গলবার ভোরে চরাঞ্চলে অভিযান চালায়। খবর পেয়ে নিলক্ষা ও আলোকবালী চরাঞ্চলের সন্ত্রাসীরা আত্মগোপন করে। পরে জেলার রায়পুরার মির্জাচর এলাকায় অভিযান চালায় র্যাসব।

এ সময় অভিযানে র্যাজবের উপস্থিতি টের পেয়ে কুখ্যাত স্বাধীন বাহিনীর প্রধান স্বাধীনসহ দলের অন্য সদস্যরা র্যাাবকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। এ সময় জানমাল ও সরকারি সম্পদ রক্ষার্থে র্যাববও পাল্টা গুলি চালায়। পরে তাদের চারপাশ থেকে ঘেরাও দিয়ে হত্যাসহ অসংখ্য মামলার পলাতক আসামি স্বাধীন বাহিনীর প্রধান স্বাধীনসহ স্বাধীন বাহিনীর ১২ জনকে গ্রেফতার করে র্যাাব।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ১টি রিভালবার, ২ রাউন্ড রিভালবারের গুলি, ১টি ইউএসএর তৈরি শটগান, ২৯ রাউন্ড শটগানের গুলি, ১টি ওয়ান শুটারগান, রামদা ৬টি, ছোরা ১টি, তলোয়ার ১টি, কিরিচ ১টি, সামুরাই ২টি, চাপাতি ১টি, ৩টি বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, নগদ ৮৮৮০/- টাকা এবং ৮টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব-১১ আরও জানায়, স্বাধীন বাহিনীর সদস্যরা চাঁদাবাজি, ডাকাতি, অগ্নিসংযোগ, ভয়ভীতি প্রদর্শন, হত্যাসহ ব্যাপক সহিংসতা করে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামিরা এলাকার চিহ্নিত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। দীর্ঘদিন তারা ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল। তার বিরুদ্ধে নরসিংদী রায়পুরা থানাসহ বিভিন্ন থানায় খুন, হত্যাচেষ্টা, মাদক মামলাসহ একাধিক অস্ত্র মামলা আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন