ইজিবাইকে তুলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩
jugantor
ইজিবাইকে তুলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

  ফরিদপুর ব্যুরো  

০৯ নভেম্বর ২০২১, ২২:৪৭:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুর সদরে সপ্তম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) জামাল পাশা এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ফরিদপুর সদরের আইজুদ্দিনডাঙ্গী এলাকার শুকুর শেখের ছেলে আকাশ শেখ (১৮), সদরের পূর্বডাঙ্গী এলাকার আব্দুল রাজ্জাক শেখের ছেলে শিপন শেখ (১৯) ও ১৭ বছরের এক কিশোর।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা বলেন, ৭ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে কোতোয়ালি থানাধীন ১৩ বছরের এক স্কুলছাত্রী রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে গেলে আকাশ শেখ ও তার তিন-চারজন সঙ্গী নিয়ে কিশোরীকে মুখ চেপে ধরে ইজিবাইকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর পার্শ্ববর্তী চরমাধবদিয়া ইউনিয়নের আসিরউদ্দিন মুন্সীডাঙ্গী এলাকা সংলগ্ন এক বিলের শ্যালোমেশিন ঘরে নিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, ধর্ষণের পর কিশোরীকে মুমূর্ষু অবস্থায় ফাঁকা মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে চলে যায় তারা। পরে কিশোরী বাড়িতে গিয়ে তার মায়ের কাছে সব ঘটনা বলে। স্বজনরা কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

রোববার কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলার পর পুলিশ সোমবার আভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- ফরিদপুর সদর সার্কেল সুমন চন্দ্র সরকার, কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমএ জলিল। তদন্তকারী কর্মকর্তা আবুল খায়ের প্রমুখ।

ইজিবাইকে তুলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

 ফরিদপুর ব্যুরো 
০৯ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুর সদরে সপ্তম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) জামাল পাশা এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ফরিদপুর সদরের আইজুদ্দিনডাঙ্গী এলাকার শুকুর শেখের ছেলে আকাশ শেখ (১৮), সদরের পূর্বডাঙ্গী এলাকার আব্দুল রাজ্জাক শেখের ছেলে শিপন শেখ (১৯) ও ১৭ বছরের এক কিশোর।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা বলেন, ৭ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে কোতোয়ালি থানাধীন ১৩ বছরের এক স্কুলছাত্রী রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে গেলে আকাশ শেখ ও তার তিন-চারজন সঙ্গী নিয়ে কিশোরীকে মুখ চেপে ধরে ইজিবাইকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর পার্শ্ববর্তী চরমাধবদিয়া ইউনিয়নের আসিরউদ্দিন মুন্সীডাঙ্গী এলাকা সংলগ্ন এক বিলের শ্যালোমেশিন ঘরে নিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, ধর্ষণের পর কিশোরীকে মুমূর্ষু অবস্থায় ফাঁকা মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে চলে যায় তারা। পরে কিশোরী বাড়িতে গিয়ে তার মায়ের কাছে সব ঘটনা বলে। স্বজনরা কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

রোববার কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলার পর পুলিশ সোমবার আভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- ফরিদপুর সদর সার্কেল সুমন চন্দ্র সরকার, কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমএ জলিল। তদন্তকারী কর্মকর্তা আবুল খায়ের প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন