গণনার পর ইভিএম লুট
jugantor
গণনার পর ইভিএম লুট

  গলাচিপা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

১২ নভেম্বর ২০২১, ০০:৩৭:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ইভিএম

ভোট গণনার পর সাধারণ সদস্য পদে বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণার পরই পরাজিত প্রার্থীরা ভোটের ফলাফল না মেনে নিয়ে ভোট কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পটুয়াখালীর গলাচিপার পানপট্টির ৫নং কাজীরকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় ভোট কেন্দ্রের বাইরে থাকা অপেক্ষমাণ সমর্থকরাও এতে যোগ দিয়ে ভোট কেন্দ্রে ব্যাপক ভাংচুর ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভোট কেন্দ্রের ইভিএম নিয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে পুলিশ শটগানের গুলি চালায়।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, ঘটনার সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ শটগানের গুলি চালায়। বর্তমানে তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন। ইভিএম উদ্ধারসহ জড়িতদের গ্রেফতারে কাজ চলছে।

এদিকে পানপট্টি ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সুহৃদ সালেহীন জানান, সন্ধ্যার পর তিনি অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। হামলাকারীরা কেন্দ্রের ৯টি ইভিএমের মধ্যে ৮টি নিয়ে গেছে।

গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিষ কুমার জানান, সন্ধ্যার পরে ভোট গণনা শেষে পরাজিত প্রার্থীরা তাদের সমর্থকদের নিয়ে ভোট কেন্দ্র হামলা চালিয়ে ইভিএম নিয়ে যায়। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ইভিএম উদ্ধারে কাজ চলছে।

গণনার পর ইভিএম লুট

 গলাচিপা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
১২ নভেম্বর ২০২১, ১২:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইভিএম
ফাইল ছবি

ভোট গণনার পর সাধারণ সদস্য পদে বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণার পরই পরাজিত প্রার্থীরা ভোটের ফলাফল না মেনে নিয়ে ভোট কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পটুয়াখালীর গলাচিপার পানপট্টির ৫নং কাজীরকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় ভোট কেন্দ্রের বাইরে থাকা অপেক্ষমাণ সমর্থকরাও এতে যোগ দিয়ে ভোট কেন্দ্রে ব্যাপক ভাংচুর ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভোট কেন্দ্রের ইভিএম নিয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে পুলিশ শটগানের গুলি চালায়।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, ঘটনার সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ শটগানের গুলি চালায়। বর্তমানে তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন। ইভিএম উদ্ধারসহ জড়িতদের গ্রেফতারে কাজ চলছে।

এদিকে পানপট্টি ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সুহৃদ সালেহীন জানান, সন্ধ্যার পর তিনি অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। হামলাকারীরা কেন্দ্রের ৯টি ইভিএমের মধ্যে ৮টি নিয়ে গেছে।

গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিষ কুমার জানান, সন্ধ্যার পরে ভোট গণনা শেষে পরাজিত প্রার্থীরা তাদের সমর্থকদের নিয়ে ভোট কেন্দ্র হামলা চালিয়ে ইভিএম নিয়ে যায়। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ইভিএম উদ্ধারে কাজ চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন